শনিবার ২০ জুলাই, ২০১৯ ইং , ৫ শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৬ জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

‘ফেস রিকগনিশন’ নিষিদ্ধ করল স্যান ফ্র্যান্সিসকো

মে ১৫, ২০১৯ | ৩:৪০ অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের স্যান ফ্র্যান্সিসকো অঙ্গরাজ্যে নিষিদ্ধ ঘোষিত হলো ‘ফেসিয়াল রিকগনিশন’ প্রযুক্তি। প্রযুক্তিটি নিষিদ্ধ করার পক্ষে ভোট দিয়েছেন শহরের আইনপ্রণেতারা। যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম শহর হিসেবে এই প্রযুক্তি নিষিদ্ধ করেছে স্যান ফ্যান্সিসকো। নিষেধাজ্ঞা অনুসারে, শহরটির কোনো স্থানীয় সংস্থা, পরিবহন কর্তৃপক্ষ, এমনকি আইন প্রয়োগকারী সংস্থাও এখন থেকে এই প্রযুক্তি ব্যবহার করতে পারবে না। খবর বিবিসির।

নিষেধাজ্ঞায় বলা হয়েছে, ব্যবহার নিষিদ্ধ হওয়ার পাশাপাশি এখন থেকে কেউ নজরদারি করা যায় এমন কোনো প্রযুক্তি কেনার আগে শহরের প্রশাসকদের অনুমোদন নিতে হবে।

এদিকে, এই নিষেধাজ্ঞার বিরোধিতাও করেছেন অনেকে। তাদের দাবি, এতে জনগণের নিরাপত্তা ঝুঁকিতে পড়বে ও অপরাধের বিরুদ্ধে লড়াই বাধাগ্রস্ত হবে।

অন্যদিকে, নিষেধাজ্ঞার সমর্থনকারীরা বলছেন, এই প্রযুক্তির বর্তমান অবস্থা খুবই অনির্ভরযোগ্য। এতে জনগণের গোপনীয়তা ও স্বাধীনতার লঙ্ঘিত হয়। এছাড়া, এই প্রযুক্তিতে প্রায়ই ভুল হয়। বিশেষ করে নারীদের ও কৃষ্ণাঙ্গদের চিহ্নিত করতে এরকম ভুল বেশি হয়।

বিজ্ঞাপন

নর্দার্ন ক্যালিফোর্নিয়াস্থ আমেরিকান সিভিল লিবারটিস ইউনিয়নের ম্যাট ক্যাগল বলেন, এই ভোটের মাধ্যমে স্যান ফ্র্যান্সিসকো আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দিল যে, মুখ নজরদারি প্রযুক্তি একটি সুস্থ গণতন্ত্রের সঙ্গে বেমানান। আমাদের নাগরিকদের উচ্চ-পর্যায়ের নজরদারি প্রযুক্তির বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখার সুযোগ থাকা উচিৎ।

তিনি বলেন, আমরা শহরের মানুষদের আহ্বানে সাড়া দেওয়ায় ও এই গুরুত্বপূর্ণ আইনে পথ তৈরি করায় শহর কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। অন্যান্য শহরের উচিৎ জনগণের নিরাপত্তা ও নাগরিক অধিকার নিশ্চিত করতে একইরকম পদক্ষেপ নেওয়া।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার (১৪ মে) স্যান ফ্র্যান্সিসকোর সুপারভাইজররা ৮-১ ভোট দিয়ে প্রযুক্তিটি নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে। আগামী সপ্তাহে এ বিষয়ে অপর একটি ভোট হওয়ার পর এটা আনুষ্ঠানিকভাবে শহরের আইনে পরিণত হবে।

উল্লেখ্য, শহরে নিষিদ্ধ হলেও, বিমানবন্দর ও সমুদ্রবন্দরে চালু থাকবে ফেস রিকগনিশন প্রযুক্তি। কারণ, সেগুলো স্থানীয় নয়, কেন্দ্রীয় সরকারের শাসনাধীন।

সারাবাংলা/আরএ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন