বৃহস্পতিবার ২৫ এপ্রিল, ২০১৯ ইং , ১২ বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৮ শাবান, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

নামাজ পড়তে গিয়েছে বাবা আর ফিরে আসেনি!

মার্চ ১৫, ২০১৯ | ৭:৪৮ অপরাহ্ণ

।। আন্তর্জাতিক ডেস্ক ।।

প্রতি সপ্তাহের মতো শুক্রবার ক্রাইস্টচার্চের আল-নূর মসজিদে জুম্মার নামাজ পড়তে গিয়েছিলেন রাহিমি আহমেদ (৩৯)। সঙ্গে ছিল তার ১১ বছরের ছেলে। বন্দুকধারীর হামলার ঠিক আগে রাহিমির ছেলে মসজিদের বাইরে খেলছিল। তবে রাহিমি তখন মসজিদের ভেতরে প্রার্থনারত। এবং কিছুক্ষণ পরই গুলির শব্দ!

গোলাগুলির সময় কেউ একজন রাহিমির ছেলের হাত ধরে তাকে মসজিদের বাইরে নিরাপদ জায়গায় নিয়ে যায়। কিন্তু হামলার পর থেকে রাহিমি নিখোঁজ। রাহিমির স্ত্রী আজিলা জানান, তাদের ভয় বাড়ছে। সন্ত্রাসী হামলায় কি প্রাণ গেছে তার ছেলের বাবার?

বিজ্ঞাপন

আজিলা নিউজিল্যান্ড হেরাল্ডকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলেন, আমি শুধু শুনতে চাই আমার স্বামী নিরাপদে আছেন। আমি প্রার্থনা করছি সে আমাকে ফোন দিবে। কারণ ওর কাছে ফোন আছে।

রাহিমির সঙ্গে থাকা তার ছেলে জানায়, বাবা ১টার দিকে মসজিদে ঢুকে। সন্ত্রাসীও হামলা চালায় এরপর।

আজিলা বলেন, হামলার সময় আমার ছেলেকে পাশের একটি বাড়িতে আমার এক বন্ধু নিরাপদে নিয়ে যায়। তবে আমার স্বামীর কথা সে বলতে পারছে না।

আজিলা হতাশ চোখে জানান, সবাই আমাদের ঘরে থাকতে বলছে তবে আমার স্বামীর খোঁজ আমি এখনো জানিনা।

পাঁচ বছর আগে মালয়েশিয়া থেকে রাহিমি ও তার পরিবার নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে বসত গড়ে। এখানে যা ঘটলো তা তারা ভাবতে পারছে না। এছাড়া, মালয়েশিয়ার হাইকমিশনও এখনো রাহিমির কোন খোঁজ দিতে পারেনি।

এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়েছে, হামলায় একজন মালয়েশিয়ার নাগরিকের মৃত্যু নিশ্চিত করা হয়েছে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন আরও একজন। তবে তাদের পরিচয় জানা যায়নি।

সারাবাংলা/এনএইচ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন