রবিবার ২৫ আগস্ট, ২০১৯ ইং , ১০ ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২৩ জিলহজ, ১৪৪০ হিজরি

বিজ্ঞাপন

৪ ডিসেম্বর বিপিএল উদ্বোধন, ৬ ডিসেম্বর খেলা

মে ১২, ২০১৯ | ৩:০৬ অপরাহ্ণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

চতুর্থ ও পঞ্চম আসরের বিবর্ণ ধারাবাহিকতা বিপিএলে অব্যাহত ছিল ষষ্ঠ আসরেও। কোনো উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ছাড়াই গত ৫ জানুয়ারি মাঠে গড়িয়েছিল দেশের ঘরোয়া ক্রিকেটের সবচাইতে জাঁকজমকপূর্ণ এই আসরটি। আর এর পেছনে মূখ্য কারণ হিসেবে কাজ করেছিল একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। তবে এবার স্বরূপে ফিরছে ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক এই টুর্নামেন্টটি।

সবকিছু ঠিক থাকলে অর্থাৎ কোন প্রাকৃতিক দূর্যোগ বা রাজনৈতিক সংকট দেখা না দিলে চলতি বছরের ৪ ডিসেম্বর জমকালো উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে পর্দা উঠবে সপ্তম আসরের। আর খেলা শুরু হবে ৬ ডিসেম্বর। এই মর্মে ৭ ফ্র্যাঞ্চাইজিকে ইতোমধ্যে চিঠিও ইস্যু করেছে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল।

রোববার (১২ মে) সারাবাংলাকে এ তথ্য দিলেন বিপিএলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান শেখ সোহেল। তিনি জানিয়েছেন, ‘নভেম্বরের শেষে বাংলাদেশ দল ভারত সফর থেকে আসবে। দল দেশে ফেরার পর কিছুদিন বিশ্রাম নেবে। ৪ ডিসেম্বর আমরা উদ্বোধনী অনুষ্ঠান করব। আর ৬ ডিসেম্বর থেকে বিপিএল শুরু হবে। গত তিনটি আসরে আমরা উদ্বোধনী অনুষ্ঠান করতে পারিনি। সবকিছু ঠিক থাকলে মানে বড় ধরণের প্রাকৃতিক দূর্যোগ না হলে বা রাজনৈতিক সংকট না এলে ওই সময়ের মধ্যেই বিপিএল শুরু করে দেব। ৭ ফ্র্যাঞ্চাইজিকে আমরা ইতোমধ্যেই এই বিষয়ে চিঠি পাঠিয়েছি।’

স্বনামধন্য দেশি-বিদেশি তারকাদের স্টেজ পারফরম্যান্স, আতশবাজীর ঝলকানি ও লেজার লাইটের বর্ণালী আলোয় বিপিএলের প্রথম তিন আসরের পর্দা উঠতে দেখা গেলেও চতুর্থ ও পঞ্চম আসর ছিল একেবারেই বর্ণহীন। সময় স্বল্পতার কারণে চতুর্থ আসরে কোনো উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করেনি বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল।

বিজ্ঞাপন

তাই পঞ্চম আসর দিয়ে হারানো জৌলুস ফিরিয়ে আনতে চেয়েছিল বিপিএলের সর্বোচ্চ এই সংস্থাটি। কিন্তু ২০১৭ সালে দেশব্যাপী বন্যার্তদের অভাবনীয় দুর্ভোগের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে শেষ ভাগে এসে ওই আসরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান বাতিল করে।

আর ষষ্ঠ আসরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান বাতিল হয়ে যায় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য।

সারাবাংলা/এমআরএফ/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন