বুধবার ২২ মে, ২০১৯ ইং , ৮ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৬ রমজান, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

ফাইনাল নিয়ে সুজনের ভাবনা

মে ১৬, ২০১৯ | ৭:২৪ অপরাহ্ণ

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট

ত্রিদেশীয় সিরিজে সর্বোচ্চ পয়েন্ট নিয়ে ফাইনালে উঠেছে টাইগাররা। শুক্রবার (১৭ মে) ফাইনালে টাইগারদের প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সপ্তমবারের মতো কোনো ফাইনালে উঠলো বাংলাদেশ। আরও একটি ফাইনাল, কী ভাবছেন বিশ্বকাপে টাইগারদের টিম ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন?

এর আগে ছয়টি ফাইনাল খেললেও তীরে এসে তরী ডুবেছে টাইগারদের। বৃহস্পতিবার (১৬ মে) ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইলান নিয়ে কথা বলেন সুজন। তিনি জানালেন, ফাইনালে হারাটা সব সময়ই কষ্টের, কাছাকাছি গিয়ে হারাটা আরও কষ্টের। এশিয়া কাপে প্রথম যখন ২ রানে আমরা পাকিস্তানের সঙ্গে হারলাম তখনও বড় দুঃখের একটা ব্যাপার ছিল। তো ওখান থেকে আমরা অনেক শিখেছি। আগে যেসব ফাইনাল হেরেছি সেখানে আন্ডারডগ ছিলাম, এবার মনে হচ্ছে আয়ারল্যান্ড সিরিজে আমরাই ফেবারিট। বাংলাদেশ দল খেলছেও ফেবারিটের মতো। ভাগ্যটা গুরুত্বপূর্ণ তবে স্কিলের মাধ্যমে আমরা হয়তো ভাগ্যকে জয় করতে পারব।

আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে বিশ্রামে রাখা হয়েছিল ওপেনার সৌম্য সরকার। ইনফর্ম ওপেনারের জায়গায় খেলেছিলেন লিটন দাস। তামিমের সঙ্গে এই ওপেনিং জুটিতে এসেছিল ১০০ প্লাস রান। আবু জায়েদ রাহি প্রথমবারের মতো তুলে নিয়েছেন ৫ উইকেট। ফাইনালে একাদশ সাজাতে সংকট তৈরি হবে কিনা?

বিজ্ঞাপন

এমন প্রশ্নে সুজন জানালেন, ওপেনিংয়ে তামিমের সঙ্গে সৌম্য ভালো করছে, লিটনও ভালো করছে। বোলারদের মধ্যে রাহি ৫ উইকেট নিয়ে নিয়েছে। এটা বলতে পারেন মধুর একটা সংকট। নিঃসন্দেহে আমরা তো পিক করবো। রাহি দারুণ বোলিং করেছে। তারপরও যেহেতু ১১ জনের খেলা ম্যানেজমেন্ট বসে সিদ্ধান্ত নেবে। নির্বাচন করতে হবে কাকে নিলে বেশি অবদান রাখতে পারবে। সবার মধ্যে সুস্থ একটা প্রতিযোগিতা চলছে সেটা ভালো। সবাই পারফর্ম করছে। এসব পুরো দলকেই জাগিয়ে তুলবে বলে আমি মনে করি। সব বোলার যখন ভালো করে তখন নিজের সেরাটা দিতে চাইবে। দায়িত্ব তো সবসময়ই থাকে। এটা একটা ভালো ব্যাপার তৈরি হবে যেহেতু সবাই ফর্মে আছে।

বিপিএলে ঢাকা ডায়নামাইটস, ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে আবাহনী কোচ ছিলেন সুজন। একজন কোচ হিসেবে এমন পরিস্থিতিতে একাদশ কিভাবে সাজাতেন সুজন? জানালেন, সত্যি কথা বলতে গেলে এটা তো কন্ডিশন মাথায় রেখে করতে হবে। কালকে কেমন উইকেট হবে… গতকালের উইকেট যথেষ্ট ফ্ল্যাট ছিল। যদি উইকেট মন্থর হয় তখন কাকে খেলাবেন…কালকে আমরা মিরাজকে খেলাতে পারি, মিরাজকে প্রয়োজন স্বাভাবিকভাবেই। গতকাল আমরা চারটা সিমার নিয়ে অনেকদিন পর খেললাম। তো চারটা পেসার নিয়েই খেলবে কিনা; সৌম্য ব্যাক টু ব্যাক ম্যাচে রান করেছে সেটাও একটা বড় ব্যাপার। লিটনও রান করেছে। মিঠুনও রান করেছে যদিও গত ম্যাচে তাকে ব্রেক দেয়া হয়েছিল। ফাইনালে কারা খেলবে, সেটা আসলে কন্ডিশনের সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ।

সুজন আরও যোগ করেন, আমরা মনে হয় বেস্ট বোলিং অ্যাটাক নিয়েই খেলবে বাংলাদেশ। মোস্তাফিজকে মনে হয় ফেরানো হবে। অবশ্যই মাশরাফি খেলবে, সাইফউদ্দিনকে আমি মনে করি বর্তমান সময়ের সেরা ডেথ বোলার। আর এটা আমি বিশ্বাস করি। মিরাজ, সাকিব তো থাকবেই। পাঁচটা বোলারই হয়তোবা খেলবে। আর ওপেনিংয়ে লিটন ভালো খেললেও আমার মনে হয় সৌম্যকে খেলানো হবে।

আগামীকাল বাংলাদেশ সময় বিকাল পৌনে চারটায় শুরু হবে বাংলাদেশ-উইন্ডিজ ফাইনাল ম্যাচ।

সারাবাংলা/এমআরএফ/এমআরপি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন