বিজ্ঞাপন

সাধ্যের নাগালে রকল্যান্ড ফ্ল্যাটস, অগ্রাধিকার পাবেন সাংবাদিকরা

May 5, 2019 | 10:54 pm

সারাবাংলা ডেস্ক

ঢাকা: মধ্যবিত্তের আবাসন সমস্যা সমাধানে রকসিটি প্রকল্পে সাশ্রয় মূল্যে প্লট বিক্রির পাশাপাশি সাধ ও সাধ্যের নাগালে ফ্ল্যাট নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। রকল্যান্ডের প্লট প্রকল্পের সঙ্গে সংবাদকর্মীদের সংশ্লিষ্টতা থাকায় প্রকল্পটিতে বিশেষ অগ্রাধিকার পাবেন তারা। এ উপলক্ষে রোববার ( ৫ মে) সকাল সাড়ে ১১টায় সাভারের বিরুলিয়ায় প্রকল্পের উদ্বোধন ও সাংবাদিক সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

বিজ্ঞাপন

কেক কেটে প্রকল্পের উদ্বোধন করেন দৈনিক সমকালের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক, লেখক ও কবি মুস্তাফিজ শফি। বিশেষ অতিথি ছিলেন কবি, প্রাবন্ধিক ও সিনিয়র সাংবাদিক আবদুল হাই শিকদার, এটিএন বাংলার কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স এডিটর ও বিশেষ প্রতিনিধি কেরামত উল্লাহ বিপ্লব এবং দৈনিক আমাদের সময় এর ডেপুটি এডিটর দীপঙ্কর লাহিড়ী। এ ছাড়াও সাংবাদিক সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা।

প্রকল্পের প্রতিটি এক হাজার বর্গফুট ফ্ল্যাটের মূল্য ধরা হয়েছে ২৫ লাখ টাকা। মূল্য পরিশোধ সহনীয় করতে থাকছে বুকিং মানি ৫০ হাজার টাকা, ডাউন পেমেন্ট ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা এবং প্রতি মাসে ৮ হাজার ৫০০ টাকা হারে সাত বছরের সহজ কিস্তি। সাত বছরের মাথায় প্রতিটি ফ্ল্যাট পুরোপুরি তৈরি হয়ে যাবে। মালিকরা বাকি টাকা পরিশোধ করে নিজেদের ফ্ল্যাট বুঝে নিতে পারবেন। কারও প্রয়োজন হলে ব্যাংক ঋণের ব্যবস্থা করা হবে।

বিজ্ঞাপন

প্রকল্পের উদ্বোধনকালে সমকাল সম্পাদক মুস্তাফিজ শফি বলেন, ‘সাংবাদিকদের কথা ভেবেই রকল্যান্ড হোমস্টিডের প্রকল্পটি একটি অসাধারণ উদ্যোগ। আমি প্রকল্পটি ঘুরে দেখেছি। বর্তমানে যোগাযোগ ভালোই। তবে এখানে একটি প্রস্তাবিত সড়ক রয়েছে। এটি হয়ে গেলে ঢাকা আর এখানের মধ্যে খুব বেশি পার্থক্য নেই। আমি আশা করব, এখানে অনেক সাংবাদিক ফ্ল্যাট নিতে পারবেন। এ জন্য সবাইকে আলাদা প্রস্তুতি নিতে হবে। কিস্তি কীভাবে পরিশোধ করবেন তার পরিকল্পনা থাকতে হবে। আমি রকল্যান্ডের কর্মকর্তাদের দীর্ঘদিন ধরেই চিনি। তারা আমার বন্ধু, কলিগ, ছোটভাই। আমি তাদের এ উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাই। আমি দৃঢ় আশাবাদী যে তারা এ প্রকল্প সফল করে তুলবেন। আমিও তাদের প্রকল্পে কোনো না কোনোভাবে যুক্ত হবো।’

এটিএন বাংলার কারেন্ট এ্যাফেয়ার্স এডিটর ও বিশেষ প্রতিনিধি কেরামত উল্লাহ বিপ্লব বলেন, ‘রাজধানীর সন্নিকটে সুন্দর পরিবেশ এবং সবুজের মাঝে গড়ে উঠছে এই প্রকল্পটি। এমন পরিবেশে আমি সত্যিই মুগ্ধ। আমি নিজে একাধিকবার প্রকল্পটি ঘুরে দেখেছি। এখানে যে সম্ভাবনা আছে এখানে আমি নিজের জন্য একটি প্লট ও একটি ফ্ল্যাট বুকিং দিচ্ছি। ’

বিজ্ঞাপন

কবি, প্রাবন্ধিক ও সিনিয়র সাংবাদিক আবদুল হাই শিকদার বলেন, ‘এই প্রকল্পটি যারা ডেভেলপ করবে সেই প্রতিষ্ঠানটি আমার বাড়িও ডেভেলপ করেছে। তাদের পরিকল্পনা, ডিজাইন ও কাজে আমি ভীষণ খুশি। আশা করি, তারা এ প্রকল্পেও সাংবাদিকদের জন্য মনোমুগ্ধকর ফ্ল্যাট তৈরি করবে।’

অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি আমাদের সময় এর ডেপুটি এডিটর দীপঙ্কর লাহিড়ী রকল্যান্ডের এ ধরনের উদ্যোগকে সাধুবাদ জানান।

বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানের সভাপতি ও রকল্যান্ড হোমস্টিড লিমিটেডের পরিচালক আনিসুর রহমান বলেন, ‘আমরা যতটুকু করতে পারি, ততটুকুই প্রতিশ্রুতি দেই। সর্বোচ্চ সম্ভাবনার সবটুকু দিয়ে সর্বোচ্চ সুবিধাদি নিশ্চিত করে আমরা সাংবাদিকদের জন্য এ প্রকল্পটি সাজাবো।’

পরে অন্য অতিথিদের সঙ্গে নিয়ে কেক কেটে প্রকল্পের উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি সমকালের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মুস্তাফিজ শফি।

বিজ্ঞাপন

উল্লেখ্য, রকল্যান্ড ফ্ল্যাটস প্রকল্পটির অবস্থান মেট্রোরেল এর স্টার্টিং পয়েন্ট থেকে পাঁচ কিলোমিটারের মধ্যে ঢাকার অদূরবর্তী সাভারের সাদুল্যাপুর মৌজায়। প্রথম কন্ডোমিনিয়াম ভবনটির প্রস্তাবিত ৮০টি ফ্ল্যাটের মধ্যে ৭টি অনুষ্ঠান স্থলেই বুকিং দেন সাংবাদিক ও অতিথিরা। বাকিগুলোর জন্য বুকিং দিতে যে কেউ যোগাযোগ করতে পারবেন ০১৭৬৭৮৩৮৮০৩, ০১৭১০৫৩৯০৪৭, ০১৭১৭১০৩১০৩, ০১৭১১২০০৫০৯ নম্বরে। (প্রেস বিজ্ঞপ্তি)

সারাবাংলা/একে

বিজ্ঞাপন

Tags: ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন