রবিবার ২৫ আগস্ট, ২০১৯ ইং , ১০ ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২৩ জিলহজ, ১৪৪০ হিজরি

বিজ্ঞাপন

এমবিবিএস পাস করে ওষুধ চোরাচালানি!

মে ১৬, ২০১৯ | ১০:৫৪ পূর্বাহ্ণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো: চট্টগ্রাম নগরীতে বিপুল পরিমাণ আমদানি নিষিদ্ধ ভারতীয় ওষুধ জব্দ করেছে পুলিশ। এসব ওষুধ অবৈধ পথে দেশে আনার অভিযোগে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতার ব্যক্তি সিলেটের একটি বেসরকারি মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাস করা চিকিৎসক বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বুধবার (১৫ মে) রাতে নগরীর খুলশী থানার জাকির হোসেন রোডে পাঁচ বস্তা ওষুধসহ রিকশা ভ্যান আটকের পর ওই চিকিৎসককে গ্রেফতার করা হয়েছে।

গ্রেফতার বাবলু হোসেন (৩০) সিলেট জেলার কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার উত্তর রাজনগর গ্রামের খোরশেদ আলমের ছেলে। চট্টগ্রাম নগরীর খুলশী থানার জাকির হোসেন বাই লেইনের ফরচুন ওমর ভবনের পঞ্চম তলায় তাদের বাসা।

খুলশী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রনব চৌধুরী সারাবাংলাকে জানান, গ্রেফতার বাবলু ২০১৫ সালে সিলেটের রাগিব-রাবেয়া মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাস করেন। এরপর গত তিন বছর তিনি সিলেট ও চট্টগ্রামে বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে চাকরি করেন। সম্প্রতি চাকরি ছেড়ে তিনি চিকিৎসাশাস্ত্রে উচ্চতর ডিগ্রি নেওয়ার জন্য চট্টগ্রামে কোচিংয়ে ভর্তি হন।

বিজ্ঞাপন

ওষুধ জব্দের বিষয়ে ওসি জানান, বুধবার রাতে রিকশা ভ্যানে করে ওষুধের পাঁটটি বস্তা নিতে দেখে টহল পুলিশের সন্দেহ হয়। ওষুধগুলো ভারতীয় দেখে মালিকের মোবাইল নম্বর চালকের কাছ থেকে সংগ্রহ করে পুলিশ। ফোন করা হলে চালক বাবলু ঘটনাস্থলে আসেন। তবে বাবলু ওষুধগুলো আমদানির কোনো বৈধ কাগজ জমা দিতে পারেনি।

এরপর পাঁচ বস্তায় ভারতীয় প্যারাসিটামল গ্রুপের ২ লাখ ৪০ হাজার পিস ওষুধ জব্দ করা হয়, যার দাম ১০ লাখ ৮ হাজার টাকা বলে জানিয়েছেন ওসি। তিনি বলেন, ‘জিজ্ঞাসাবাদে বাবলু জানিয়েছেন, সিলেটের তামাবিল সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে ওষুধগুলো বাংলাদেশে আনা হয়েছে। বুধবার বিকেলে ট্রেনে করে চট্টগ্রাম নগরীতে পৌঁছানোর পর সেগুলো হাজারী গলিতে পাইকারি দোকানে বিক্রির জন্য নেওয়া হচ্ছিল। এর আগেও তামাবিল সীমান্ত দিয়ে কয়েক দফা ওষুধ এনেছে বলে বাবলু জানিয়েছেন। মেডিকেলে পড়ার সময়ই বাবলু এই চোরাচালানিতে জড়িয়ে পড়ে।’

বাবলুর বিরুদ্ধে খুলশী থানায় মামলা হয়েছে বলেও জানান ওসি।

সারাবাংলা/আরডি/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন