শনিবার ২৩ মার্চ, ২০১৯ ইং , ৯ চৈত্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১৪ রজব, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

শস্যের সম্ভাবনা নিয়ে চৈত্রের আগমন

মার্চ ১৫, ২০১৯ | ১২:৫০ পূর্বাহ্ণ

।। সিরাজুম মুনিরা, সিনিয়র নিউজরুম এডিটর ।।

চৈত্রমাসে বারদোষে বৎসরের ফল
মধুমাসের প্রথম দিবসে হয় যে যে বার।
রবি চোষে, মঙ্গল বর্ষে, দুর্ভিক্ষ হয় বুধবার।
সোম শুক্র গুরুবার, পৃথিবী না সহে শস্যের ভার।

বহু বছর আগে খনা বলেছিলেন চৈত্র মাসের প্রথম দিনটি যে বার পড়বে সে বারটিই ঠিক করে দেবে গোটা বছর কেমন যাবে। প্রথম চৈত্র রোববার হলে খরা, মঙ্গলবার হলে বর্ষা, বুধবার হলে দুর্ভিক্ষ হবে। আর প্রথম দিনটি সোম বা শুক্রবার হলে সেই বছর প্রচুর শস্য ফলবে দেশে।

বিজ্ঞাপন

তো আজ শুক্রবার (১ চৈত্র)। খনার হিসেবে এ বছর দেশে প্রচুর শস্য উৎপাদন হওয়ার কথা। আমরাও প্রত্যাশা করি একটা শস্যে ভরপুর বছরের আর এই ফাঁকে জেনে নিই দিনটা কেমন যাবে।

শুরুতেই চৈত্রের প্রথম দিনের শুভেচ্ছা। আসলে শুভেচ্ছা নয়, আপনাকে সাবধান করে দিচ্ছি। হাঁসফাঁস করা গরমের দিন কিন্তু শুরুই হয়ে গেল। সামনের দিনগুলোর জন্য তাই প্রস্তুতি নিন।

শেষ ফাল্গুনে বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) দিনজুড়ে ছিল কুয়াশার দাপট। সঙ্গে ছিল ভ্যাপসা গরম। সব মিলিয়ে একেবারে ভজঘট অবস্থা। একদিকে কুয়াশার জন্য ফেরি চলাচল বন্ধ থাকছে, অন্যদিকে গরমে বাসের মধ্যে বসে থাকা যাচ্ছে না।

সে যাই হোক, শুক্রবার (১৫ মার্চ) আকাশে থাকবে মেঘের ঘনঘটা। অ্যাকুওয়েদারের তথ্য অনুযায়ী, কাল সারাদিনই আকাশ মেঘলা থাকবে। মাঝে মাঝে সূর্যের দেখা পাওয়া গেলেও দাপট দেখাবে মেঘ। কিন্তু তাই বলে ভাববেন না যে খুব আরাম আরাম আবহাওয়া থাকবে।

গরম পড়বে বেশ। ভ্যাপসা গরমে হাঁপিয়েও উঠতে পারেন। সেজন্য আমার পরামর্শ থাকবে এমন পোশাক নির্বাচন করতে হবে যেটা দিয়ে সহজেই বাতাস চলাচল করতে পারে। বাড়ির বাইরে বের হলে সঙ্গে রাখতে হবে ছাতা আর এক বোতল পানি। কারণ, বাসে দীর্ঘসময় বসে থাকতে হলে নিশ্চিত করে বলতে পারি আপনার পানির তৃষ্ণা পাবে।

আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, সারাদেশে ১৯ মার্চ পর্যন্ত আবহাওয়া বেশ শুষ্ক থাকবে। তবে খুলনা ও রাজশাহী বিভাগের কোথাও কোথাও বজ্রবৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

এসময়টা শিশুদের একটু বাড়তি যত্ন করতে ভুলবেন না। খেয়াল রাখতে হবে যেন সময় মতো ঘামের পোশাকটা পাল্টে দেওয়া হয়। তাদের জন্যই নির্বাচন করতে হবে ঢিলেঢালা সুতির পোশাক।

ছবি: আব্দুল মোমিন

সারাবাংলা/এসএমএন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন