রবিবার ২০ অক্টোবর, ২০১৯ ইং , ৪ কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২০ সফর, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

সাফে গ্রুপ রানার্সআপ হলো বাংলাদেশের মেয়েরা

মার্চ ১৬, ২০১৯ | ৫:১১ অপরাহ্ণ

।। স্পোর্টস ডেস্ক ।।

বিজ্ঞাপন

সাফ সিনিয়র নারী চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম ম্যাচে ভুটানকে হারিয়ে আগেই সেমি ফাইনাল নিশ্চিত করে বাংলাদেশের মেয়েরা। একই গ্রুপ থেকে সেমি নিশ্চিত করেছে নেপালও। গ্রুপপর্বে বাংলাদেশের চ্যালেঞ্জ ছিল স্বাগতিকদের হারানো। সেই চ্যালেঞ্জে হেরেছে সাবিনারা। নিয়মরক্ষার ম্যাচে স্বাগতিক নেপালের বিপক্ষে হেরেছে ৩-০ গোলে।

বিরাটনগরের শহীদ রঙ্গশালা স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় দুপুর ৩-১৫ মিনিটে নেপালের মুখোমুখি হয় বাংলাদেশের মেয়েরা। ম্যাচের ষষ্ঠ মিনিটে পিছিয়ে পড়ে বাংলাদেশ। অনিতা বাসন্তির তুলে মারা বল ক্লিয়ার করতে এগিয়ে আসেন বাংলাদেশের গোলরক্ষক রুপনা চাকমা। মাসুরা পারভীনের মাথায় বল লেগে নিজেদের জালে জড়ায়। ২৩ মিনিটের মাথায় আবারো ভুল করেন বাংলাদেশের গোলরক্ষক। এগিয়ে এসে বল নিয়ন্ত্রণে নিতে পারেননি। জালের সামনে নেপালের দুই খেলোয়াড় বল দেওয়া-নেওয়ার মধ্য দিয়ে জালে জড়িয়ে দেন। এখানে গোলটি পান সাবিত্রা ভান্ডারি।

আর ২৮ মিনিটের মাথায় বাংলাদেশের ডিফেন্ডারদের বোকা বানিয়ে আরও একটি গোল করে নেপালের মেয়েরা। এবারের গোলদাতা ছিলেন মানজালি কুমারি। ৩-০ গোলে এগিয়ে বিরতিতে যায় স্বাগতিকরা। বিরতির পর অবশ্য আর কোনো গোলের দেখা পায়নি নেপাল, বাংলাদেশও পারেনি গোল শোধ করে হারের ব্যবধান কমাতে। তবে, ৫৯তম মিনিটে নেপালের নিশ্চিত গোল রক্ষা করেন আত্মঘাতী গোল করা মাসুরা। ৬৩তম মিনিটে সানজিদা খাতুনের কাটব্যাকে সিরাত জাহান স্বপ্নার শট ঝাঁপিয়ে পড়ে ফেরান নেপাল গোলরক্ষক। যোগ হওয়া সময়ে সিরাত জাহান স্বপ্নার শট ক্রসবারে লেগে ফেরে।

বিজ্ঞাপন

সাফ

তাতে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে সেমি ফাইনালে তুলনামূলক দুর্বল প্রতিপক্ষ পাওয়া হলো না বাংলাদেশের। এদিকে ‘বি’ গ্রুপে মালদ্বীপকে হারিয়ে সেমি ফাইনাল নিশ্চিত করেছে ভারত ও শ্রীলঙ্কা। মালদ্বীপের জালে ভারত বল পাঠিয়েছে ছয়বার ও লঙ্কানরা দুবার। ১৭ মার্চ গ্রুপপর্বের শেষ দিনে দুইদল লড়বে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হতে। এই ম্যাচে ফেভারিট সবগুলো সাফের আসরের চ্যাম্পিয়ন ভারত।

সেজন্য বাংলাদেশের হিসেব-নিকেশটাও করতে হচ্ছিল। নিজেদের ‘এ’ গ্রুপে চ্যাম্পিয়ন হতে পারলে সম্ভাব্য 'বি' গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন ভারতকে এড়াতে পারতো বাংলাদেশের মেয়েরা। গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হিসেবে থাকলো নেপাল আর ‘বি‘ গ্রুপের রানার্সআপ হলো বাংলাদেশ। বাংলাদেশ যেখানে প্রথম ম্যাচে ভুটানকে হারিয়েছে ২-০ ব্যবধানে, নেপাল ভুটানকে হারিয়েছিল ৩-০ ব্যবধানে। টানা দুই জয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে ‘এ’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হলো নেপাল। নিজেদের প্রথম ম্যাচে ভুটানকে ৩-০ গোলে হারিয়েছিল তারা। ভুটানের বিপক্ষে পাওয়া ২-০ গোলের জয়ে ৩ পয়েন্ট বাংলাদেশের।

বাংলাদেশ এর আগে সাফে দুবার নেপালের মুখোমুখি হয়ে দুবারই হেরেছিল। ২০১০ কক্সবাজার সাফে সেমিফাইনালে ৩-০ গোলে, ২০১৪ ইসলামাবাদ সাফে ১-০ গোলে হেরেছিল মেয়েরা। এছাড়া, গত নভেম্বরে মিয়ানমারে অলিম্পিক ফুটবলের বাছাইপর্বে নেপালের বিপক্ষে ড্র করে বাংলাদেশ।

সারাবাংলা/এমআরপি

বিজ্ঞাপন

Tags: ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন