সোমবার ২৭ মে, ২০১৯ ইং , ১৩ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২১ রমজান, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

ছাত্রলীগের কমিটি: ঢাবিতে পদবঞ্চিতদের মিছিল

মে ১৪, ২০১৯ | ১:৪১ অপরাহ্ণ

ঢাবি করেসপন্ডেন্ট

ছাত্রলীগের ৩০১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনে বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ মিছিল করেছে ছাত্রলীগের একাংশ। মিছিল থেকে তারা এই কমিটিকে ভেঙে দিয়ে যোগ্য ও ত্যাগী নেতাদের কমিটিতে স্থান দেওয়ার দাবি জানান।

মঙ্গলবার (১৪ মে) দুপুর ১টার দিকে ঢাবি হাকিম চত্বর থেকে বিক্ষোভ মিছিলটি বের হয়। পরে মধুর ক্যান্টিন এলাকায় গিয়ে শেষ হয় মিছিল। সেখানে কমিটি গঠনে বিভিন্ন অনিয়মের তথ্য তুলে ধরে সংবাদ সম্মেলন করার কথা রয়েছে বিক্ষোভকারীদের। এর আগে, কমিটি ঘোষণার পর সোমবার (১৩ মে) একই দাবিতে বিক্ষোভ করলে মধুর ক্যান্টিনে মারধরের শিকার হন ছাত্রলীগের এই অংশের নেতাকর্মীরা।

আরও পড়ুন- ৩০১ সদস্যের কমিটি, পদত্যাগ করছেন ১০০ জন!

বিজ্ঞাপন

বিক্ষোভ মিছিলে অংশ নেওয়া ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা অভিযোগ করছেন, সংগঠনের ৩০১ সদস্যের কমিটিতে অযোগ্য ও নিষ্ক্রিয়দের স্থান দেওয়া হয়েছে। এছাড়া অনেকেই আছেন যারা ঠিকাদারির সঙ্গে যুক্ত। শুধু তাই নয়, কমিটিতে স্থান পাওয়া অনেকেই বিবাহিত, যা গঠনতন্ত্রের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।

বিক্ষোভকারীরা আরও বলেন, এসব অযোগ্য নেতাদের কমিটিতে স্থান দিতে গিয়ে যোগ্য ও সংগঠনের জন্য দীর্ঘ দিন ধরে নিবেদিত নেতাকর্মীদের অনেককেই বাদ দেওয়া হয়েছে। কাউকে কাউকে কমিটিতে রাখা হলেও তাদের উপসম্পাদক বা সদস্য পদ দিয়ে তাদের অবদানকে অপমান করা হয়েছে। আর এর প্রতিবাদেই তারা বিক্ষোভ করছেন।

রোকেয়া হল শাখা ছাত্রলীগের গত কমিটির সভাপতি বি এম লিপি আক্তার সারাবাংলাকে বলেন, আমাদের অনেকেই আছেন যারা দীর্ঘ দিন ধরে সংগঠনে সক্রিয়ভাবে কাজ করছেন। অনেক ত্যাগী নেতা রয়েছেন। কিন্তু তাদের বাদ দিয়ে অযোগ্যদের জায়গা করে দেওয়া হয়েছে কমিটিতে। আমাদের কয়েকজনকে উপসম্পাদক পদ দিয়ে অপমান করা হয়েছে। তাই আমরা নিয়মতান্ত্রিক উপায়ে বিক্ষোভ করে প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

আরও পড়ুন- ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটির বিরোধিতাকারীদের ওপর হামলা

তানভীর আহমেদ সৈকত, তিলোত্তমা শিকদারসহ আরও বেশ কয়েকজন ছাত্রলীগ নেতাও একই অভিযোগ করেন। তারা বলেন, কমিটির অনিয়মের তথ্য তুলে ধরতে প্রয়োজনে তারা প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার দ্বারস্থ হবেন।

বিক্ষোভকালীরা জানান, আজ দুপুরে মধুর ক্যান্টিনে সংবাদ সম্মেলনের পাশাপাশি আগামীকাল বুধবার (১৫ মে) দুপুর ১টায় ঢাবিতে মানববন্ধন করবেন। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আরও কর্মসূচি দেওয়া হবে তাদের পক্ষ থেকে। সেগুলো পর্যায়ক্রমে জানানো হবে।

এর আগে, ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটির বিরোধিতাকারীরা সোমবার সন্ধ্যায় বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে মধুর ক্যান্টিন এলাকায় গেলে মারধরের শিকার হন। আহত অবস্থায় তাদের কমপক্ষে সাত জন ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন বলে জানা গেছে। তাদের মধ্যে শ্রাবণী দিশা চোখে আঘাত পেয়েছেন, মাথার পেছনে আঘাত পেয়েছেন তানজির শাকিল। এছাড়া লিপি আক্তার, ফরিদা পারভীন, তিলোত্তমা শিকদার, জেরিন জিয়া ও শ্রাবণী শায়লা শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত পেয়েছেন বলে জানান ঢামেক জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক।

সারাবাংলা/এসবি/টিআর

Advertisement
বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন