শনিবার ২০ এপ্রিল, ২০১৯ ইং , ৭ বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৩ শাবান, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

রাজনীতি আর খেলাকে আলাদা রাখুন: মিসবাহ

মার্চ ৯, ২০১৯ | ৩:২২ অপরাহ্ণ

।। স্পোর্টস ডেস্ক ।।

কাশ্মীরে পুলওয়ামাতে পাকিস্তানি জঙ্গী সংগঠনের সন্ত্রাসী হামলার প্রভাব পড়েছে ভারত-পাকিস্তান ক্রিকেটে। ভারতের সাবেক ক্রিকেটার থেকে শুরু করে বর্তমান ক্রিকেটাররাও পাকিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডে বিশ্বকাপে খেলতে চাইছে না। এদিকে, পাকিস্তানি সাবেকদের মতো বর্তমান ক্রিকেটাররা ম্যাচটি খেলার পক্ষে। পাকিস্তানের সাবেক দলপতি মিসবাহ উল হকও জানালেন, রাজনীতি থাকবে তার নিজস্ব জায়গায়।

পুলওয়ামা হামলায় ৪০ জন ভারতীয় জওয়ান শহীদ হওয়ার পর পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ম্যাচ বয়কটের দাবি তুলেছেন অনেকেই। শুধু ক্রিকেট নয়, সব খেলাতেই পাকিস্তানকে বয়কটের দাবি করেছেন ভারতের সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলী। আসন্ন বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতের ম্যাচ বয়কটের দাবি করেন অফ-স্পিনার হরভজন সিং। বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে ছেঁটে ফেলার পক্ষে আর্জি জানায় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। তবে, ম্যাচ না খেলার পক্ষে নন ভারতের সাবেক অধিনায়ক সুনীল গাভাস্কার।

এদিকে, পাকিস্তানের সাবেক পেসার শোয়েব আখতার, সাবেক অধিনায়ক জাভেদ মিঁয়াদাদ ম্যাচটি খেলার পক্ষে। তাদের দাবি, ঘটনাটি দুই দেশের রাজনৈতিক, ক্রীড়াঙ্গনে এর প্রভাব থাকা উচিত নয়। মিসবাহও তাদের সঙ্গে গলা মেলালেন। তিনি আইসিসির কাছে আর্জি জানিয়েছেন, বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচটি যাতে নির্বিঘ্নে হয়। তিনি গণমাধ্যমে বলেন, আমার দৃষ্টিতে রাজনীতি পুরোপুরি ভিন্ন একটা বিষয়। যেটা কখনই খেলার সঙ্গে যায় না। কোনো সুযোগই নেই রাজনীতি আর স্পোর্টসকে এক জায়গায় রাখার।

মিসবাহ আরও জানান, যখন খেলার মাঠে প্রবেশ করবেন তখন আপনি পুরোপুরি একটি দেশের প্রতিনিধত্ব করবেন। সেখানকার আবহাওয়া পুরোপুরি আপনার খেলার সঙ্গে জড়িত থাকবে। আর সেখানে আপনি চাইবেন প্রতিপক্ষের বিপক্ষে জিততে, নিজের সেরাটা ঢেলে দিতে। এটাই তো ক্রিকেটের স্পিরিট। দর্শকদের বিনোদন দেওয়ারও ব্যাপার থাকে। আপনি তাদের কখনোই হতাশ করতে চাইবেন না। রাজনীতি তার নিজস্ব পথে চলবে। স্পোর্টসকেও তার নিজের পথে চলতে দিন। দয়া করে এই দুটি দিক এক করতে যাবেন না।

রেকর্ড বলছে, কার্গিল যুদ্ধ চলার সময়ও ১৯৯৯ বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলেছে ভারত। ১৯৯৯ বিশ্বকাপও হয়েছিল ইংল্যান্ডের মাটিতে। ৪৭ রানে ম্যাচ জিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে বিশ্বকাপে জয়ের ধারা বজায় রেখেছিল মোহাম্মদ আজহারউদ্দিনের দলটি। আগের সেই ম্যাচটিও হয়েছিল ম্যানচেস্টারে। কাকতালীয় হলেও ১৬ জুনের এই ম্যাচটিও ম্যানচেস্টারে।

সারাবাংলা/এমআরপি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন