বৃহস্পতিবার ৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ২১ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ৭ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

প্রবাসীদের পাশে দাঁড়ানোর সম্মাননা পেলেন মরিশাসের হাফিজুর

মে ১৯, ২০১৯ | ৬:২৫ অপরাহ্ণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো: মরিশাস প্রবাসী বাংলাদেশিদের যে কোনো বিপদে পাশে থাকেন গ্রাফিক ডিজাইনার মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান। হাফিজের বাড়ি বাংলাদেশের মানিকগঞ্জ উপজেলায়। প্রায় ১৩ বছর ধরে তিনি মরিশাসে আছেন। স্টার প্রিন্ট কোম্পানির অধীনে দেশটির জনপ্রিয় দুটি পত্রিকা ফ্রান্স ভাষার ‘লে এক্সজুর্নাল’ এবং ‘সানডে টাইমস’-এর প্রধান গ্রাফিক ডিজাইনার হিসেবে এখন কাজ করছেন।

বিজ্ঞাপন

তবে নিজের কাজের পাশাপাশি মরিশাসে কোনো বাংলাদেশি মারা গেলে তার মরদেহ দেশে পাঠানো, অসুস্থদের চিকিৎসা সহায়তাসহ প্রবাসীদের কল্যাণে পাশে থাকেন হাফিজুর। কাজ করতে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হওয়া শ্রমিক মোহাম্মদ রব, মনির খান, মোল্লা মনির হোসেন, বাবুল হোসেনসহ মরিশাসপ্রবাসী অনেককেই তার উদ্যোগে দেশে পাঠানো হয়। সেখানে প্রতিষ্ঠা করেছেন গঠিত ইয়ং স্টার প্রবাসী কল্যাণ সংঘ। সংগঠনটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন তিনি।

এসব জনকল্যানমূলক কাজের স্বীকৃতি পেয়েছেন মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান। তাকে সম্মাননা সনদ দিয়েছে মরিশাসের বাংলাদেশ হাই কমিশন।

বিজ্ঞাপন

ইয়ং স্টার প্রবাসী কল্যাণ সংঘের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. মনোয়ার হোসেন এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানিয়েছেন।

গত ২ মে মারিশাসের রাজধানী পোর্ট লুইসে হাই কমিশনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রদূত রেজিনা আহমেদ সম্মাননা সনদ তুলে দেন। আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে হাই কমিশন প্রধান ও কাউন্সেলর (শ্রম) মো. অহিদুল ইসলাম, কাউন্সেলর (রাজনৈতিক) মো. আনিসুর রহমান এবং কমিউনিটি নেতা ও প্রবাসীরা উপস্থিত ছিলেন।

হাই কমিশনার রেজিনা আহমেদ বলেন, ‘প্রবাসে সংগ্রামী জীবনের মধ্যেও হাফিজ তার পেশার বাইরে সামাজিক ও শ্রম কল্যাণমূলক কর্মকাণ্ডে নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন। তিনি সবসময় প্রবাসীদের বিপদে-আপদে সহায়তা দিয়ে আসছেন। প্রবাসীদের বড় কোনো সমস্যা হলে তিনি হাই কমিশনকে জানান। হাফিজের এই কর্মকাণ্ড একটি দৃষ্টান্ত। এই কাজ অন্যদেরও অনুপ্রাণিত করবে।’

এসময় হাফিজ হাই কমিশনকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ‘নিজের বিবেকের তাড়নায় প্রবাসীদের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করি। এ জন্য কোন প্রাতিষ্ঠানিক স্বীকৃতি পাবো তেমন আশা কখনও করিনি। তারপরও হাই কমিশনের এমন সম্মানে নিজেকে গর্বিত মনে করছি। আমি মনে করি, এতে আরও অনেকে উৎসাহিত হবেন মানবতার সেবা আর প্রাবসীদের কল্যাণে এগিয়ে আসার জন্য।’

গত বছর মোহাম্মদ হাফিজের উদ্যোগ ও নেতৃত্বে বিশ্বের ১৪টি দেশের প্রবাসী বাংলাদেশিদের নিয়ে যাত্রা শুরু করে ‘ইয়াঙ স্টার প্রবাসী কল্যাণ সংঘ’। অনলাইনভিত্তিক সংগঠনটির সভাপতির দায়িত্ব আছেন তিনি। সংগঠনটির উদ্যোগে অসুস্থ প্রবাসীর চিকিৎসা সহায়তা, মরদেহ দেশে প্রেরণ, নতুন প্রবাসীদের ভাষা শেখার সহযোগিতাসহ নানা ধরনের কল্যাণমূলক কাজের পাশাপাশি দেশের শীতার্ত মানুষকে কম্বল বিতরণসহ নানা ধরণের সেবামূলক কাজ চলছে।

সারাবাংলা/আরডি/এসএমএন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন