শনিবার ২০ জুলাই, ২০১৯ ইং , ৫ শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৬ জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

র‌্যাবের বর্ণাঢ্য বৈশাখী আয়োজন

এপ্রিল ২০, ২০১৯ | ৬:০৪ অপরাহ্ণ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বৈশাখ উপলক্ষে বর্ণাঢ্য আয়োজন করেছে র‌্যাব সদর দফতর। অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, র‌্যাবের মহাপরিচালক, পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, সাংবাদিকসহ তাদের পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। আয়োজনে গ্রামীণ বাংলার আবহমান চিত্র চমৎকারভাবে ফুটিয়ে তোলা হয়।

শনিবার (২০ এপ্রিল) দুপুরে শুরু হয়ে অনুষ্ঠান চলে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। আয়োজনে জমজমাট ও মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও ছিল।

আয়োজন ঘুরে দেখা যায়, র‌্যাবের প্রত্যেকটি ব্যাটালিয়ন আলাদাভাবে স্টল সাজিয়েছে। আয়োজনও করেছে আলাদাভাবে। র‌্যাব-১, র‌্যাব-৩ আর র‌্যাব-৪ এর পক্ষ থেকে অভ্যর্থনা, অতিথি আপ্যায়ন, মিষ্টি দেওয়া আর স্পেশাল পান বিতরণ করা হয়। র‌্যাব-১১ এর পক্ষ থেকে বিশাল বড় স্টলে ছিল মুড়ি, খই, মোয়া, জিলাপি, বাতাসা, তিলের খাজা, নাড়ু আর কদমা।

বিজ্ঞাপন

র‌্যাব-১০ এর পক্ষ থেকে দুপুরে তৃষ্ণা মেটানোর জন্য ছিল আখের রস। এছাড়া আরেকটি স্টলে ছিল লাচ্ছি, ফালুদা, গুড় আর রুটি। যার যে পরিমাণ দরকার তিনি ততটুকুই নিতে পারছেন।

র‌্যাব-২ এর পক্ষ থেকে গ্রামীণ আবহের একটি স্টল সাজানো হয়েছে। র‌্যাব-১২ এর স্টল সাজানো হয়েছে সিরাজগঞ্জের তাঁত শিল্প দিয়ে। সেখানে তাঁতের পোশাকসহ নানা প্রকার উপাদান স্থান পেয়েছে। বৈশাখের আয়োজনে বেড়াতে এসে অনেকে এই স্টল থেকে কেনাকাটাও সেড়ে নিয়েছেন। কেউ গামছা, কেউ লুঙ্গি, কেউ শাড়ি আবার কেউ নানান রংয়ের ফতুয়া কিনেছেন।

র‌্যাব-১৪ এর স্টলে ছিল পাহাড়ি আসবাবপত্র, উপজাতীয় হস্তশিল্প, মনিপুরি ও বার্মিজ পণ্যের সমাহার। অল্প দামে অনেকে মেয়েদের পার্টস, শাড়ি, ফতুয়া, সালোয়ার, কামিজ, শার্টসহ নানা পণ্য কিনেছেন দর্শনার্থীরা। র‌্যাব-৫ এর পক্ষ থেকে আয়োজন করা হয় বাঁদর ও পুতুল নাচের। র‌্যাব-১৩ এর স্টল ছিল রংপুরের ঐতিহ্যবাহী শতরঞ্জি।

অন্যদিকে, লেফটেন্যান্ট কর্নেল শহীদ আবুল কালাম আজাদ মিলনায়তনে জমজমাট সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান দর্শনার্থীদের মাতিয়ে রেখেছিল। দেশের নামকরা শিল্পীরা গান ও নাচ পরিবেশন করেন সেখানে।

সব শেষে র‌্যাবের মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজীর আহমেদ বলেন, ‘পহেলা বৈশাখে মানুষকে নিরাপত্তা দিতে হয়। প্রায় এক মাস আগে থেকেই সারাদেশে র‌্যাবের সব ব্যাটালিয়নকে নিরাপত্তা রক্ষায় কাজ করতে হয়। এ কারণে পহেলা বৈশাখে আমাদের বৈশাখ পালন করা হয়ে ওঠে না। তাই র‌্যাবের পক্ষ থেকে কয়েকদিন পরে হলেও বৈশাখী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এবারেও এর ব্যতিক্রম নয়।’

সারাবাংলা/ইউজে/এমও

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন