শনিবার ২০ জুলাই, ২০১৯ ইং , ৫ শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৬ জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

রাতে আটক, সকালে মৃত্যু

এপ্রিল ২০, ২০১৯ | ৭:১৬ অপরাহ্ণ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

নওগাঁ: নওগাঁর মান্দা উপজেলায় পুলিশের হেফাজতে চিকিৎসাধীন এক যুবক মারা গেছেন। শনিবার (২০ এপ্রিল) সকালে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে ওই যুবকের মৃত্যু হয়।

বাবুল হোসেন বাবু মোল্লা (৩০) নামে ওই যুবক শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) রাত থেকে পুলিশের হেফাজতে ছিলেন। বাবুর বাড়ি উপজেলার ভারশো ইউনিয়নের চেরাগপুর গ্রামে। তার বাবার নাম মোজাম্মেল হক।

পুলিশের দাবি, এক নারী আসামির বাড়ি থেকে ওই যুবককে আটক করা হয়। থানায় নেওয়ার পথে অসুস্থ হয়ে পড়লে ওই যুবককে হাসপাতালে ভর্তি করে পুলিশ।

মান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাফফর হোসেন জানান, নারী নির্যাতনের মামলায় পরোয়ানভুক্ত এক নারী আসামিকে ধরতে শুক্রবার রাতে উপজেলার বানিসর গ্রামে অভিযানে যায় পুলিশ। এ সময় ওই নারী আসামির শোবার ঘর থেকে বাবু মোল্লাকে আটক করা হয়। পরে পুলিশ ওই নারী আসামি ও বাবু মোল্লাকে আটক করে।

বিজ্ঞাপন

ওসি জানিয়েছেন, আটকের পর থানায় নেওয়ার পথে বাবু অসুস্থ বোধ করেন। সেখান থেকে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

মান্দা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক বিজয় কুমার জানান, বাবুকে ভোরে হাসপাতালে আনে পুলিশ।

বাবুর তথ্যের বরাত দিয়ে চিকিৎসক বিজয় কুমার আরও জানান, রাতে বাবু যৌন উত্তেজক দুটি ট্যাবলেট খেয়েছিলেন। তার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী চিকিৎসা শুরু হয়। এর কিছুক্ষণ পর বাবুর মৃত্যু হয়।

ওসি মোজাফফর হোসেন জানান, বাবুর মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

এদিকে, শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ওই যুবকের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে। সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করেন উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট (ইউএনও) খন্দকার মুশফিকুর রহমান। এ সময় বাবুর মা-বাবা, অন্যান্য স্বজন, মহাদেবপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু সালেহ মোহাম্মদ আশরাফুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

সারাবাংলা/এটি/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন