বুধবার ১৭ জুলাই, ২০১৯ ইং , ২ শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৩ জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

চাল-ডাল-মাছ সবই পুড়ে ছাই

এপ্রিল ১৮, ২০১৯ | ৭:৩২ পূর্বাহ্ণ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

মালিবাগ বাজার বণিক সমবায় সমিতি জানায়, প্রায় ৫ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে একটি দোকান থেকে আগুনের সূত্রপাত। প্রথমদিকে স্থানীয়রা আগুন নেভাতে পানি দেওয়া শুরু করে। এর মধ্যে প্রায় আধা ঘণ্টা পর ফায়ার সার্ভিসের ১২ ইউনিট এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করে। আনুমানিক সকাল ৬টা ৩৫ মিনিটে কাঁচাবাজারের আগুন নেভানো হয়।

বিজ্ঞাপন

আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করছেন ফায়ার সার্ভিস কর্মী

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, বাজারে প্রায় ২৬০টি দোকান আছে। যার বেশিরভাগের মালামালের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। মাছ-মাংসসহ কাঁচাবাজারের সবই পুড়ে গেছে।

মালিবাগ বাজার বণিক সমবায় সমিতির কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মোহাম্মদ নুরুল হক নুরু বলেন, ২৬০ টি দোকানের মধ্যে একটি দোকানও অবশিষ্ট নেই। মাছ, মাংস, ডিম, গুরু, ছাগল, চাল, টিন সবই পুড়ে গেছে। নগদ টাকাও পুড়েছে। অন্তত ৫ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে মনে করেন তিনি।

ব্যবসায়ীদের আর্তনাদ:
রাজধানীবাসী তখন ঘুমিয়ে। সাত সকালে দোকান খুলতে এসেই ব্যবসায়ীরা দেখেছেন আগুনের দৃশ্য। স্থানীয় লোকজন, ব্যবসায়ী ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনলেও দোকানের মালামাল সব পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

মাংস ব্যবসায়ী রাসেল, সাইফুল ও রুবেল জানান, তাদের তিন দোকানে জবাই করার জন্য রাখা ৬৫ টি ছাগল ও তিনটি গরু জীবন্ত পুড়ে গেছে।

আব্দুল কাদের নামের একজন ডিমের দোকানী জানান, তার দোকানের সব ডিম পুড়ে গেছে।

অবশিষ্ট নেই কিছুই!

প্রায় ৭০ থেকে ৮০ হাজার টাকার ইলিশ মাছ ছিল মাছের ব্যবসায়ী স্বপনের। জানালেন, তার সব মাছ পুড়ে গেছে। প্রতিটি মুদি দোকানে ৫০/৬০ লাখ টাকার মালামাল ছিল। প্রায় সব দোকানই পুড়ে গেছে।

মাছের ব্যবসায়ী স্বপন বলেন, খবর পেয়ে এসে দেখি বাজারের পশ্চিম পাশের প্লাস্টিকের দোকান থেকে আগুনের ধোঁয়া বের হচ্ছে। বাজারে প্রায় আড়াইশ’ দোকান রয়েছে। ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি আসলেও পানি সংকট ছিল। খবর পাওয়ার আধা ঘণ্টা পর ফায়ার সার্ভিস এসেছে।

কাঁচাবাজার

উল্লেখ্য, এ বছর গেল মাসের ৩০ তারিখ গুলশান ১ এর ডিএনসিসির কাঁচাবাজারে এমন অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছিল। সেই ঘটনায় কাঁচাবাজারের ১৬৯টি দোকানের সবকটিই পুড়ে ছাই হয়ে গিয়েছিল। ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছিল। আগুন পাশের ৫ তলা ও পশ্চিম পাশের দু’তলা মার্কেটেও লেগেছিল। তারপর রাজধানীর বিভিন্ন জায়গায় আগুনের ঘটনা ঘটে। আজ মালিবাগ কাঁচাবাজারে এমন ঘটনা ঘটেছে।

সারাবাংলা/ইএইচটি/জেএইচ

আরও পড়ুন

মালিবাগ কাঁচাবাজারের অগুন নিয়ন্ত্রণে

Advertisement
বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন