বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং , ৩ আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৮ মুহাররম, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

ইতালিতে গণহত্যা দিবস পালিত

মার্চ ২৬, ২০১৯ | ১০:৪৫ পূর্বাহ্ণ

ইতালি থেকে

যথাযথ ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে ‘গণহত্যা দিবস’ পালন করেছে বাংলাদেশ দূতাবাস, রোম। এ উপলক্ষে ২৫ মার্চ ২০১৯ তারিখে দূতাবাসে আয়োজিত অনুষ্ঠানে রোমে বসবাসরত বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনসহ বিভিন্ন স্তরের বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশি ও দূতাবাসের সব কর্মকর্তা ও কর্মচারী উপস্থিত ছিলেন।

বিজ্ঞাপন

পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াতের মাধ্যমে আলোচনা পর্ব শুরু হয়। এরপর গণহত্যা দিবস উপলক্ষে দেওয়া রাষ্ট্রপতি ও প্রধানন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন দূতাবাসের কর্মকর্তাগণ। এরপর ৭১-এর গণহত্যার ওপর একটি প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শন করা হয়। আলোচনা সভায় বক্তারা ২৫ মার্চের কালরাতে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীর বর্বরতা ও গণহত্যার শিকার শহিদদের শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন এবং ২৫ মার্চকে আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবস হিসেবে ঘোষণার দাবি জানান।

রাষ্ট্রদূত আবদুস সোবহান সিকদার তার বক্তব্যের শুরুতে গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে, যার নেতৃত্বে বাঙালি একটি স্বাধীন স্বার্বভৌম রাষ্ট্র লাভ করেছিল। তিনি ২৫ মার্চ কালরাতে নিহল সকল শহিদকেও সশ্রদ্ধ চিত্তে স্মরণ করেন। তিনি বলেন, পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী ২৫ মার্চের রাতে যে গণতহ্যা চালিয়েছিল তা সারা বিশ্বের মধ্যে জঘন্যতম গণহত্যা। এহেন জঘন্য গণহত্যাকে আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার জন্য বাংলাদেশ সরকারের উদ্যোগকে ধন্যবাদ জানান। যেহেতু মহান শহিদ দিবস আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে এবং বঙ্গবন্ধুর ৭  মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ ইউনেস্কোর গুরুত্বপূর্ণ প্রামাণ্য দলিলে স্থান পেয়েছে, ২৫ মার্চের কালরাতে সংঘঠিত গণহত্যা আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি পাবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। এক্ষেত্রে বিদেশে বসবাসরত সকল প্রবাসী বাংলাদেশিদের নিজ নিজ অবস্থান থেকে কাজ করার জন্য আহ্বান জানান।

সারাবাংলা/এমআই

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন