বুধবার ২৬ জুন, ২০১৯ ইং , ১২ আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২২ শাওয়াল, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

দুই হ্যাটট্রিকের লক্ষ্যে টাইগাররা মুখোমুখি ইংল্যান্ডের

জুন ৭, ২০১৯ | ১১:০৯ অপরাহ্ণ

বিশ্বকাপ ডেস্ক

বিশ্বকাপ মহারণের মঞ্চে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ! শুনলেই সুখকর অতীত কড়া নাড়ে টাইগারদের আর তাদের সমর্থকদের মনের দরজায়। ২০১১ বিশ্বকাপে ঘরের মাঠে মাহমুদউল্লাহ-শফিউলের পারফরম্যান্সে ভর করে অবিশ্বাস্য জয় কিংবা অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে রুবেলের মহাকাব্যিক বোলিংয়ে ইংলিশদের বধ। শনিবার (৮ জুন) কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেনসে বিশ্বকাপে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে থ্রি লায়ন্সদের মুখোমুখি হবে টাইগাররা। বাংলাদেশ সময় দুপুর সাড়ে তিনটায় শুরু হবে ম্যাচটি।

টানা দুই বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। আর এই আত্মবিশ্বাস নিয়েই ওয়েলসের কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেনস স্টেডিয়ামে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামবে টিম বাংলাদেশ। সোফিয়া গার্ডেনসকে বাংলাদেশের লাকি ভেন্যু বলা হয়। এই ভেন্যুতেই ২০০৫ সালে অস্ট্রেলিয়াকে ৫ উইকেটে ও ২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে নিউজিল্যান্ডকে ৫ উইকেটে হারায় বাংলাদেশ। কার্ডিফে তৃতীয় জয়ের অপেক্ষায় বাংলাদেশ দল। জিতলে কার্ডিফে হবে জয়ের হ্যাটট্রিক, সেই সাথে টানা তিন বিশ্বকাপে ইংলিশদের হারানোর বিরল রেকর্ডের হ্যাটট্রিক।

দুই দলের অবস্থান:
আইসিসির প্রকাশিত সবশেষ র‌্যাংকিংয়ে ইংল্যান্ড আছে সবার শীর্ষে। ইংলিশদের রেটিং পয়েন্ট ১২৫, আর সেখানে টাইগারদের রেটিং পয়েন্ট ৯০। শীর্ষ থাকা ইংলিশদের সাথে র‌্যাংকিংয়ের পার্থক্য ছয় আর রেটিং পয়েন্টের ব্যবধান ৩৫।

তবে র‌্যাংকিং দিয়ে এই বিশ্বকাপে বাংলাদেশকে মাপা বোকামি। মহারণের মাঠে ব্যাট-বলে দুর্দান্ত পারফর্ম করেই প্রতিপক্ষের জন্য হুমকি দিয়ে রাখছে টাইগাররা। এবার সেই লড়াইয়ে ইংলিশদের মুখোমুখি দাঁড়িয়ে হুঙ্কার ছাড়ছে টিম টাইগার্স। বিশ্বকাপের মঞ্চে ইংলিশদের বিপক্ষে সাফল্য যে টাইগারদেরই বেশি।

বিজ্ঞাপন

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের মতো বাংলাদেশেরও যাত্রা শুরু দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে। আর দু’দলই জিতেছে প্রোটিয়াদের বিপক্ষে। ইংলিশরা প্রোটিয়াদের বিপক্ষে পেয়েছিল ১০৪ রানে বড় জয়। আর টাইগারদের জয় ছিল ২১ রানের। দ্বিতীয় ম্যাচে অবশ্য হারের মুখ দেখেছে দু’দলই। কিউইদের বিপক্ষে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই করে টাইগাররা হেরেছে মাত্র ২ উইকেটে আর পাকিস্তানের বিপক্ষে হেরেছে ইংলিশরা। দ্বিতীয় ম্যাচে ইংলিশদের হোঁচট পাকিস্তানের বিপক্ষে ১৪ রানে হেরে। এই পাকিস্তানকেই বিশ্বকাপে শুরুর আগে ঘরের মাঠেই ৪-০ ব্যবধানে ধবলধোলাই করেছিল থ্রি লায়ন্সরা।

প্রতি ম্যাচেই নিজেদের ছাড়িয়ে যাওয়ার প্রত্যয় ইংলিশদের। ফর্মে আছেন দলের টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান থেকে শুরু করে লোয়ার অর্ডার ব্যাটসম্যান পর্যন্ত সবাই। আর বোলাররাও আছেন অগ্নিঝরা ফর্মে। জোফরা আর্চার, মার্ক উডদের নিয়ে গড়া পেস লাইন আপও আছে বিধ্বংসী ফর্মে।

ইংলিশদের থেকে কোনো অংশে পিছিয়ে নেই টিম বাংলাদেশ। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান আছেন দারুণ ফর্মে। ব্যাট-বল উভয় ক্ষেত্রেই মাতাচ্ছেন মাঠ। দলকে সামনে থেকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন সাকিবই। ইংলিশদের বিপক্ষে এই ম্যাচে আবারও ঘুরে দাঁড়াতে দৃঢ় প্রত্যয় টাইগারদের। আর অনুপ্রেরণা হিসেবে থাকবে ২০১১ আর ২০১৫ বিশ্বকাপে ইংলিশদের বিপক্ষের জয় দু’টি।

ভেন্যু:
কার্ডিফে অবস্থিত সোফিয়া গার্ডেনস ক্রিকেট গ্রাউন্ড। স্টেডিয়ামটি ১৯৬৭ সালে নির্মিত হলেও আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামের মর্যাদা লাভ করে ১৯৯৯ সালে। সে বছর বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়া এবং পাকিস্তানের মধ্যকার ম্যাচ দিয়েই অভিষেক ঘটে সোফিয়া গার্ডেনসের। প্রায় ১৫ হাজার দর্শক ধারণ ক্ষমতার স্টেডিয়ামটির টেস্ট অভিষেক ঘটে ২০০৯ সালের অ্যাশেজ দিয়ে। আর বিশ্বকাপ ম্যাচ দিয়ে শুরু হওয়া একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচে এই মাঠে সর্বোচ্চ সংগ্রহ ৩৪২ রান। এখন পর্যন্ত ২৫টি একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট আয়োজিত হয়েছে এখানে। সোফিয়া গার্ডেনসে সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ ইংল্যান্ডের। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ২০১৮ সালে ৩২৪ রান তোলে ইংলিশরা। আর এখানে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রান তোলেন অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান শন মার্শ। ইংলিশদের বিপক্ষে ১৩১ রানের ইনিংস খেলেন তিনি।

সোফিয়া গার্ডেনসে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের রয়েছে সুখকর স্মৃতি। ২০১৭ সালে অনুষ্ঠিত আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে এই মাঠেই টাইগাররা বধ করেছিল কিউইদের। আর এই মাঠেই জোড়া সেঞ্চুরির দেখা পেয়েছিলেন সাকিব ও মাহমুদউল্লাহ।

সোফিয়া গার্ডেনসের একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের ইতিহাসে সর্বোচ্চ জুটি গড়েছিলেন বাংলাদেশের সাকিব আল হাসান এবং মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। যেকোন উইকেট জুটিতে সর্বোচ্চ ২২৪ রানের জুটি গড়েছিলেন এই দুই টাইগার ক্রিকেটার।

বিশ্বকাপে হেড টু হেড মোট ম্যাচ: ৩টি, বাংলাদেশ জয়ী: ২টি। ইংল্যান্ড জয়ী: ১টি। মুখোমুখি দুই দল মোট ম্যাচ: ২০টি। বাংলাদেশ জয়ী: ৪টি। ইংল্যান্ড জয়ী: ১৬টি। ড্র: ০টি ম্যাচ পরিত্যক্ত: ০টি।

দৃষ্টি থাকবে যাদের ওপর: সাকিব আল হাসান, মোস্তাফিজুর রহমান (বাংলাদেশ), ইয়ন মরগান, জোফরা আর্চার (ইংল্যান্ড)।

বিশ্বকাপে বাংলাদেশ স্কোয়াড: মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান (সহ-অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোস্তাফিজুর রহমান, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, লিটন কুমার দাস, সৌম্য সরকার, রুবেল হোসেন, মেহেদি হাসান মিরাজ, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, মোহাম্মদ মিঠুন, আবু জায়েদ রাহি, সাব্বির রহমান।

বিশ্বকাপে ইংল্যান্ড স্কোয়াড: ইয়ন মরগান (অধিনায়ক), মঈন আলি, জনি বেয়ারস্টো, জস বাটলার, টম কুরান, জোফরা আর্চার, লিয়াম ডসন, জেমস ভিঞ্চ, লিয়াম প্লাংকেট, আদিল রশিদ, জো রুট, জ্যাসন রয়, বেন স্টোকস, ক্রিস ওকস এবং মার্ক উড।

বাংলাদেশের দর্শকরা বিশ্বকাপের সব ম্যাচ অনলাইনে কোনো ধরনের সাবস্ক্রিপশন ফি বা চার্জ ছাড়াই দেখতে পারবেন র‍্যাবিটহোলের ওয়েবসাইট www.rabbitholebd.com-এ। এছাড়া র‍্যাবিটহোলের অ্যাপেও দেখা যাবে প্রতিটি ম্যাচ। অ্যাপটি অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীরা ডাউনলোড করতে পারবেন https://goo.gl/UNCWS2 (শুধুমাত্র বাংলাদেশ) এই লিংকে ক্লিক করে। তাছাড়া আইওএস ব্যবহারকারীরা ডাউনলোড করতে পারবেন https://goo.gl/vJjyyL (শুধুমাত্র বাংলাদেশ) এই লিংকে ক্লিক করে।

সারাবাংলা/এসএস/এমআরপি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন