রবিবার ১৬ জুন, ২০১৯ ইং , ২ আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১২ শাওয়াল, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

বৃষ্টি-মেঘের দিন

জুন ৩, ২০১৯ | ১১:২২ পূর্বাহ্ণ

সিরাজুম মুনিরা, সিনিয়র নিউজরুম এডিটর

গতকালই বলেছিলাম যে বৃষ্টি থাকবে। তো সেটাই হয়েছে, রাতভর বৃষ্টিতে বেশ আরামেই ঘুমিয়েছেন দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের মানুষ। রাজধানীবাসীও সেই আরাম থেকে বঞ্চিত হননি।

আবহাওয়া অফিস বলছে, এমন বৃষ্টিস্নাত, আরামের আবহাওয়া থাকবে আরও কয়েকদিন। ৭ তারিখ পর্যন্ত থাকতে পারে বৃষ্টি, তবে দুই একদিন পর এর মাত্রা কমবে। অর্থাৎ বৃষ্টি হলেও তার পরিমাণ হবে কম।

এক পূর্বাভাসে আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, সোমবার (৩ মে) সকাল ১০ টা থেকে পরবর্তী ৩/৪ ঘণ্টা কুমিল্লা, নোয়াখালী, সিলেট, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার অঞ্চলের ওপর দিয়ে দমকা বা ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এরসঙ্গে থাকবে বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি।

আবহাওয়াবিদ বজলুর রশিদ সারাবাংলাকে বলেন, আগামী দুই-তিন দিন বৃষ্টি কিছুটা কমবে। দেশের দক্ষিণাঞ্চলে বৃষ্টি হলেও উত্তরাঞ্চলে কম হবে। তবে সবখানেই বৃষ্টির পরিমাণ কমে যাবে। গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকায় ২০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে জানিয়ে এই কর্মকর্তা বলেন, দেশের সবচয়ে বেশি বৃষ্টিপাত হয়েছে বগুড়ায়। সেখানে ১৩৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

সমুদ্রবন্দরগুলোতে কোনো সংকেত নেই জানিয়ে বজলুর রশিদ বলেন, তবে চট্টগ্রাম, কুমিল্লা ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নদীগুলোকে ২ নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, লঘুচাপের একটি বির্ধত অংশ বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল হয়ে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ থেকে উত্তর-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে অবস্থার করছে। এর প্রভাবে ঢাকা, ময়মনসিংহ, নংপুর, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় অস্থায়ী দমকা বা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সারাদেশে কমতে পারে দিন ও রাতের তাপমাত্রা।

উপগ্রহের হিসাব বলছে, রাজধানীতে কয়েক পশলা বৃষ্টি হতে পারে। সেইসঙ্গে হতে পারে বজ্রবৃষ্টিও। তাই ঢাকাবাসীকে সাবধানে থাকার পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছি। যেহেতু মঙ্গলবার (৪ মে) থেকে শুরু হচ্ছে সরকারি ছুটি, তাই আজই অফিস শেষে বেশিরভাগ মানুষ ঢাকা ছাড়বেন। অন্তত বাস টার্মিনাল বা ট্রেন স্টেশনে যাওয়ার পথে যেন বৃষ্টিতে ভিজে একশা হতে না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতেই হবে। ব্যাগভর্তি ঈদের নতুন পোশাক ভিজিয়ে ফেলাটা আর যাই হোক, সুখের হবে না, তাই না?

সবার বাড়িফেরা নিরাপদ হোক।

সারাবাংলা/এসএমএন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন