মঙ্গলবার ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং , ২ আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৭ মুহাররম, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় বাংলা বর্ষবরণ

এপ্রিল ১৬, ২০১৯ | ৯:৫০ অপরাহ্ণ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: জাতি-ধর্ম-বর্ণের ভেদাভেদ ভুলে নিজস্ব সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ধারণ করে দেশের সঙ্গে তাল মিলিয়ে প্রবাসেও বাংলা নতুন বছরকে বরণ করলেন সুইজারল্যান্ড-প্রবাসী বাংলাদেশিরা। রোববার (১৪ এপ্রিল) সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় বাংলাদেশ স্থায়ী মিশন জেনেভা ওয়ার্কাস ইউনিভার্সিটি (ইউওজি)-এর গ্র্যান্ড হলে তারা ‘বাংলা বর্ষবরণ-১৪২৬’ উদযাপন করেন।

বিজ্ঞাপন

বর্ষবরণের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থায় কর্মরত কূটনীতিক ও তাদের পরিবারের সদস্যরাসহ সুইজারল্যান্ডের বিভিন্ন শহরে বাস করা বাঙালিরা।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনের কর্মকর্তা, কর্মচারী ও তাদের পরিবারের সদস্যরাও।

বিজ্ঞাপন

বর্ষবরণের অনুষ্ঠানের সূচনা করা হয় রাষ্ট্রদূত ও স্থায়ী প্রতিনিধি এম. শামীম আহসানের বক্তব্যের মধ্য দিয়ে। এ সময় তিনি তার বক্তব্যে মঙ্গল শোভাযাত্রার ঐতিহাসিক ও সাংস্কৃতিক তাৎপর্য তুলে ধরেন।

রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘বাংলাদেশের মানুষের সাহস আর অশুভের বিরুদ্ধে গর্বিত লড়াই আর সত্য প্রতিষ্ঠার আকাঙ্ক্ষার প্রতীকী রূপ হিসেবে বিবেচনা করে ইউনেসকো ২০১৬ সালের ৩০ নভেম্বর মঙ্গল শোভাযাত্রাকে বিশ্ব সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের মর্যাদা দিয়েছে। এর মধ্য দিয়ে আমাদের সমৃদ্ধ বাঙালি সংস্কৃতি বিশ্বে নতুন করে পরিচিতি পেয়েছে। বাঙালি হিসেবে আমাদের আরও একবার গর্বিত করেছে।’

অনুষ্ঠানে প্রবাসী বাঙালিদের অংশগ্রহণে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এ সময় গান, কবিতা ও নৃত্যের মধ্য দিয়ে তুলে ধরা হয় বাংলার সংস্কৃতি।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সুইজারল্যান্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শ্যামল খান, সহ-সভাপতি অরুন বড়ুয়া, হারুন-অর-রশিদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাসুম খান দুলাল, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক গৌরীচরণ সসীম, আওয়ামী লীগ নেতা জুয়েল মল্লিক, সুইজারল্যান্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি হারুন বেপারী, উপদেষ্টা ইসরাক আহমেদ নিপুন, খলিলুর রহমান, বাংলাদেশ ক্লাবের সভাপতি আমজাদ চৌধুরী, বাংলাদেশ ক্লাবের সাবেক সভাপতি নজরুল জমাদারসহ অনেকে।

অনুষ্ঠান শেষে ইলিশসহ বিভিন্ন দেশীয় খাদ্য ও মিষ্টান্নসহ বাঙালির নানাবিধ ঐতিহ্যবাহী খাবারের মাধ্যমে অতিথিদের আপ্যায়ন করা হয়। অনুষ্ঠানের তথ্য সংগ্রহ, স্থির ও চলচ্চিত্র ধারণ করেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক নিজাম উদ্দিন।

সারাবাংলা/এসবি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন