বৃহস্পতিবার ২৫ এপ্রিল, ২০১৯ ইং , ১২ বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৭ শাবান, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

অনিশ্চিত বন্দরে নূরা-মকবুলের গল্প

মার্চ ২৪, ২০১৯ | ১:৪৪ অপরাহ্ণ

এন্টারটেইনমেন্ট করেসপন্ডেন্ট

একটি তেলবাহী জাহাজে রান্নার কাজ করে বয়স্ক মকবুল। জাহাজের সবার মঙ্গল কামনা করে সে। কিন্তু খালাসিরা তাকে মনে করে সে মালিকের গুপ্তচর। তাই অবজ্ঞা ছাড়া প্রতিদান সে আর কিছুই পায় না।

এক বন্দরে জাহাজ ভিড়লে তার সঙ্গে পরিচয় হয় আশ্রয়হীন শিশু নূরার। দুজনের মধ্যে গড়ে ওঠে সখ্যতা। মকবুল নূরাকে তার সহকারী হিসেবে জাহাজে তোলে। কিন্তু নূরাকে কেন্দ্র করে অন্য খালাসিদের সঙ্গে তৈরি হতে থাকে জটিলতা। এক পর্যায়ে মকবুল বাধ্য হয় নূরাকে অনিশ্চিত এক বন্দরে নামিয়ে দিতে। সঙ্গে দিয়ে দেয় তার জীবনের সমস্ত সঞ্চয়।

এমন গল্পের সিনেমা ‘মাস্তুল’। সিনেমাকার এর প্রযোজনায় এর গল্প, চিত্রনাট্য ও পরিচালনা করেছেন মোহাম্মদ নূরুজ্জামান।

বিজ্ঞাপন

ছবিতে বয়স্ক মকবুলের চরিত্রে অভিনয় করেছেন ফজলুর রহমান বাবু। এছাড়াও আছেন দীপক সুমন, আমিনুর রহমান মুকুল, জুলফিকার চঞ্চল, শিকদার মুকিত এবং শিশু শিল্পীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন আরিফ।

পরিচালক মোহাম্মদ নূরুজ্জামান এর আগেও চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন। ‘মাস্তুল’ তার দ্বিতীয় সিনেমা। এছাড়াও তিনি নির্মাণ করেছেন দুটি স্বল্পদৈর্ঘ্য ও একটি প্রামাণ্যচিত্র। ‘আম কাঁঠালের ছুটি’ নামে তিনি তার প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণের কাজ শেষ করে সেন্সরে জমা দেয়ার প্রস্তুতি চলছে।

জাহাজীদের গল্প নিয়ে নির্মাণাধীন সিনেমাটির শুটিং ৭ মার্চ নারায়ণগঞ্জের বন্দর এলাকায় শুরু হয়। সিনেমাটির সিংহভাগ শুটিং হয়েছে চলন্তজাহাজে, শীতলক্ষ্যা টু মেঘনারুটে। মার্চেরই ২০ তারিখে শেষ হয় সিনেমাটির ২য় লটের শুটিং। আর শেষ লটের শুটিং হবে এপ্রিল মাসের শুরুর দিকে। সবকিছু ঠিক থাকলে আসছে ডিসেম্বরে সিনেমাটির শুভমুক্তি।

সারাবাংলা/পিএ

অনিশ্চিত বন্দরে নূরা-মকবুলের গল্প
বিজ্ঞাপন

Tags: , ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন