সোমবার ২০ মে, ২০১৯ ইং , ৬ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৪ রমজান, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

জল ছিটিয়ে নতুন বছরকে বরণ

এপ্রিল ১৮, ২০১৯ | ১:০৭ অপরাহ্ণ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

কক্সবাজার: পুরোনো বছরের সকল দুঃখ-গ্লানি ভুলে নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে কক্সবাজারে পলিত হচ্ছে রাখাইন জনকেলি উৎসব।

তিনদিনের বর্ণিল এই উৎসবে আনন্দে মেতে উঠেছেন সব ধর্ম-বর্ণের মানুষ। ঐতিহ্যবাহী এই রাখাইন উৎসব এখন জেলার রাখাইন-বাঙালির মিলনমেলায় পরিণত হয়েছে।

বাংলা বছরের হিসেবে শুরু হয়েছে ১৪২৬, অন্যদিকে রাখাইন দিনপঞ্জি অনুযায়ী শুরু হয়েছে ১৩৮১। নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে বুধবার (১৭ এপ্রিল) থেকে শুরু হয়েছে ‘মাহা সাং গ্রেং পোওয়ে’ বা জলকেলি উৎসব।

বিজ্ঞাপন

কক্সবাজার শহরের রাখাইন পাড়া, টেকপাড়া, হাঙ্গর পাড়া, বার্মিজ স্কুল এলাকা, আরডিএফ প্রাঙ্গন, ক্যাং পাড়া ও বৈদ্যঘোনার থংরো পাড়াসহ রাখাইন নৃগোষ্ঠীর মানুষ বাস করেন এমন সব এলাকায় চলছে উৎসব।

রাখাইন তরুন-তরুনিরা নতুন পোশাক পরে সেজেগুজে রাস্তার মোড়ে মোড়ে তৈরি উৎসবের প্যান্ডেলে গিয়ে একে অন্যকে পানি ছুঁড়ে আনন্দ করছেন। চলছে গানের সাথে নাচও।

বাজনার তালে তালে দলবেঁধে রাখাইন তরুণ-তরুনিরা একে অন্যকে ভিজিয়ে দেন পানি দিয়ে। এর মাধ্যমে পুরোনো বছরের হতাশা দূর করে নতুন আলোর পথে চলার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তারা।

কথা হয় শহরের বৌদ্ধ মন্দির সড়কের মং ছেন রাখাইনের সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘আমরা একে অন্যের গায়ে পানি ছিটানোর মধ্য দিয়ে পুরনো দিনের সকল ব্যাথা, বেদনা, হিংসা ভুলে এগিয়ে যাওয়ার স্বপ্ন দেখি। এটি আমাদের কাছে খুবই পবিত্র এবং আনন্দের।’

মংকাসিং নামের আরেকজন বলেন, এই উৎসবে সব ধর্মের মানুষ অংশ নেন। ফলে সবার মধ্যে একটি সুন্দর সম্পর্ক তৈরি হয়।

জলকেলি উৎসবে সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়ে সম্প্রীতি’র মাধ্যমে নির্ভয়ে উৎসব পালনের আশা ব্যক্ত করেন রাখাইন ডেভলপমেন্ট ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা ও সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যাপক এথিন রাখাইন। তিনি বলেন, ‘আনন্দের সাথে সবাই সম্প্রীতির মাধ্যমে নির্ভয়ে এই উৎসব পালন করবেন। আমাদের সাথে রয়েছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।’

এই উৎসবে নিরাপত্তার বিষয়ে কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. ইকবাল হোসেন বলেন, জলকেলি উৎসব উপলক্ষে প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। পুলিশের পাশাপাশি সাদা পোশাকেও দায়িত্ব পালন করছেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীর সদস্যরা। আছে র‌্যাবও।

সারাবাংলা/এসএমএন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন