বৃহস্পতিবার ২৫ এপ্রিল, ২০১৯ ইং , ১২ বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৮ শাবান, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

চাঁদের পৃষ্ঠে বিধ্বস্ত ইসরাইলি রকেট

এপ্রিল ১২, ২০১৯ | ১০:০৮ পূর্বাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

বেসরকারি অর্থায়নে পরিচালিত চাঁদের উদ্দেশ্যে রওনা দেওয়া প্রথম অভিযান ব্যর্থ হয়েছে। মূল ইঞ্জিনে সমস্যার কারণে রকেটটি চাঁদের পৃষ্ঠে বিধ্বস্ত হয়েছে। খবর বিবিসির।

চাঁদে বেসরকারি অর্থায়নে পাঠানো প্রথম রকেটটি ছিল ইসরাইলি। এর নাম ছিল বেরেশিট। চাঁদে অবতরণ করতে যাওয়ার সময় কারিগরি ত্রুটির কারণে অবতরণটি পরিণত হয় দুর্ঘটনায়। অভিযানটির উদ্দেশ্য ছিল চাঁদের ভূপৃষ্ঠের ছবি তোলা ও সেখানে পরীক্ষা চালানো।

অভিযানটি সফল হলে চাঁদে অবতরণকারী চতুর্থ দেশ হিসেবে স্বীকৃতি পেত ইসরাইল। এখন পর্যন্ত চাঁদে সফল অভিযান চালাতে পেরেছে কেবল সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন, যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের সরকারি সংস্থাগুলো।

বিজ্ঞাপন

ইসরাইলি অভিযানটির প্রধান উদ্যোক্তা ও অর্থায়নকারী মরিস কাহন বলেন, আমরা সফল হইনি, কিন্তু আমরা চেষ্টা করেছি। আমি মনে করি, আমরা যেখানে যেতে পেরেছি সেটা একটা অসাধারণ অর্জন। আমার মতে, আমরা গর্বিত অনুভব করতে পারি।

চাঁদের ব্যর্থ অভিযানটি রাজধানী তেল আবিবের নিয়ন্ত্রণ অক্ষ থেকে পর্যবেক্ষণ করছিলেন ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু। তিনি বলেন, আপনি প্রথমবার সফল না হলে, আবার চেষ্টা করবেন।

প্রসঙ্গত, গত ফেব্রুয়ারিতে চাঁদের উদ্দেশ্যে রওনা দেয় ইসরাইলি মহাকাশযানটি। প্রায় সাত সপ্তাহ পর চাঁদের কাছাকাছি পৌঁছায় এটি। পুরো অভিযানটিতে খরচ হয়েছে প্রায় ১০ কোটি ডলার।

উল্লেখ্য, সাধারণত চাঁদে পৌঁছাতে কয়েকদিন লাগলেও বেরেশিটের লেগেছিল কয়েক সপ্তাহ। রকেটটি পৃথিবীর কক্ষপথ ঘিরে ধীরে ধীরে বিস্তৃত আকারে বেশ কয়েকটি ঘূর্ণনের পর ৪ এপ্রিল চাঁদের মহাকর্ষ বলে আটকা পড়ে। এই পদ্ধতি অনুসরণ করায় সাধারণত চাঁদের উদ্দেশ্যে রওনা দেওয়া মহাকাশযানগুলোর চেয়ে প্রায় ১৫ গুন বেশি দূরত্ব অতিক্রম করতে হয়েছে বেরেশিটকে।

সারাবাংলা/আরএ

চাঁদের পৃষ্ঠে বিধ্বস্ত ইসরাইলি রকেট
বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন