বুধবার ২২ মে, ২০১৯ ইং , ৮ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৬ রমজান, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

গ্লোবাল ইয়ুথ লিডারশিপে সেরা বাংলাদেশের ৭ তরুণ

মে ১১, ২০১৯ | ৭:৩৮ অপরাহ্ণ

সারাবাংলা ডেস্ক

গ্লোবাল ইয়ুথ পার্লামেন্টের আয়োজনে প্রতিবছরের মতো এবারও হয়ে গেলো গ্লোবাল ইয়ুথ লিডারশিপ সামিট-২০১৯। নেপালের কাঠমান্ডুতে তিন দিনব্যাপী আয়োজনে ছিলো সভা, সেমিনার ও বাৎসরিক সম্মাননা। আয়োজনে ৩৭টি দেশের ৪৬ জনকে সম্মাননা ট্রফি দেওয়া হয়। বিভিন্ন বিভাগে বিজয়ীদের মধ্যে ছিলেন বাংলাদেশেরও সাত তরুণ।

বাংলাদেশের পুরস্কার বিজয়ীরা হলেন, লিডারশিপ বিভাগে এড. খালেদ মাসুদ মজুমদার ও এড. ফারুক তপাদার, উদ্যোক্তা বিভাগে সমাজকর্মী আমানা আনোয়ার ও প্রকাশক মাশফিকুল্লাহ তন্ময়, প্রভাবক বা ইনফ্লুয়েন্সার বিভাগে লেখক রাকিব আল হাসান, গণতন্ত্র বিভাগে ছড়াকার ও সাংবাদিক অনিক খান। এছাড়া, তরুণদের ‘অনুপ্রেরক’ হিসেবে ভূমিকা রাখার জন্য ‘মোটিভেশন’ বিভাগে সম্মাননা পান লাইফ কোচ রাওমান স্মিতা।

নেপালের ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলি অডিটরিয়ামে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী জলোনাথ খোনেল। সম্মাননা  অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন নেপালের সাবেক অর্থমন্ত্রী রাম শারান মহত, আন্তর্জাতিক সমাজকর্মীবৃন্দ এবং গ্লোবাল ইয়ুথ পার্লামেন্টের সভাপতি দিয়াকর আরিয়াল।

সম্মেলন শেষে গ্লোবাল ইয়ুথ পার্লামেন্ট-এর প্রধান দিয়াকর আরিয়াল ও রাওমান স্মিতা ঘোষণা করেন চলতি বছরের ১৮-২০ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত হবে ‘২য় সার্ক ইয়ুথ কনফারেন্স’। এতে সার্কভুক্ত দেশগুলোর তরুণদের পাশাপাশি বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা অংশ নেবেন।

বাংলাদেশে ‘২য় সার্ক ইয়ুথ কনফারেন্স’ আয়োজনের সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিয়াকর আরিয়াল বলেন, বাংলাদেশকে আমি আমার নিজের বাড়ি মনে করি। এ সম্মেলনে বিভিন্ন সেশনে অংশগ্রহণমূলক আলোচনা ও সম্মাননায় বাংলাদেশ বেশ এগিয়ে ছিল। বাংলাদেশে এমন সম্মেলন কেন হবে না সেটাই প্রশ্ন হওয়া উচিত, বলেন তিনি।

প্রসঙ্গত, এবারের আয়োজনে ৪২টি দেশের ৭১ জন তরুণ প্রতিনিধি আলোচনায় সরাসরি অংশ নেন ও নিজেদের মতামত তুলে ধরেন।

সারাবাংলা/এনএইচ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন