বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই, ২০১৯ ইং , ৩ শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৪ জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

২১ এপ্রিল ব্রুনাই যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

এপ্রিল ১৫, ২০১৯ | ৪:৩২ অপরাহ্ণ

এম এ কে জিলানী, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশ ব্রুনাইয়ের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক জোরদার করতে চায় বাংলাদেশ। বিভিন্ন বিষয়ে দ্বিপক্ষীয়  সম্পর্কের মাত্রা বাড়াতে ব্রুনাইয়ের সুলতান হাসানাল বলকিয়ার আমন্ত্রণে আগামী ২১ এপ্রিল তিন দিনের সফরে  ব্রুনাই যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রায় ১৫ বছর আগে ২০০৪ সালে সর্বশেষ প্রধানমন্ত্রী পর্যায়ে দ্বিপক্ষীয় সফর অনুষ্ঠিত হয় দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশটিতে।

প্রধানমন্ত্রীর এই সফরে দুদেশের মধ্যে ৭টি সমাঝোতা স্মারক হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সফরে বিনিয়োগ চাওয়ার পাশাপাশি রোহিঙ্গা ইস্যুতে ব্রুনাইয়ের সক্রিয় সমর্থন চাইবে বাংলাদেশ।

মেসেঞ্জার-ইনবক্সে খবর জানাবে সারাবাংলা News BOT

বিজ্ঞাপন

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা সারাবাংলাকে বলেন, অনেক বছর পর ব্রুনাইয়ে প্রধানমন্ত্রী পর্যায়ের সফর হচ্ছে। তাই এই সফরটি ঢাকার জন্য খুবই তাৎপর্যপূর্ণ। সম্পর্ক শক্তিশালী করার পাশাপাশ এই সফরের মধ্য দিয়ে ঢাকা চাচ্ছে ব্রুণাইয়ের সঙ্গে সম্পর্কের নতুন মাত্রা যোগ করতে। যাতে রোহিঙ্গা ইস্যুতে ব্রুনাইয়ের সক্রিয় সমর্থন পাওয়া যায়।

কূটনৈতিক সূত্রগুলো বলছে, জ্বালানি, যুব ও ক্রীড়া, কৃষি, ভিসা (সরকারি কর্মকর্তাদের) সহজকরা, মৎস্য ও সংস্কৃতিসহ ছয়টি বিষয়ে সমাঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হওয়ার বিষয়টি প্রায় চূড়ান্ত। এর বাইরে প্রাণিসম্পদ বিষয়েও একটি সমাঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হতে পারে।

এই সফরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ব্রুনাইয়ের সুলতান হাসানাল বলকিয়ারকে দ্বিপক্ষীয় বিষয়ে একাধিক প্রস্তাব দিবেন বলে কূটনৈতিক সূত্রগুলো জানাচ্ছে। বাংলাদেশ থেকে প্রশিক্ষিত চিকিৎসক এবং নার্স নেওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হবে। পাশাপাশি সমুদ্র অর্থনীতি উন্নয়নেও দেশটির সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক গড়ার চেষ্টা করবে ঢাকা।

অন্যদিকে, ব্রুনাই থেকে জ্বালানি খাতের গ্যাস বিষয়ে সহায়তা চাইবে ঢাকা। পাশাপাশি দুই দেশর বাণিজ্য এবং বিনিয়োগ বাড়াতেও প্রস্তাবনা থাকবে ঢাকার।

সারাবাংলা/জেআইএল/এমআই

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন