বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট, ২০১৯ ইং , ৭ ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২০ জিলহজ, ১৪৪০ হিজরি

বিজ্ঞাপন

শুরু হলো জাতীয় শিশু-কিশোর প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা

মে ২৩, ২০১৯ | ২:০১ পূর্বাহ্ণ

সারাবাংলা ডেস্ক

ঢাকা: তথ্য প্রযুক্তিনির্ভর আগামীর পৃথিবীকে নেতৃত্ব দিতে তৈরি হচ্ছে বাংলাদেশ। তারই ধারাবাহিকতায় শিশু-কিশোরদের প্রোগ্রামিংয়ে আগ্রহী করে গড়ে তুলতে গত বছরের ন্যায় এবারও আয়োজন করা হচ্ছে ‘জাতীয় শিশু কিশোর প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা ২০১৯’। বুধবার (২২ মে) রাজধানীর কৃষিবিদ ইন্সটিটিউট বাংলাদেশ (কেআইবি) কনফারেন্স হলে শিক্ষকদের প্রশিক্ষণের মধ্য দিয়ে শুরু হয় প্রতিযোগিতার দ্বিতীয় আসর।

ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের লক্ষ্যে ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে তথ্য প্রযুক্তিতে দক্ষ করে গড়ে তুলতে সরকারের আইসিটি ডিভিশন ও তারুণ্যের প্লাটফর্ম ‘ইয়াং বাংলা’র আয়োজনে এবার দেশের ৬৪ জেলায় ২০০টি ‘শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাবকে’ কেন্দ্র করে এই প্রতিযোগিতা হবে। এ জন্য সারাদেশের ৪০০ জন শিক্ষক, ২০০ জন ল্যাব কো-অরর্ডিনেটরসহ মোট ৬০০ জনকে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হচ্ছে। মঙ্গলবার (২২মে) স্ক্র্যাচ প্রোগ্রামিং বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয় শিক্ষকদের। বুধবার (২৩ মে) পাইথন ভাষার ওপর শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে।

দেশের সবচাইতে বড় তারুণ্যের প্লাটফর্ম ইয়াং বাংলা ও সরকারের তথ্য প্রযুক্তি বিভাগের যৌথ উদ্যোগে শিশুদের ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, আইনজীবী হওয়ার পাশাপাশি একজন প্রোগ্রামার হওয়ার মানসিকতা সৃষ্টির প্রচেষ্টা থেকে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন।

আয়োজকরা জানান, তৃতীয় শ্রেণীর শিশু থেকে দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থীরা এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করবে। ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন পূরণের জন্য তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক জ্ঞান সম্পন্ন দক্ষ এবং যোগ্যতা সম্পন্ন একটি প্রজন্ম তৈরিতে সহায়তা করবে জাতীয় প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা। সেই সঙ্গে নিজ শিশুকে প্রোগ্রামার হিসেবে ক্যারিয়ার গড়ার জন্য অনুপ্রেরণা দিতে অভিভাবকদের মাঝেও ইতিবাচক এক মনোভাব সৃষ্টি করেছে জাতীয় শিশু-কিশোর প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা।

বিজ্ঞাপন

আয়োজন প্রসঙ্গে সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশনের (সিআরআই) অ্যাসোসিয়েট কো-অর্ডিনেটর তন্ময় আহমেদ বলেন, গতবারের ন্যায় জাতীয় শিশুকিশোর প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় এবারও শিক্ষকদের জন্য প্রশিক্ষণ কর্মসূচি রাখা হয়েছে। প্রোগ্রামিংয়ে শিক্ষার্থীদের আগ্রহী করে তোলা এবং তাদের আগ্রহের জায়গাটি উপভোগ্য করতে শিক্ষকদের এই প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

সারাবাংলা/এমএইচ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন