শনিবার ২০ জুলাই, ২০১৯ ইং , ৫ শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৬ জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশি-আমেরিকান মেরি জোবাইদা লড়ছেন নিউইয়র্ক অ্যাসেম্বলিতে

মে ৪, ২০১৯ | ২:৩২ অপরাহ্ণ

পরবাস রিপোর্ট

নিউইয়র্কে বাংলাদেশি কমিউনিটিতে জনপ্রিয় মুখ বাংলাদেশি আমেরিকান মেরি জোবাইদা অঙ্গরাজ্য সরকারের অ্যাসেম্বলি-ওম্যান পদে নির্বাচনি লড়াইয়ে নেমেছেন। এই প্রার্থীতার মধ্য দিয়ে তিনি চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছেন নিউইয়র্কের পশ্চিম কুইন্স থেকে দীর্ঘদিনের প্রতিনিধিত্বকারী ক্যাথরিন নোলানকে।

২০২০ সালে অনুষ্ঠেয় ওই নির্বাচনে বিজয়ী হলে মেরি জোবাইদা যাবেন নিউইয়র্কের রাজধানী আলবেনি’র প্রতিনিধি সভায়। প্রতিনিধিত্ব করবেন নিউইয়র্ক’র ডিস্ট্রিক্ট-৩৭ এর। নিউইয়র্কের কমিউনিটিভিত্তিক সংবাদমাধ্যম কিউএনএস এ খবর দিয়ে জানিয়েছে।

গত ৩৫ বছর ধরে এখানকার সদস্য নির্বাচিত হয়ে আসছেন ক্যাথরিন নোলান। এমনকি গত এক দশকে কেউ প্রাথমিক নির্বাচনে চ্যালেঞ্জটুকুও জানায়নি। দশ বছরে এবারই প্রথম ক্যাথরিন নোলান প্রাথমিকে চ্যালেঞ্জের মুখে পড়লেন। তিন সন্তানের মা মেরি জোবাইদাকে উদ্ধৃত করে সংবাদমাধ্যমটি বলেছে নিজের ডিস্ট্রিক্টে একটি সত্যিকারের গণতান্ত্রিক নির্বাচন দেখতে চান তিনি।

নিজের প্রার্থীতার বিষয়টি সারাবাংলাকে নিশ্চিত করে মেরি জোবাইদা বলেন, ‘এ দেশ আমাকে এত বেশি দিয়েছে যে আমার মন থেকে আমি এদেশের মানুষের জন্য কিছু করতে চেয়েছিলাম। ভোট দিতে যেয়ে গণতন্ত্রের অনুপস্থিতি দেখে আমার মনে হলো এখান থেকেই শুরু হতে পারে।’

বিজ্ঞাপন

নিউিইয়র্কের কোর্ট স্কয়ারের গত দুই দশক ধরে বাস করছেন মেরি জোবাইদা। সেখানকার বাংলাদেশি কমিউনিটিতে তিনি অত্যন্ত জনপ্রিয় মুখ। নিউইয়র্ক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মিডিয়া, কালচার অ্যান্ড কমিউনিকেশনস-এ স্নাতক ডিগ্রি নিয়ে সাংবাদিকতার পাশাপাশি সেবামূলক বিভিন্ন কাজে নিজেকে সম্পৃক্ত রেখে আসছেন মেরি জোবাইদা। কমিউনিটির পাশাপাশি মূল ধারায়ও তার কাজের পরিধি বাড়িয়েছেন। বর্তমানে তিনি নিউইয়র্কের ব্রঙ্কসে আরবান হেলথ প্ল্যান’র আউটরিচ স্পেশালিস্ট হিসেবে কর্মরত। এর আগে প্যানোরামা বাংলাদেশ’র ক্যারিয়ার অ্যাডভাইজর, নিউইয়র্কে বাংলাভাষার টেলিভিশন চ্যানেল টাইম টিভি’র প্রোগ্রাম ম্যানেজার ও সাপ্তাহিক বাংলা পত্রিকার ফিচার রাইটার হিসেবে কাজ করেছেন। ছাত্র জীবন থেকেই সাংগঠনিক সক্ষমতা অর্জন করেছেন মেরি জোবাইদা। লাগর্ডিয়া কমিউনিটি কলেজ (কিউনি)’র স্টুডেন্ট গভর্নমেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের ভিপি ও এপিআই লিডার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। এছাড়াও নিউ ইউয়র্ক সিটি ইউনিভার্সিটির কমিটি ফর চাইল্ড কেয়ার’র সেনেটর/চেয়ার ছিলেন মেরি জোবাইদা। নিউইয়র্কের উদ্দেশ্যে বাংলাদেশ ছাড়ার আগে লালমাটিয়া মহিলা কলেজ ও ঢাকা সিটি কলেজের শিক্ষার্থী ছিলেন মেরি জোবাইদা। তিনি বাংলাদেশের পটুয়াখালী জেলার সন্তান।

নিজেকে প্রগতিশীল ডেমোক্র্যাট হিসেবে উল্লেখ করে মেরি জোবাইদা বলেন, আমি মানুষের শক্তি আবারো মানুষের কাছে ফেরত দিতে চাই।

সারাবাংলা/এমএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন