সোমবার ২০ মে, ২০১৯ ইং , ৬ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৪ রমজান, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

নতুন বছরে চাই নতুন সফলতা: ঐশী

এপ্রিল ১৩, ২০১৯ | ৪:৪১ অপরাহ্ণ

এন্টারটেইনমেন্ট করেসপন্ডেন্ট

বাঙালি বলে কথা। পয়লা বৈশাখ নিয়ে বাড়তি উন্মাদনা সেই আদি কাল থেকে। কালের কানাগলি পেরিয়ে সেই উন্মাদনা এখন জাতীয় উৎসবে পরিণত হয়েছে। আর তাই বৈশাখ আগমনের সপ্তাহ খানেক আগে থেকে তোড়জোড় শুরু হয়ে যায় নানারকম প্রস্তুতি সারতে। বৈশাখের প্রতিটি ভাঁজে লুকিয়ে থাকে নষ্টালজিয়া, নতুন করে জীবন শুরুর  প্রত্যাশা।

সাধারণ মানুষের পাশাপাশি বিনোদন দুনিয়ার তারকাদের মাঝেও বৈশাখ নিয়ে বাড়তি উৎসাহ দেখা যায়। কোথায় যাবেন, কি করবেন—এসব আগে থেকেই ভেবে রাখেন। তবে সব তারকাই যে বৈশাখ নিয়ে উন্মাদনায় ভোগেন তা কিন্তু নয়।

এক্ষেত্রে জান্নাতুল ফেরদৌস ঐশীর কথাই ধরা যাক। সদ্য তারকা হয়ে ওঠা এই সুন্দরীর জীবনে পয়লা বৈশাখ কোন প্রভাব ফেলে না। তার কাছে অন্য দিনগুলোর মতোই মনে হয় এই দিনটি। এর পেছনে কিছু কারণও আছে।

বিজ্ঞাপন

ঐশী মানুষের ভিড় একদম পছন্দ করেন না। তিনি বলেন, ‘ভিড় একদম আমার পছন্দ হয় না। কোথাও বের হলে শাড়ি পরে সাজগোজ করে যেতে হয়। এতে করে গরমে আমার নিজেকে সামলাতে কষ্ট হয়। সেজন্য বৈশাখ উপলক্ষে মেলায় ঘুরতে যাওয়া হয়ে ওঠে না।’

বাইরে বের না হলেও তিনি বাসায় বসে সাজগোজ করেন। বাসায় বসে পান্তা–ইলিশ খেতে তার ভালো লাগে। ছোটবেলায় ঐশী পয়লা বৈশাখ ছোট আকারে পালন করতেন। সেটা কেবলমাত্র স্কুলের অনুষ্ঠানের মধ্যে সীমাবদ্ধ ছিল। বড় হয়ে যতোটা সম্ভব এড়িয়ে চলেন। এই এড়িয়ে চলার পেছনে অন্য একটি কারণও আছে।

‘অপ্রিয় হলেও সত্য, অনেকেরই বৈশাখ পালনের অভিজ্ঞতা খুব একটা ভালো না। ছিনতাই, বোমা হামলা এমনকি নারীদের যৌন নির্যাতনের মতো ঘটনাও ঘটেছে এই পয়লা বৈশাখের উৎসবে। যারা এসব তিক্ত অভিজ্ঞতার সম্মুখিন হয়েছেন তাদের কাছে এই দিনটি একটি বিভিষীকাময় দিন। যখন আমার এসব কথা মনে পড়ে তখন বৈশাখ পালন করতে কষ্ট হয়।’

এদিকে বৈশাখ পালন না করলেও, বাঙালির এই নিজস্ব সংস্কৃতির প্রতি তার অগাধ সম্মান রয়েছে। সেই সম্মানের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলে তিনি নতুন বছরে নতুন এক বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখেন। যে বাংলাদেশে কোনো মানুষের মাঝে বিভাজন রেখা থাকবে না। বাঙালি তার পরিচয়ে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে।

বৈশাখ নিয়ে ঐশীর বাড়ছি উন্মাদনা না থাকলেও, তাকে নিয়ে রয়েছে মানুষের উন্মাদনা। গেলো বৈশাখে ঐশী কেবল একজন বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া ছাত্রী ছিলেন। এবারের বৈশাখে তিনি ছাত্রীর পরিচয় ছাপিয়ে দেশ সেরা সুন্দরী। শুধু তাই নয়, বিশ্ব সুন্দরী প্রতিযোগিতায় দেশের নাম উজ্জ্বল করা এক তরুণী।

সেই সুন্দরের রোশনাই ছড়িয়ে তিনি অভিনয় করছেন চলচ্চিত্রে, বিজ্ঞাপনে আর মিউজিক ভিডিওতে। দেশের মঙ্গল কামনার পাশাপাশি ঐশী নিজেও চান নতুন বছরে যুক্ত হোক নিত্য নতুন সফলতা।

সারাবাংলা/আরএসও/ পিএম   

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন