বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট, ২০১৯ ইং , ৭ ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২০ জিলহজ, ১৪৪০ হিজরি

বিজ্ঞাপন

শিষ্যদের ইনজুরি ভাবনায় গুরু ওয়ালশ

এপ্রিল ২২, ২০১৯ | ৪:৩১ অপরাহ্ণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

বিশ্বযুদ্ধে নামার আগে প্রথম সারির তিন সৈনিকই আহত। মোস্তাফিজুর রহমানের গোঁড়ালিতে চোট, রুবেল হোসেন সাইডস্ট্রেনের চোটে ভুগছেন। আর মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন কনুইয়ের চোট বয়ে বেড়াচ্ছেন। যদিও ৫ মে থেকে অনুষ্ঠে ত্রিদেশীয় সিরিজের আগে তারা সেরে উঠবেন। কিন্তু বিশ্বকাপ প্রহরে ফ্রন্ট লাইনের এই তিন পেসারের ইনজুরি টাইগার পেস বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশকে বেশ ভাবাচ্ছে।

সোমবার (২২ এপ্রিল) মিরপুর শের-ই-বাংলায় শুরু হয়েছে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ প্রস্তুতি। দিনের অনুশীলন শেষে সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে সেই ভাবনার কথাই জানালেন এই ক্যারিবীয় কিংবদন্তি, ‘দলের কয়েকজনের ইনজুরি নিয়ে দুশ্চিন্তা আছে। যারা প্রিমিয়ার লিগ না খেলায় এতদিন ব্যাটিং করতে পারেনি তারা আজ নেটে বড় শটস খেলেছে। এটা দারুণ শুরু, কিন্তু আমার মূল ভাবনার জায়গা হলো চোটাক্রান্ত পেস বোলাররা। ওদের দ্রুতই ম্যাচ খেলার উপযোগি করে তুলতে হবে।’

‘পাঁচ পেসাররের মধ্যে তিনজনেরই ইনজুরি। মোস্তাফিজ, রুবেল ও সাইফউদ্দিন। আমোদের প্রথম কাজ হবে ওদের বোলিংয়ে ফিরিয়ে আনা। যাতে করে প্রথমে ওরা আয়ারল্যান্ড ও পরে বিশ্বকাপের জন্য প্রস্তুত হতে পারে।’ যোগ করেন ওয়ালশ।

বিশ্বকাপে মোস্তাফিজই হয়ে উঠতে পারে তুরুপের তাস, উল্লেখ করে তাকে বুঝে-শুনে খেলানোর পরামর্শ দিলেন গুরু ওয়ালশ, ‘বিশ্বকাপে মোস্তাফিজের অনেক বড় ভূমিকা থাকবে, যদি সে ফিট থাকে। তবে আমি মনে করি না আমাদের দল একজনের ওপর নির্ভরশীল। মাশরাফি, সাকিব এবং রুবেল বেশ ধারাবাহিক। তবে এটাও ঠিক ইনজুরির পর থেকে মোস্তাফিজকে ততটা ধরালো মনে হচ্ছে না। নিঃসন্দেহে সে একজন ম্যাচ উইনার। কিন্তু সেজন্য তাকে আমাদের ফিট রাখতে হবে।’

বিজ্ঞাপন

সেজন্য তাড়াহুড়োর পক্ষপাতি নন ওয়ালশ। প্রয়োজনে ত্রিদেশীয় সিরিজে মোস্তাফিজকে সব ম্যাচ না খেলানোর পরামর্শও দিয়ে রাখলেন, ‘আমার মনে হয় ওর পূর্ণ ফিটনেস নিয়ে তড়িঘড়ি করা ঠিক হবে না এবং আয়ারল্যান্ডে অতিমাত্রায় ব্যবহার করাও সমীচিন হবে না। যাতে করে সে ফ্রেশ মানসিকতা নিয়ে বিশ্বকাপ খেলতে পারে।’

এ সময় প্রসঙ্গক্রমে উঠে এলো বিশ্বকাপ দলে ডাক পাওয়া তরুণ পেস বোলিং অলরাউন্ডার সাইফউদ্দিনের কথাও। শুরুতেই তাকে নিয়ে ওয়ালশ বলে উঠলেন, ‘ভালো খেলে বলেই সে দলে ডাক পেয়েছে। বোলিংও করেছে বেশ ভালো। নিঃসন্দেহে সে রোমাঞ্চকর এক অলরাউন্ডার। ঘরোয়া ক্রিকেটে ওর ফর্ম অসাধারণ।’

সারাবাংলা/এমআরএফ/এমআরপি

** শেষ বিশ্বকাপটা দেশের জন্য জিততে চান শোয়েব মালিক

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন