সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১১ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৯ জমাদিউস-সানি ১৪৪১

বিজ্ঞাপন

শেখ জামালকে হারালো কিংস, জয়ের ধারায় দুই আবাহনী

মে ৯, ২০১৯ | ৭:০৯ অপরাহ্ণ

।। স্পোর্টস করেপসন্ডেন্ট।।

বিজ্ঞাপন

ঢাকা: ১৮ দিনের বিরতি শেষে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ফুটবল ফিরলো দুর্দান্ত খেলার মধ্য দিয়ে। একই সময়ে তিন তিনটি ম্যাচ। শীর্ষস্থান ধরে রাখার লড়াইয়ে সফল বসুন্ধরা কিংস। ঢাকা আবাহনীও জয় নিয়ে আছে একই পথে। দ্বিতীয় লেগের শুরুতেই জয়ের দেখা পেলো চট্টগ্রাম আবাহনীও।

বৃহস্পতিবার (৯ মে) নীলফামারী শেখ কামাল স্টেডিয়ামে শেখ জামালকে ৩-১ ব্যবধানে হারিয়ে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে বসুন্ধরা কিংস। ধানমন্ডি জায়ান্টদের ডাগআউটে কোচ আফুসির বদলে শফিকুল ইসলাম মানিকের এ মৌসুমের অভিজ্ঞতটা হলো হার দিয়েই। জোড়া গোল এসেছে স্থানীয় ফুটবলার মতিন মিয়ার কাছ থেকে।

বিজ্ঞাপন

এদিকে নোয়াখালীর শহীদ ভুলু স্টেডিয়াম থেকে অ্যাওয়ে ম্যাচে কাঙ্খিত জয় পেয়েছে বিপিএলের ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ঢাকা আবাহনী। নোফেল স্পোর্টিং ক্লাবকে তারা হারিয়েছে ২-০ ব্যবধানে।

অন্যদিকে গোপালগঞ্জের শহীদ ফজলুল হক মনি স্টেডিয়ামে অ্যাওয়ে ম্যাচে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্রকে হারিয়েছে দ্বিতীয় পর্ব শুরু করেছে চট্টগ্রাম আবাহনী। বন্দর নগরীর দলটি জয় পেয়েছে ২-১ ব্যবধানে।

বিপিএল দ্বিতীয় লেগের প্রথম দিনটাই অনেক গুরুত্বপূর্ণ দলগুলোর জন্য। প্রথমত শীর্ষস্থান ধরে রাখার লড়াই। অন্যদিকে পা হরকালে পয়েন্ট টেবিলের চার দলের মধ্যেও হতে পারে দারুণ পরিবর্তন।

সেই সুযোগ হাতছাড়া করেনি বসুন্ধরা কিংস। শেখ জামালকে ঘরের মাঠে ৩-১ উড়িয়ে দিয়ে জয়ের ধারা অব্যাহত রেখেছে অস্কার ব্রুজনের শিষ্যরা। জোড়া গোল এসেছে মতিনের পা থেকে। কিংসের বাকী গোলটি মার্কোসের। ৫২ মিনিটে শেখ জামালে সান্ত্বনার গোলটি আসে সাম্বোর কাছ থেকে।

অন্যদিকে নোফেলকে ২-০ ব্যবধানে হারিয়ে দেয়ার পেছনে আবাহনী ডিফেন্ডার রায়হানের সরাসরি হাত আছে। তার দুটি লম্বা থ্রো থেকেই দুটি গোল এসেছে। প্রথমটি সানডের পা থেকে। দ্বিতীয় গোলটিও প্রায় একই ভাবে। রায়হানের থ্রো গিয়ে পড়ে বেলফোর্টের মাথায়। সেখান থেকে বল চলে যায় ফাঁকায় থাকা জীবনের মাথা। সুযোগ কাজে লাগিয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন জীবন।

অপরদিকে গোপালগঞ্জ ভেন্যুতে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্রকে ৪-১ গোল ব্যবধানে হারিয়ে লিগের দ্বিতীয় পর্ব শুরু করে চট্টগ্রাম আবাহনী। ৩ মিনিটেই সেট পিস থেকে এগিয়ে যায় চট্টলার দলটি। ১০ মিনিটের মাথায় ফ্রিকিক থেকে গোল করে সমতায় ফেরে মুক্তিযোদ্ধা ক্রীড়া সংসদ। ২৫ মিনিটে আরেকটি সেট পিস থেকে ব্যবধান বাড়ায় আবাহনী। পরে আরও দুটি গোল দিয়ে এক হালি পূর্ণ করে চট্টলার দলটি। এই ফলই ম্যাচ শেষ করে পূর্ণ তিন পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ে মিন্টুর শিষ্যরা।

এদিকে লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতার তালিকাতেও শীর্ষে ওঠার লড়াই চলছে। আজকের ম্যাচে বল জালে জড়িয়ে ১০ গোল নিয়ে শীর্ষে সানডে সিজোবা। ৯ গোল নিয়ে জীবন উঠে গেল দুইয়ে। আজকের ম্যাচে গোল পেয়েছেন ব্রাজিলিয়ান মার্কোসও। ৮ গোল নিয়ে তিনে অবস্থান করছেন তিনি। অন্যদিকে জোড়া গোলের বদান্যতায় ৭ গোল হলো মতিনেরও। শীর্ষ পাঁচে উঠে এসেছেন এই দেশি ফুটবলারও।

১৩ ম্যাচে ৩৭ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই আছে ঢাকা আবাহনী। দুইয়ে ৩৩ পয়েন্ট নিয়ে ঢাকা আবাহনী। জয় নিয়ে ছয়ে উঠে এসেছে চট্টগ্রাম আবাহনী। ছয়ে মুক্তিযোদ্ধা। এ হারে নয়ে শেখ জামাল।

সারাবাংলা/জেএইচ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন