বুধবার ১১ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ২৭ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৩ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

ঈদে তুহিন হোসেনের তিন নাটক, এক টেলিছবি

মে ২৫, ২০১৯ | ২:২০ অপরাহ্ণ

এন্টারটেইনমেন্ট করেসপন্ডেন্ট

দরজায় কড়া নাড়ছে ঈদ। প্রতি বছর ঈদ উপলক্ষে টেলিভিশন চ্যানেলগুলো একাধিক নাটক ও টেলিছবি প্রচার করে থাকে। সেই সব নাটক ও টেলিছবি নির্মাণের দায়িত্ব গিয়ে বর্তায় নাট্য নির্মাতাদের ঘাড়ে। এবারও তার ব্যতিক্রম ঘটছে না।

বিজ্ঞাপন

বরাবরের মতো এবছরও টেলিভিশনের জন্য একাধিক নির্মাতা একাধিক নাটক নির্মাণ করছেন। অনেকে সেই সংখ্যাটা দুইয়ের ঘর ছাড়িয়ে ফেলেছেন। আবার অনেকে এক অংকের ঘর নিয়ে খুশি। ধরা যাক, নির্মাতা তুহিন হোসেনের কথা। এবার ঈদুল ফিতরে তিনি সবমিলিয়ে চারটি নাটক নির্মাণ করছেন। যার মধ্যে টেলিছবি একটি, বাকি তিনটি খণ্ডনাটক।

বিজ্ঞাপন

তুহিন হোসেন পরিচালিত একমাত্র টেলিছবিটির নাম ‘চুল তার কবেকার’। চ্যানেল আইতে প্রচারিতব্য টেলিছবিটিতে অভিনয় করেছেন সারিকা ও মিশু সাব্বির। এই টেলিছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমে দীর্ঘদিন পর আবার অভিনয়ে ফিরলেন সারিকা।


আরও পড়ুন :  ব্যবসায়ী ক্যাটরিনা


এছাড়া ‘শেষ পর্যন্ত তোমাকে চাই’ নাটকে অভিনয় করেছেন অপূর্ব ও মেহজাবিন জুটি। বাংলাভিশনে প্রচারিত হবে এটি। বাংলাভিশনের জন্য ‘অন্যদিন’ নামে আরও একটি নাটক নির্মাণ করছেন তিনি। সারিকা ও জোভানকে দেখা যাবে এতে। আর শেষ নাটকটির নাম ‘পোর্টেট’। এই নাটকেও থাকছেন সারিকা এবং তার সঙ্গে পর্দা ভাগাভাগি করবেন সালাহউদ্দিন লাভলু।

নিজের নাটক সম্পর্কে তুহিন হোসেন বলেন, ‘দেখুন আমি বেশ অন্তর্মুখী মানুষ। নিজের সৃষ্টির প্রচার করিনা। অনেকটা আড়ালে থাকা নির্মাতা বলতে পারেন। আড়ালে থাকলেও, আমি সবসময় আমার নাটক বা টেলিছবির গল্পকে আড়াল করে রাখিনা। আমি এমন সব গল্প নিয়ে কাজ করি যেসব নাটকের ভাবনার দরজা খুলে খুলে দেয়। উপলব্ধির জায়গা তৈরি করে। রোমান্টিক গল্পের নাটক হলেও সেগুলোর মধ্যে গল্পে বৈচিত্র্যতা আনার চেষ্টা করি।’

তিনি আরও বলেন, ‘এবার ঈদের যে চারটি নাটক নির্মাণ করছি সেগুলোর গল্প প্রত্যেকটি আলাদা। মানুষ যেভাবে নাটকে তার প্রিয় অভিনয়শিল্পীর অভিনয় দেখে অভ্যস্ত তার সাথে সংগতি রেখে চরিত্রের ভিন্নতা আনার চেষ্টা করেছি।’

কথায় কথায় তুহিন হোসেন বলছিলেন, নাটকের বাজার ভালো যাচ্ছে না। এর জন্য কর্পোরেট কোম্পানিগুলোকে দায়ি করছিলেন তিনি। বিষয়টি একটু খোলাসাভাবে জানতে চাইলে এই নির্মাতা বলেন, ‘অপ্রিয় হলেও সত্য, গেলো কয়েক বছর ধরে নাটক চলে গেছে কর্পোরেট কোম্পানির হাতে। তারা নিজেরা তাদের কিছু পছন্দের পরিচালক দিয়ে ১০–১২টির মতো নাটক বানিয়ে নিচ্ছেন। এতে করে যারা কর্পোরেট কোম্পানির ঘরের নির্মাতা না, তারা বিপাকে পড়ে যান।’

কর্পোরেট কোম্পানিগুলের এরকমক এক চোখা মনোভাবগুলো পরিহার করতে পারলে অনেক ভালো নির্মাতা বেরিয়ে আসবে বলে তুহিন হোসেন মনে করেন। সেজন্য টেলিভিশন চ্যানেলগুলোকেও দায়িত্বশীল হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

সারাবাংলা/আরএসও


আরও পড়ুন :

.   ওরা তিনজন ছাড়া হলিউডে কোনো তারকা নেই: কুয়েন্তিনো তারান্তিনো

.   নজরুল ও আমি যতটা কাছের, ঠিক ততটাই দূরের: ফাতেমা তুজ জোহরা


বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন