বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই, ২০১৯ ইং , ৩ শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৪ জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

স্বাধীনতা: জীবনে ও উৎসবমুখরতায়

মার্চ ২৫, ২০১৯ | ৬:২৮ অপরাহ্ণ

রাজনীন ফারজানা

প্রতিবছর মার্চের শেষে স্বাধীনতা দিবস আসে আনন্দের বার্তা নিয়ে। প্রকৃতি তখনও বসন্তের রঙে রঙিন। বাতাসে আমের বোলের ঘ্রাণ আর চোখের সীমানায় উঁকিঝুঁকি মারে রক্তরঙিন কৃষ্ণচূড়া। এমনই সময় স্বাধীনতার আনন্দে মেতে ওঠার। সেজে ওঠার আনন্দের রঙে রঙিন হয়ে।

স্বাধীনতা আসে আনন্দের বার্তা নিয়ে। মডেল- শিশির। ছবি – রিফাত বিন আহসান

২৬ শে মার্চ স্বাধীনতা দিবসে তাই সবাই মিলে সেজে উঠি প্রাণখুলে। গায়ে জড়াই জাতীয় পতাকার লাল আর সবুজ। বাংলাদেশের সবুজ সমতলে যেমন করে লাল টুকটুকে সূর্য উঁকি দেয় ঠিক তেমনি করে সেজে উঠুক বাংলার আপামর জনতা।

বিজ্ঞাপন

পতাকা হাতে শিশুর হাসি। ছবি- অয়ন আহমেদ

স্বাধীনতার ৪৮ বছর পূর্তিতে বিশ্বের বুকে আবারও জেগে উঠুক লাল সবুজের ঢেউ। পৃথিবী জানুক হাজারও ত্যাগের বিনময়ে পাওয়া এই স্বাধীনতার লাল আর সবুজ আমাদের কতটা প্রিয়, কতটা ভালোবাসার।

হাতে কাঁচের চুড়ি আর সবুজ শাড়িতে দিলরুবা শারমিন মৌটুসি। ছবি – রিফাত বিন আহসান

বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশের মানুষের পোশাকেও এখন নানা বৈচিত্র্য। বিশেষ দিবসেও তাই শাড়ি-সালোয়ার কামিজে বা পাঞ্জাবি-ফতুয়াতেই আটকে নাই আমাদের পোশাকের পছন্দ। স্বাধীনতা দিবসে লাল আর সবুজে রাঙা টি-শার্ট, টপস, কুর্তি, স্কার্ট, কোটি, পালাজোসহ নানা পোশাক বেছে নিতে পারি আমরা। অনেকেই মাথায় জড়ান প্রিয় জাতীয় পতাকা।

প্রিয় লাল-সবুজ পতাকা মাথায় মুখতার ইবনে রফিক

শুধু পোশাকেই নয়, লাল আর সবুজের ছোঁয়া থাকতে পারে একসসরিজেও। মেয়েদের হাত ভর্তি লাল সবুজ কাঁচের চুড়িতে দারুণ লাগে। এমনকি যারা টি-শার্ট বা অন্য পশ্চিমা পোশাক পরবেন তারাও হাত ভর্তি করে লাল আর সবুজ ব্রেসলেট বা চুড়ি পরতে পারেন। ব্যাগ, জুতা, বা চুলে গোঁজা ফুলে লাল আর সবুজের ছোঁয়াতেও দারুণ লাগবে স্বাধীনতা দিবসের সাজ। কাঠ, মাটি, পুঁতি, ব্রাস বা অক্সিডাইজের গয়নায় দারুণ মানিয়ে যায় স্বাধীনতা দিবসের সাজ।

প্রিয়তমেষুর লাল সুতি শাড়ির সাথে কাঠের মালায় ঈশরাত রথি। ছবি- প্রিয়তমেষু

বাঙালি মেয়ের সাজে টিপ সবসময়ই অন্যমাত্রা যোগ করে। স্বাধীনতা দিবসের মেয়েদের সাজে তাই একটা রঙিন টিপ আনতে পারে ভিন্ন মাত্রা। শুধু এক রঙের নানা আকারের টিপ তো বটেই এখন নানা ধরণের ডিজাইনের টিপ পাওয়া যায় নানারকম পেইজে।

ব্রাসের নাকফুল আর হাতে বানানো টিপে স্বাধীনতার সাজ উঠবে জমে। ছবি – লাল-কাজল

২৬ শে মার্চ বেশ গরম থাকায় এই দিনের সাজগোজে আরামের বিষয়টা মাথায় রাখা জরুরি। সুতি, খাদি, সিল্ক কিংবা নরম লিনেন কাপড়ে আরাম পাওয়া যাবে এসময়ে।

লাল জামদানিতে আর হালকা সাজে সাম্য সামিয়া। ছবি – রিফাত বিন আহসান

সাজগোজেও তাই অতিরিক্ত মেকআপ না করে হালকা আর আরামদায়ক মেকআপ করতে হবে। ঠোঁটে রঙের ছোঁয়া আর চোখের কাজলে বাঙালি মেয়ের চিরকালিন সাজ যেন পূর্ণতা পায় লাল অথবা সবুজ তাঁতের শাড়িতে।

 

শাড়ি-চুড়ি-নুপুর ছাড়া যেন জমে না বাঙালি মেয়ের সাজ। ছবি – রিফাত বিন আহসান

স্বাধীনতা শব্দটা ভীষণই আনন্দের। আর তা যদি হয় একটা জাতির স্বাধীনতা সেই আনন্দের কোন সীমা থাকে না। আসুন তাই স্বাধীনতার ৪৮ বছর পুর্তিতে আমরা সেজে উঠি লাল সবুজে রঙিন হয়ে। জাতি-ধর্ম আর বিভেদ ভুলে মেতে উঠি রঙিন আনন্দে।

 

ফিচার ফটো মডেল – ডা. সঙ্গিতা তুলি ও হিমাদ্রী শেখর রায় 

 

সারাবাংলা/আরএফ 

Advertisement
বিজ্ঞাপন

Tags: , , ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন