শনিবার ২০ জুলাই, ২০১৯ ইং , ৫ শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৬ জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

চাকরির আশ্বাস, ৫ কোটি টাকার চেকসহ ৫ প্রতারক গ্রেফতার

এপ্রিল ২১, ২০১৯ | ১:২০ পূর্বাহ্ণ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: রাজধানীর মোহাম্মদপুর এলাকা থেকে একটি প্রতারক চক্রের ৫ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-২। এ সময় তাদের কাছ থেকে চাকরি প্রত্যাশীদের দেয়া ৫ কোটি টাকার চেক জব্দ করা হয়েছে। গ্রেফতার হওয়া ৫ জন ওই এলাকায় সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীতে চাকরি দেয়ার আশ্বাস দিয়ে ৪/৫ বছর ধরে চাকরি প্রত্যাশীদের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিল।

শনিবার (২০ এপ্রিল) সন্ধ্যায় ৫ প্রতারক চক্রকে গ্রেফতার করা হয় বলে সারাবাংলাকে নিশ্চিত করেছেন র‌্যাব-২ এর এএসপি (মিডিয়া) সাইফুল মালিক। চাকরি প্রত্যাশীদের সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানান তিনি।

গ্রেফতার হওয়া ৫ জন হলেন- নজরুল ইসলাম মানিক (৫৩), মোঃ ফারুক হাসান (৩৮), মোঃ আবুল কাশেম (৬০), মোঃ সাইফুল ইসলাম (২৫) এবং মাসুদ রানা (৩২)।

এএসপি সাইফুল বলেন, মোহাম্মদপুর এলাকায় সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীতে চাকুরীর আশ্বাস ও ভুয়া নিয়োগপত্র দিয়ে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে প্রতারক চক্রের ৫ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় ৫ কোটি টাকার ৮৬ টি চেক, ৬২টি নন-জুডিসিয়াল ষ্ট্যাম্প ও ভুয়া নিয়োগপত্র উদ্ধার করা হয়।

বিজ্ঞাপন

গ্রেফতার হওয়াদের বরাত দিয়ে এএসপি বলেন, তারা ৪/৫ বছর ধরে সামরিক বাহিনীতে চাকরি প্রত্যাশীদের সাথে সেনা, নৌ বা বিমান বাহিনীর কর্মকর্তা-কর্মচারীর পরিচয়ে প্রতারণা করেছে। চাকরির আশ্বাস দিয়ে ও ভুয়া নিয়োগপত্র দেখিয়ে জামানত হিসেবে মোটা অংকের ব্যাংক চেক স্বাক্ষরিত ষ্ট্যাম্প ও নগদ টাকা নিয়েছে চাকরি প্রত্যাশীদের কাছ থেকে। ৫ প্রতারকের মধ্যে নজরুল মানিক সেনাবাহিনীর এবং মাসুদ রানা নৌ বাহিনীর চাকরিচ্যুত সদস্য। তারা নিজেদের সামরিক বাহিনীর অফিসার হিসাবে পরিচয় দিয়ে সাইদুর, ফারুক ও কাশেমসহ ৯/১০ জনের একটি দালাল চক্রের মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে চাকরি প্রার্থীদের সংগ্রহ করে আসামী ফারুক এর বাসায় এনে প্রতারণার মাধ্যমে নগদ টাকা, ব্যাংক চেক এবং ষ্ট্যাম্প (অলিখিত/লিখিত) হাতিয়ে নেয়। এভাবে প্রায় ৫০০ চাকরি প্রত্যাশীদের কাছ থেকে তারা হাতিয়ে নিয়েছে ২০ থেকে ২৫ কোটি টাকা।

জিজ্ঞাসাবাদে তাদের কাছ থেকে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান অব্যাহত থাকবে এবং গ্রেফতার হওয়া ৫ জনের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলে জানিয়েছেন এ র‌্যাব কর্মকর্তা।

সারাবাংলা/এসএইচ/জেএএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন