বৃহস্পতিবার ২৫ এপ্রিল, ২০১৯ ইং , ১২ বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৮ শাবান, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

সুদানে ক্ষমতাচ্যুত সরকারের নেতাদের গ্রেফতার করা হচ্ছে

এপ্রিল ১৫, ২০১৯ | ১১:১৫ পূর্বাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

সফল সামরিক অভ্যুত্থানে দীর্ঘদিনের প্রেসিডেন্ট অমর আল-বশিরকে সরিয়ে দেওয়ার পর সুদানের সামরিক বাহিনী এবার গ্রেফতার করছে দেশটির সরকারের সাবেক উচ্চ-পর্যায়ের কর্মকর্তা ও নেতাদের। তাদের বিরুদ্ধে ক্ষমতা অপব্যবহারের অভিযোগ রয়েছে। তবে সেনা শাসনের প্রতিবাদে রাস্তায় বিক্ষোভ করা সাধারণ মানুষের ওপর বলপ্রয়োগ করা হবে না বলে জানিয়েছেন সেনাবাহিনী। সংবাদ সম্মেলনে রোববার (১৪ এপ্রিল) সেনা মুখপাত্র শামস- আদ-দিন এসব কথা বলেন। খবর বিবিসির।

তিন মাস টানা বিক্ষোভের পর সামরিক বাহিনীর সহায়তায় গত ১০ এপ্রিল ক্ষমতাচ্যুত করা হয় সুদানের প্রেসিডেন্ট ওমার আল-বশির। বশির প্রায় দীর্ঘ তিন দশক ধরে রাষ্ট্র ক্ষমতায় ছিলেন। কিন্তু সুদানের জনগণের বিক্ষোভ এখনো থামেনি। এখন তারা সামরিক শাসনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করছে। তবে সেনাবাহিনী জানিয়েছে আগামী দুবছর তারা রাষ্ট্র পরিচালনা করবে। এরপর করবে নির্বাচনের আয়োজন। দলগুলোকে নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিতে আহ্বান জানানো হয়েছে।

দৃষ্টি আকর্ষণ: মেসেঞ্জার-ইনবক্সে খবর জানাবে সারাবাংলা News BOT

বিজ্ঞাপন

সেনা মুখপাত্র শামস- আদ-দিন বলেন, তারা গণতান্ত্রিক সরকার গঠন করতে আন্তরিক এবং সেজন্য কাজ করে যাচ্ছেন। জনতারাই তাদের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচন করবে বলে জানান তিনি।

তবে জনতার আন্দোলন সহিংস হয়ে উঠলে বা আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করা হলে, সেনাবাহিনী ব্যবস্থা নিবে বলে জানান মুখপাত্র। স্বাভাবিক জীবনযাত্রা বজায় রাখতে আন্দোলনকারীদের আহ্বান জানান।

ক্ষমতা দখলের পর সুদানের সামরিক কাউন্সিল যেসব পদক্ষেপ নিবে বলে জানায়। তা হলো, সেনাবাহিনী, পুলিশ ও জাতীয় গোয়েন্দা এবং নিরাপত্তা সংস্থার নতুন প্রধান নিয়োগ। গণমাধ্যমের ওপর সকল নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার। বিদেশের কূটনৈতিক মিশনগুলোর কর্মকর্তাদের যাচাই এবং যুক্তরাষ্ট্র ও সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূতকে অব্যাহতি দেওয়া।

সারাবাংলা/এনএইচ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন