বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই, ২০১৯ ইং , ৩ শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৪ জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

‘অহেতুক চাপ সাংবাদিকদের দায়িত্ব পালন বাধাগ্রস্ত করছে’

মে ২, ২০১৯ | ২:২১ অপরাহ্ণ

সারাবাংলা ডেস্ক

বিশ্বজুড়ে গণমাধ্যমকর্মীরা সত্য প্রকাশে বাধাগ্রস্ত হচ্ছেন, গণমাধ্যমের উপর অহেতুক চাপ সাংবাদিকদের পেশাগত দায়িত্ব পালনে বিঘ্ন সৃষ্টি করছে। বুধবার ব্রিটিশ পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ হাউজ অব লর্ডসে আয়োজিত এক বৈঠকে এমন মন্তব্য করে লর্ড সভার সদস্য লর্ড ইমস। এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে একথা জানায় ইনডিপেনডেন্ট মিডিয়া ক্লাব (আইএমসি)।

বৈঠকে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ও পেশাগত দায়িত্বসহ নানা বিষয় আলোচনা করা হয়।

বৈঠকে বাংলাদেশের গণমাধ্যম নিয়ে আলোচকরা বলেন, বাংলাদেশের ক্ষেত্রে গণমাধ্যমের উপর চাপটি স্বপ্রণোদিত। চাকরি হারানোর ভয় ও মালিকদের রাজনৈতিক পরিচয়ের কারণে নিয়োগ প্রক্রিয়ায় পেশাদার সাংবাদিকদের কাজের সুযোগ কমছে।

এছাড়া, দুর্নীতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের হাতে গণমাধ্যমের মালিকানা সাংবাদিকদের মধ্যে অহেতুক চাপের অন্যতম কারণ বলে মনে করেন আলোচকরা।

বিজ্ঞাপন

আরও পড়ুন- হাউস অব লর্ডসে আইএমসি’র বিশ্ব গণমাধ্যম স্বাধীনতা দিবসের আলোচনা

প্রসঙ্গত, চলতি বছর বিশ্বজুড়ে ১লা মে থেকে ৩ মে বিশ্ব গণমাধ্যম স্বাধীনতা দিবস পালিত হচ্ছে। তারই অংশ হিসেবে যুক্তরাজ্য-ভিত্তিক গণমাধ্যম কর্মীদের সংগঠন ইনডিপেনডেন্ট মিডিয়া ক্লাব (আইএমসি) এই আলোচনার আয়োজন করে।

বৈঠকটির সঞ্চালনা করেন বিবিসির বাংলা বিভাগের সিনিয়র প্রডিউসার ও আইএমসি’র প্রেসিডেন্ট মাসুদ হাসান খান।

এতে প্যানেল আলোচনায় অংশ নেন, লর্ড আহমেদ অব উইম্বলডন, চ্যানেল ফোরের প্রডিউসার বেকি হর্সব্রা, বিবিসি নিউজের মাহফুজ সাদিক, টিআরটি ওয়ার্ল্ডের শামীম চৌধুরী, বিবিসি বাংলার সম্পাদক সাবির মুস্তাফা, চ্যানেল এস টেলিভিশনের কারেন্ট এফেয়ার্স এডিটর ও ওয়ার্ল্ড প্রেস ফ্রিডম ডে গোল টেবিল বৈঠকের সমন্বয়কারী তানভীর আহমেদ, চ্যানেল আই’র সাংবাদিক মশরুর শাকিল, সাংবাদিক বুলবুল হাসান, সাপ্তাহিক জনমতের প্রধান সম্পাদক সৈয়দ নাহাস পাশা, লর্ড ইমসের রাজনৈতিক পরামর্শক রহিমা মিয়া, চলচ্চিত্র পরিচালক জোবায়ের বাবু, ইউকে বিসিসিআই’র প্রেসিডেন্ট বজলুর রশীদ এমবিই, বিসিএর সাবেক প্রেসিডেন্ট পাশা খন্দোকার এমবিই, অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টুডেন্ট ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট আনিসা ফারুক, অক্সফোর্ড অক্সফোর্ড রাইটার্স হাউজের প্রতিষ্ঠাতা ডক্টর এপ্রিল, সাবেক মিস আয়ারল্যান্ড মাকসুদা আক্তার প্রিয়তি ও অন্যান্যরা।

স্বাধীন গণমাধ্যম গণতন্ত্রের প্রতীক

আলোচনায় বক্তারা বলেন, স্বাধীন গণমাধ্যম গণতন্ত্রের প্রতীক। কিন্তু বিশ্বজুড়ে গণমাধ্যমের মালিকানা রাজনীতিবিদ ও ব্যবসায়ীদের কালো টাকায় গড়ে উঠার কারণে ট্র্যাডিশনাল মিডিয়া গণতন্ত্র চর্চায় কতটুকু ভূমিকা রাখতে পারছে সেটি নিয়ে প্রশ্ন উত্থাপিত হচ্ছে। গোল টেবিল বৈঠকে বক্তারা সম্প্রতি বাংলাদেশ গণমাধ্যমের স্বাধীনতা সূচকের চার ধাপ নেমে আসার কারণ নিয়েও আলোচনা করেন।

আলোচনা শেষে যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি, ভারত, পাকিস্তান ও শ্রীলংকা সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের গণমাধ্যম কর্মী, শিক্ষক, গবেষক, উন্নয়নকর্মী ও আইনজীবীরা প্রশ্নোত্তর পর্বে অংশ নেন।

সারাবাংলা/আরএ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন