বৃহস্পতিবার ২৫ এপ্রিল, ২০১৯ ইং , ১২ বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৮ শাবান, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

নুসরাতকে নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্যে চাকরি হারালেন মামুন বিল্লাহ

এপ্রিল ১৩, ২০১৯ | ৯:৪৬ পূর্বাহ্ণ

রাবি করেসপন্ডেন্ট

রাবি: ফেনীর সোনাগাজীতে দগ্ধ মাদরাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করে চাকরি হারিয়েছেন মাসুম বিল্লাহ নামে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী। একই সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তাকে বহিষ্কারের দাবিও উঠেছে।

অভিযুক্ত শিক্ষার্থীর নাম মামুন বিল্লাহ। তিনি রাবির সমাজবিজ্ঞান বিভাগ থেকে ২০১৭ সালে স্নাতক শেষ করে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করছিলেন। স্নাতকোত্তরে তার রাবিতে ভর্তি হওয়ার সুযোগ রয়েছে। কিন্তু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নিহত নুসরাতকে নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করায় বিশ্ববিদ্যালয় থেকেও তার বহিষ্কারের দাবি উঠেছে।

একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল নিহত নুসরাতের বিষয়ে একটি সংবাদ প্রকাশ করে। পরে খবরটি তাদের ফেসবুক পাতায় শেয়ার দেওয়া হয়। সেখানে মামুন বিল্লাহ’র ফেসবুক আইডি থেকে আপত্তিকর মন্তব্য করা হয়।

বিজ্ঞাপন

মামুন বিল্লাহর করা মন্তব্যের স্ক্রিনশট ভাইরাল হয়ে যায়। নেটিজেনদের একটা বড় অংশ তাকে ভবিষ্যৎ ধর্ষক হিসেবে আখ্যা দেন ও সমালোচনা করেন।

রাবি প্রক্টর প্রফেসর ড. লুৎফর রহমান বলেন, নুসরাত জাহানকে নিয়ে রাবির কোনো শিক্ষার্থী যদি এমন মন্তব্য করে থাকে তাহলে ঘৃণিত, জঘন্য অপরাধ করেছে। এর তীব্র নিন্দা জানান তিনি। এ ঘটনার সত্যতা পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান প্রক্টর।

এছাড়া বিষয়টি নজরে এনে মামুনকে চাকরি থেকেও অব্যাহতি দিয়েছে তার প্রতিষ্ঠান।

এ বিষয়ে জানতে মামুন বিল্লাহর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি চাকরি হারানোর কথা স্বীকার করেন। কিন্তু আপত্তিকর মন্তব্যের বিষয়টি অস্বীকার করেন।

মামুন দাবি করেন, তার ফেসবুক আইডি থেকে মন্তব্যটি করা হলেও সেটা তিনি করেননি। কে করেছে তা তিনি জানেন না। তবে যে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে তিনি চাকরি করতেন তারা ওই মন্তব্য দেখার পর তাকে চাকরিচ্যুত করেছে।

সারাবাংলা/এসএমএন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন