বৃহস্পতিবার ২১ মার্চ, ২০১৯ ইং , ৭ চৈত্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১৩ রজব, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

গুটি গুটি পায়ে নয়, গুটিপা এখন দৌড়ুচ্ছে !

মার্চ ১৩, ২০১৯ | ৫:০৯ অপরাহ্ণ

নানা প্রতিবন্ধকতা ও বাধা ডিঙিয়ে নারীর কর্মক্ষেত্র বিস্তৃত হচ্ছে। বাংলাদেশেও নারীর ক্ষমতায়ন চোখে পড়ার মত। বিশেষ করে অর্থনীতিতে নারীর অংশগ্রহণ- অন্য যেকোন উন্নয়নশীল দেশের চেয়ে এগিয়ে আছে। অনলাইন এখন যেকোন কাজের জন্য সবচেয়ে দ্রুতগামী ও কার্যকরী মাধ্যম। এখন অনলাইনে ব্যবসায় বাণিজ্যেরও প্রসার ঘটছে। বিশেষ করে এদেশের অনেক নারী অনলাইনকে কেন্দ্র করে ব্যবসা করছেন, রীতিমত সফলতার সাথে। আন্তর্জাতিক নারী দিবসে সারাবাংলা এরকম কয়েকজন নারীকে আড্ডা অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানিয়েছিল, যারা অনলাইন প্লাটফর্মে নিজেদের সৃষ্টিশীলতাকে কাজে লাগিয়ে রীতিমত সফল উদ্যোক্তা হয়ে উঠেছেন। এদেরই একজন তাসলিমা মিজি।

 

তাসলিমা মিজি, প্রতিষ্ঠাতা উদ্যোক্তা, গুটিপা।  ব্যবস্থাপনা পরিচালক, লেদারিনা লিমিটেড

বেশিরভাগ নারীকে অল্প পুঁজি নিয়েই ব্যবসা শুরু করতে হয়। কারণ নারীর নিজের সম্পদ বলে তেমন কিছু থাকে না। শুরুটা কঠিন হলেও নিজের প্রচেষ্টায় অনেক নারী হয়ে ওঠেন সফল উদ্যোক্তা। এমনই একজন উদ্যোক্তা তাসলিমা মিজি। অনলাইনভিক্তিক প্রতিষ্ঠান ‘গুটিপা’ চালু হয়েছে তার হাত ধরেই। মূলত চামড়াজাত পণ্য ব্যাগ ও জুতার জন্য গুটিপা পরিচিত। তবে, পাট ও অন্যান্য দেশীয় কাঁচামালও ব্যবহার করা হয়।

কর্মজীবী নারীদের উদ্দেশ্য করেই ব্যবসা শুরু করেন তাসলিমা মিজি। কর্মক্ষেত্রে নারীরা যে ধরনের ব্যাগ ব্যবহার করেন মূলত সেগুলোই এখানে তৈরি করা হয়।

সমাজবিজ্ঞান বিভাগ থেকে সম্মানসহ স্নাতকোত্তর ডিগ্রি নেওয়ার পর ৬-৭ বছর সাংবাদিকতা করেন। এরপর এই পেশা ছেড়ে দিয়ে প্রযুক্তিখাতে ব্যবসা করেন দীর্ঘ নয় বছর। কিন্তু উৎপাদন প্রক্রিয়ার সাথে যুক্ত থাকার ইচ্ছা সবসময়ই ছিল। তাই ২০১৬ সালের জুনে চামড়াজাত পণ্য তৈরির প্রতিষ্ঠান লেদারিনা শুরু করেন।

গুটিপা

গুটিপা’র বেশ কিছু পণ্য

ব্যবসার প্রথম থেকেই তাসলিমা মিজির লক্ষ্য ছিল, দেশের গন্ডি ছাড়িয়ে বিদেশেও তার পণ্যের পরিচিতি ঘটানো। সেই লক্ষ্যে তিনি কাজ করে গেছেন। ২০১৭ থেকে দেশের বাইরে পণ্য রপ্তানি শুরু করেন। এখন নেদারল্যান্ডের একটি ডিজাইনার ব্রান্ডকে তার পণ্য রপ্তানি করছেন। দেশের বাইরে থেকেও এখন পণ্যের অর্ডার পাচ্ছেন। তাছাড়া তার অধীনে আরও অনেক নারী কাজ করছেন বলে জানান তাসলিমা মিজি।

গুটিপা

তাসলিমা মিজির হাতে প্রতিকৃতি তুলে দিচ্ছেন সৈয়দ ঈশতিয়াক রেজা ও মাহমুদ মেনন খান

প্রত্যেক ব্যবসায়ী তার প্রতিষ্ঠান কিংবা ব্র্যান্ডের এমন একটি নাম দিতে চান যাতে ক্রেতা আকর্ষণ বোধ করেন। প্রতিষ্ঠানের নাম ‘গুটিপা’ হওয়ার কারণ কী জানতে চাইলে তাসলিমা মিজি বলেন, ‘আমি এমন একটি নাম বেছে নিতে চেয়েছিলাম যাতে আমার চিন্তাভাবনা ও স্বপ্নের প্রতিফলন থাকবে। আগে প্রতিদিন বিকেলবেলা কাজ শেষে বেরিয়ে হাঁটতে যেতাম হাজারিবাগে। একদিন হঠাৎ মনে হলো, এই যে আমি হাঁটছি ও একটু একটু করে সামনে এগিয়ে যাচ্ছি এটাই আমাকে প্রতীকায়িত করে। তখন ভাবলাম আমার ব্র্যান্ডের নাম হবে ‘গুটি গুটি পা’। পরে মনে হলো, এর চেয়ে ‘গুটিপা’ নামটি ভাল শোনাবে।’

কাছের বন্ধু ও পরিচিতদের সহযোগিতায় এই ব্যবসাটি সফলভাবে করতে পারছেন বলে মন্তব্য করেন তাসলিমা মিজি।

 

সারাবাংলা/টিসি/ এসএস

 

বিজ্ঞাপন
গুটি গুটি পায়ে নয়, গুটিপা এখন দৌড়ুচ্ছে !
বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন