বিজ্ঞাপন

সংবাদ সম্মেলনে জিএম কাদের একা, দোয়া চাইলেন সাংবাদিকদের

May 5, 2019 | 12:31 pm

ঢাকা: দায়িত্ব পাওয়ার পরদিনই ফের গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়েছেন জাতীয় পার্টির (জাপা) ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জি এম কাদের। এসময় তিনি গণমাধ্যমের সমর্থন, উপদেশ ও দোয়া চেয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ শারীরিকভাবে অসুস্থ হওয়ায় আমাকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করার নির্দেশ দিয়েছেন। আমি আপনাদের দোয়া ও উপদেশ চাই।

রোববার (৫ মে) দুপুর ১২টার দিকে বনানীতে জাপা চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে সাাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন জি এম কাদের। তবে এসময় দলের অন্য কোনো নেতাকর্মীকে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থাকতে দেখা যায়নি।

বিজ্ঞাপন

এর আগে শনিবার (৪ মে) রাত সাড়ে ১১টার দিকে বারিধারা’র দূতাবাস রোডে নিজ বাসভবন ‘প্রেসিডেন্ট পার্ক’-এ আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে জাপা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ তার ভাই জিএম কাদেরকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হিসেবে ঘোষণা দেন।

শনিবার রাতে আচমকা ওই সংবাদ সম্মেলন আহ্বানের কারণ জানতে চাইলে জিএম কাদের রোববার বলেন, ‘দায়িত্ব বুঝিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি ভবিষ্যতে কোনো সময় উনার (এরশাদ) অবর্তমানে পার্টিতে চেয়ারম্যানের দায়িত্ব যেন আমি পালন করতে পারি, তা বলাও ছিল একটি কারণ।’

বিজ্ঞাপন

আরও পড়ুন- জাপার ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জিএম কাদের: এরশাদ

ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ঘোষণার সিদ্ধান্ত এরশাদ এককভাবে নিয়েছেন কি না— এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে জিএম কাদের বলেন, ‘চেয়ারম্যানের একক সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রচলিত রাজনীতির রীতিতে অসামাঞ্জস্যপূর্ণ নয়। এর জন্য কেউ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে মনে করি না।’ বিষয়টি নিয়ে যারা প্রশ্ন তুলছেন, তারা স্রেফ প্রশ্ন তোলার জন্যই তুলছেন বলেও তিনি মনে মন্তব্য করেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

নিয়ম অনুযায়ীই তাকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বলেও জানান জিএম কাদের। তিনি বলেন, এজন্য পত্রে সাক্ষরসহ গণমাধ্যমের সামনেই ঘোষণা দিয়েছেন দলের চেয়ারম্যান।

রোববারের সংবাদ সম্মেলনে জিএম কাদেরের সঙ্গে দলের শীর্ষ নেতারা কেন নেই— জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটা এমন কোনো অফিস না যে সবাইকে আসতে হবে। এখানে চেয়াম্যানের চেম্বার আছে। তাই তিনি আসবেন, এটাই স্বাভাবিক। মিটিং বা সভা থাকলে অন্যরাও আসতেন।

বিজ্ঞাপন

এর আগে, রাতে এরশাদের সংবাদ সম্মেলনের পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় জিএম কাদের সাংবাদিকদের বলেন, ‘ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হিসেবে তিনি (এরশাদ) আমাকে রুটিন কাজ করতে বলেছেন। চেয়ারম্যান হিসেবে উনিই আছেন।’

সারাবাংলা/এসএমএন/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন