সোমবার ২৬ আগস্ট, ২০১৯ ইং , ১১ ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২৪ জিলহজ, ১৪৪০ হিজরি

বিজ্ঞাপন

ডিএনসিসির অভিযানে প্রিন্স হোটেল-আগোরাকে ৩ লাখ টাকা জরিমানা

মে ১৬, ২০১৯ | ৯:৪৬ অপরাহ্ণ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: রাজধানীর ফার্মগেট এলাকার প্রিন্স হোটেল ও সুপারশপ আগোরায় অভিযান চালিয়েছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) ভ্রাম্যমাণ আদালত। এসময় খাদ্যে ভেজাল ও পঁচা সবজি রাখার অপরাধে প্রতিষ্ঠান দু’টিকে ৩ লাখ টাকা জরিমানা করেন ডিএনসিসির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

বৃহস্পতিবার (১৬ মে) সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত চলা অভিযানে এসব জরিমানা করা হয়। অভিযানে নেতৃত্ব দেন ডিএনসিসি’র অঞ্চল-৫ এর আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যজিস্ট্রেট মীর নাহিদ আহসান।

তিনি সারাবাংলাকে বলেন, ‘ভোক্তা অধিকার আইন অনুযায়ী পঁচা সবজি, ফল রাখা এবং মুরগি ও গরুর মাংস একই ফ্রিজে রাখার অপরাধে ইন্দিরা রোডে অবস্থিত আগোরা সুপারশপকে ১ লাখ টাকা এবং অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার রান্না করার অপরাধে প্রিন্স হোটেলকে ২ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘ভেজাল খাদ্যের অভিযান ছাড়াও কারওয়ান বাজার, ফার্মগেট ও ইন্দিরা রোড এলাকায় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়েছে। অভিযানে কারওয়ান বাজারে রাস্তা দখল করে থাকা প্রায় দুই শতাধিক অস্থায়ী দোকান এবং ফার্মগেট ওভারব্রিজ থেকে ইন্দিরা রোডে ফুটপাত ও রাস্তা দখল করে রাখা আরও প্রায় ২ শতাধিক অস্থায়ী দোকানসহ মোট ৪ শতাধিক দোকানপাট উচ্ছেদ করা হয়েছে।’

বিজ্ঞাপন

অন্যদিকে, বনানী ও নতুনবাজার এলাকায় ডিএনসিসির আরেক নির্বাহী ম্যজিস্ট্রেট সাজিদ আনোয়ার দুপুর ১২টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানে কাঁচা মরিচের দাম বেশি রাখা এবং মূল্য তালিকা না রাখার অপরাধে ৫টি দোকানে ভোক্তা অধিকার আইন অনুযায়ী সর্বমোট ৬০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

সেই সঙ্গে নতুন বাজার এলাকায় মাংসের দোকানে মূল্য তালিকা না থাকায় ২০ হাজার টাকা করে ৪০ হাজার টাকা এবং একটি মুদি দোকানকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

অভিযানের বিষয়ে বিস্তারিত জানিয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাজিদ আনোয়ার সারাবাংলাকে বলেন, ‘এ অভিযান প্রতিদিন অব্যাহত থাকবে।’ যাদের জরিমানা করা হয়েছে তাদের পরবর্তীতে ফের মনিটরিং করা হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

সারাবাংলা/এসএইচ/এমও

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন