শনিবার ২০ জুলাই, ২০১৯ ইং , ৫ শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৬ জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

অর্থায়ন নেই, আর উড়বে না ভারতের এয়ার জায়ান্ট ‘জেট এয়ারওয়েজ’

এপ্রিল ১৮, ২০১৯ | ১১:৩০ পূর্বাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

অর্থায়নের অভাবে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক সকল ফ্লাইট বাতিল ঘোষণা করেছে ভারতীয় বিমান সংস্থা জেট এয়ারওয়েজ। বুধবার এক ঘোষণায় সংস্থাটি জানিয়েছে, নতুন অর্থায়ন জোটাতে না পারায়, সাময়িকভাবে সকল বিমান পরিচালনা কার্যক্রম বন্ধ রাখতে বাধ্য হচ্ছে তারা। খবর বিবিসি ও এনডিটিভির।

জেট এয়ারওয়েজ জানিয়েছে, জ্বালানি ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ সেবার জন্য পর্যাপ্ত অর্থ না থাকায় বুধবারের পর থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য তাদের সকল বিমান চলাচল বন্ধ থাকবে।

বিমান সংস্থাটি তাদের ঘোষণায় জানিয়েছে, আপাতত তাদের হাতে বিমান চলাচল বন্ধ রাখা ছাড়া উপায় নেই। তবে তারা শিগগিরই ফের কার্যক্রম চালুর প্রত্যাশা করছে।

উল্লেখ্য, বাজারে জেট এয়ারওয়েজ’র মোট ১২০ কোটি ডলারের বেশি ঋণ রয়েছে। বিগত কয়েক সপ্তাহ ধরেই পাওনাদারদের সঙ্গে আলোচনা করেছে তারা।

বিজ্ঞাপন

জেট এয়ারওয়েজের মোট বিমানের সংখ্যা ১২৩টি। এটি ভারতের সবচেয়ে বড় বেসরকারি বিমান সংস্থা। কিন্তু সম্প্রতি স্থানীয় গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়েছে যে, অর্থায়নের অভাবে সংস্থাটির মাত্র পাঁচটি বিমান সক্রিয় ছিল। গত মাসে বিমানসংস্থাটির প্রতিষ্ঠাতা নরেশ গয়াল এর চেয়ারম্যান হিসেবে পদত্যাগ করেন। তিনি প্রতিষ্ঠার পর থেকে বিগত ২৫ বছর ধরে ওই পদে দায়িত্ব পালন করেন।

এদিকে, এয়ার জায়ান্টটিকে সাহায্য করতে সরকারি ব্যাংকগুলোকে এগিয়ে আসতে আহ্বান জানিয়েছে ভারত সরকার।

এক বিবৃতিতে জেট এয়ারওয়েজ জানিয়েছে, বুধবার ভারতীয় ঋণদাতাদের পক্ষ থেকে স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া (এসবিআই) তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। বলেছে, এই মুহূর্তে তাদের পক্ষে জেট এয়ারওয়েজকে ঋণ দেওয়া সম্ভব নয়।

এমতাবস্থায় কোনো জরুরি অর্থায়ন না মেলায় বিমান চলাচল কার্যক্রম অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত রাখতে বাধ্য হয়েছে এয়ার জায়ান্টটি।

এদিকে, জেট এয়ারওয়েজ’র মোট কর্মচারীর সংখ্যা ২৩ হাজারের বেশি। বিমান চলাচল বন্ধ হওয়ায় তাদের জন্য কী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে সে বিষয়ে কিছু জানায়নি এয়ারওয়েজ কর্তৃপক্ষ।

সারাবাংলা/আরএ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন