সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং , ৮ আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২৩ মুহাররম, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

‘সরকারিতে ৩৪০, বেসরকারিতে আইসিইউ ৫৭৩টি ’

মে ২১, ২০১৯ | ৫:৪৯ অপরাহ্ণ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: সারা দেশের সরকারি হাসপাতালে ৩৪০ ও বেসরকারি হাসপাতালে ৫৭৩টি আইসিইউ ইউনিট রয়েছে। মঙ্গলবার (২১ মে) স্বাস্থ্য অধিদফতরের হাসপাতাল ও ক্লিনিকসমূহের পরিচালক ডা. মো. আমিনুল হাসানের দেওয়া এক প্রতিবেদন থেকে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আদালতকে এসব তথ্য জানান।

বিজ্ঞাপন

এছাড়া বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে ৩৪৪টি সিসিইউ ইউনিট রয়েছে। তবে এই তালিকা হালনাগাদের কাজ চলমান আছে বলেও আদালতকে জানায় রাষ্ট্রপক্ষ। আদালতের নির্দেশে সরকারি-বেসরকারি হাসপাতাল-ক্লিনিকে ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট (আইসিইউ) এবং করোনারি কেয়ার ইউনিট (সিসিইউ) এর এই তালিকা দাখিল করা হয়।

ওই প্রতিবেদনে আদালতকে আরও জানানো হয়, হাসপাতালে প্রতিটি ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট (আইসিইউ) বেড স্থাপনের জন্য খরচ গড়ে প্রায় ৫৩ লাখ টাকা এবং প্রতিটি করোনারি কেয়ার ইউনিট (সিসিইউ) বেড স্থাপনের জন্য খরচ গড়ে প্রায় ২৩ লাখ টাকা প্রয়োজন হতে পারে।

পরে বিচারপতি জেবিএম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ বিষয়ে ২৬ জুনের মধ্যে আইসিইউ ও সিসিইউ এর হালনাগাদ তালিকা জমা দেওয়ার আদেশ দেন।

হাসপাতাল ক্লিনিকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার মূল্য তালিকা টানাতে হবে

বিজ্ঞাপন

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হোসেন সাজু। রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী ড. বশির আহমেদ।

হিউম্যান রাইটস ল’ইয়ার্স অ্যান্ড সিকিউরিং এনভায়রনমেন্ট সোসাইটি অব বাংলাদেশের পক্ষে কোষাধ্যক্ষ মো. শাহ আলম গত জুলাই মাসে এ রিট দায়ের করেছিলেন। রিটের পর গত বছরের ২৪ জুলাই বেসরকারি ক্লিনিক/হাসপাতাল ল্যাবরেটরি ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মূল্য তালিকা এবং ফি পাবলিক প্লেসে ১৫ দিনের মধ্যে প্রদর্শনের নির্দেশ দেন হাইকোর্ট।

সারাবাংলা/এজেডকে/এমও

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন