রবিবার ২৫ আগস্ট, ২০১৯ ইং , ১০ ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২৩ জিলহজ, ১৪৪০ হিজরি

বিজ্ঞাপন

জিতলেই ফাইনালে বাংলাদেশ

মে ১২, ২০১৯ | ১০:১৮ অপরাহ্ণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

সমীকরণটি এমন; ত্রিদেশীয় সিরিজে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচটি জিতলেই ফাইনালে উঠে যাবে বাংলাদেশ। দুই ম্যাচে এক জয় ও অপরটিতে পয়েন্ট ভাগাভাগি হওয়ায় ৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দুইয়ে লাল সবুজের দল। ৯ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে উইন্ডিজ। আর বাংলাদেশের পয়েন্টে ভাগ বসানো আয়ারল্যান্ডের সংগ্রহ ২ পয়েন্ট। সোমবার (১৩ মে) ডাবলিনে উইন্ডিজ-টাইগারদের ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকেল পৌনে ৪টায়।

এমতাবস্থায় আগামীকালের ম্যাচটি জিততে পারলে টাইগারদের পয়েন্ট হবে ১০। বোনাস পয়েন্ট সহ জিতলে হবে ১১। এতে করে ৯ পয়েন্ট নিয়ে এই মুহূর্তে শীর্ষে থেকে প্রথম দল হিসেবে ফাইনাল নিশ্চিত করা উইন্ডিজরা চলে যাবে টেবিলের দুই নাম্বারে। আর এই দুই দলের মধ্যেই অনুষ্ঠিত হবে টুর্নামেন্টের শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচ।

কেননা তিন ম্যাচে দুই হার ও অপরটি বৃষ্টিতে ভেসে গিয়ে পয়েন্ট ভাগাভাগি হওয়ায় ২ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তলানিতে স্বাগতিক আইরিশরা। তবে উইন্ডিজদের বিপক্ষে ম্যাচটিতে যদি মাশরাফিরা হেরে যায় তাহলে অপেক্ষা বাড়বে। তাকিয়ে থাকতে হবে আইরিশদের বিপক্ষে শেষ ম্যাচটির ফলাফলের দিকে।

সেই অপেক্ষায় নিশ্চয়ই স্টিভ রোডস শিষ্যরা থাকতে চাইবেন না। প্রথম ম্যাচের সেই নান্দনিক ক্রিকেটের ধারাবাহিকতা এই ম্যাচেও ধরে রেখে এক ম্যাচ হাতে রেখেই ফাইনালের মহারণে ক্যারিবিয়দের চোখ রাঙাতে চাইবে টাইগাররা।

বিজ্ঞাপন

সবাই দেখেছেন, ত্রিদেশীয় সিরিজের শুরুটা উড়ন্তই করেছে বাংলাদেশ। ব্যাট-বলে মাশরাফি, তামিম, সাকিব, সৌম্য, মুশফিক অভিজ্ঞতার ঝুলি থেকে সেদিন যে খেলা উপহার দিয়েছেন তাতে নামের প্রতি সুবিচার বেশ ভালোভাবেই করেছে ওয়ানডে ফরম্যাটে দুর্দান্ত এই দলটি। তাতে করে স্বপ্নটিও চওড়া হতে শুরু করেছে। ‘এবার বুঝি, অধরা ত্রিদেশীয় শিরোপা ঘরে আসছেই।’

কিন্তু এর আগে উইন্ডিজ-আইরিশদের মধ্যকার ম্যাচে যে ঘটনা ঘটে গেছে তাতে লাল সবুজের সেই স্বপ্ন পূরণ কতটা সহজ হবে সেটাই ভাবনার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। মালাহাইডে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে অ্যান্ডি বালবার্নির সেঞ্চুরি আর কেভিন ও’ব্রায়েনের ঝড়ো অর্শতকে ৩২৭ রানের বড় সংগ্রহ গড়েছিল আয়ারল্যান্ড।

তিনশ রানের লক্ষ্য তাড়ায় ততটা অভিজ্ঞ না হলেও ওয়েস্ট ইন্ডিজ গড়ে নিজেদের অনন্য একটি রেকর্ড। সুনীল আমব্রিসের বীরত্বে নিজেদের ইতিহাসের সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জিতে ক্যারিবিয়ানরা উঠে যায় ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে। ৫ উইকেটে জেতা ম্যাচটিতে বল বাকি ছিল আরো ১৩টি।

সন্দেহাতীতভাবেই এটি মাশরাফিদের জন্য একটি বার্তা। যা দু’দলের তরফ থেকেই এসেছে। ক্যারিবীয়ানরা জানিয়ে দিয়েছে, লক্ষ্য সাড়ে তিনশ হলেও ব্যাপার না। আর আইরিশরা জানিয়ে রেখেছে, আমরাও ৩২৫ রান করতে পারি।

আগামী কাল ফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করতে টাইগারদের আক্রমণটি হতে হবে দ্বিমুখী। টস জিতে বা হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে বড় সংগ্রহ তোলা লাগবে টাইগারদের। আর আগে বোলিংয়ে নামলে কী করতে হবে সেই শিক্ষাটি নিশ্চয়ই প্রস্তুতি ম্যাচেই তারা পেয়ে গেছেন।

যেহেতু ফাইনালের টিকিটের নিশ্চিতের ম্যাচ, সেহেতু হয়তো একাদশে পরিবর্তন আনতে চাইবেন না বাংলাদেশ দলপতি মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা। সম্ভাব্য একাদশে ওপেনিংয়ে তামিম ইকবালের সঙ্গে লিটন দাস ও সৌম্য সরকারের মধ্যে একজনকে নেওয়া হতে পারে। তবে ফর্ম বিবেচনায় এমনিতেই এগিয়ে থাকবেন সৌম্য। তিন-চার-পাঁচ-ছয়-সাতে হয়তো আপাতত বিকল্প ভাবনার প্রয়োজন নেই। তিনে সাকিব, চারে মুশফিকুর রহিম, পাঁচে মোহাম্মদ মিঠুন, ছয়ে মাহমুদউল্লাহ ও সাতে সাব্বির রহমান প্রমাণিত সৈনিক।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে শুরুতে বল হাতে খরুচে হলেও পরে কিন্তু ঠিকই নিজেকে ফিরে পেয়েছেন সাইফউদ্দিন। কাজেই আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষেও হয়তো তার ওপরেই ভরসা রাখবেন অধিনায়ক মাশরাফি। মিরাজ তো থাকছেনই। ম্যাচের পরিস্থিতি বুঝে আট-নয়ে থাকবেন দুজন। এরপর মাশরাফি তো থাকছেনই। এদিকে প্রথম ম্যাচে কিছুটা এলোমেলো মনে হলেও মাশরাফির চোখে সেরা মোস্তাফিজুর রহমানের নামা একরকম নিশ্চিতই।

সারাবাংলা/এমআরএফ/এমআরপি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন