শুক্রবার ২১ জুন, ২০১৯ ইং , ৭ আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৭ শাওয়াল, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

বিশ্বকাপে বৃষ্টির রেকর্ড

জুন ১২, ২০১৯ | ১০:১৯ পূর্বাহ্ণ

বিশ্বকাপ ডেস্ক

আবারও বৃষ্টিতে ভেসে গেল বিশ্বকাপের আরও একটি ম্যাচ। মঙ্গলবার (১১ জুন) বাংলাদেশ বনাম শ্রীলঙ্কা ম্যাচে টসটাও গড়ায়নি ব্রিস্টলের মাঠে। আর এতেই দু’দল ভাগ করে নিল একটি করে পয়েন্ট। এই নিয়ে বিশ্বকাপে দু’টি ম্যাচ বাতিল হয়ে গেল শ্রীলঙ্কার। আর এদিকে সেমিফাইনালের স্বপ্নে বিভোর বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচ ভেস্তে গেল।

বিশ্বকাপে মোট চার ম্যাচ শেষে চার পয়েন্ট নিয়ে পাঁচ নম্বরে অবস্থান করছে শ্রীলঙ্কা। সমান সংখ্যক ম্যাচে এক জয় দুই পরাজয় আর একটি ড্র’য়ে তিন পয়েন্ট টাইগারদের। ইতিমধ্যেই তাই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে আইসিসির সময়সূচী নিয়ে।

ক্রিকেটে যখন ‘টাইমিং’ অন্যতম অস্ত্র তা হলে আইসিসি কিভাবে তাদের ‘টাইমিং‌’ ভুল করলো? গুঞ্জন উঠেছে আইপিএলের জন্যই নাকি বিশ্বকাপ শুরু করতে একটু দেরি করেছে আইসিসি।

ইংল্যান্ডের আবহাওয়াটাই এমন যে সারা বছরই বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকে। জুন, জুলাই মাস নিয়ে ইংল্যান্ডের গ্রীষ্মকাল তারপরেও এই সময়টাতে বৃষ্টির পরিমান বেশি। ইংল্যান্ডের বেশির ভাগ টেস্ট সিরিজ কিংবা কাউন্টি ক্রিকেট লিগ শেষ হয়ে এপ্রিল আর মে মাসে। নতুন মৌসুম শুরু হয় অক্টোবরে।

বিজ্ঞাপন

তবে এই উদ্ভট সময়ে বিশ্বকাপ কেন আয়োজনের সিদ্ধান্ত আইসিসির? প্রশ্নের উত্তরমেলেনি এখনো। উইন্ডিজ কিংবদন্তি ক্রিকেটার এবং বর্তমানে ধারাভাষ্যকার ব্রায়ান লারা এই পরিস্থিতিতে বেশ ক্ষুব্ধ। তিনি মনে করছেন, ‘বৃষ্টির সমস্যার কারণে সেমিফাইনালের দলগুলোকে বাছতে অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে আইসিসিকে। আর শ্রীলঙ্কার বিপিক্ষে ম্যাচ বাতিল হওয়ায় সব থেকে বেশি অসুবিধা হলো বাংলাদেশের। ওরা বেশ ছন্দে রয়েছে, শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে দেওয়ার সম্ভবনাও ছিল ওদের।’

শেষ চারদিনে তিনটি ম্যাচ বাতিল করতে হয়েছে। ৭ জুন পাকিস্তান শ্রীলঙ্কার ম্যাচ দিয়ে শুরু আর শেষটাও সেই শ্রীলঙ্কার আর বাংলাদেশের ম্যাচ দিয়ে। মাঝখানে সক্ষিণ আফ্রিকা আর উইন্ডিজের মধ্যকার ম্যাচটিও পরিত্যক্ত হয়েছে।

চলতি বিশ্বকাপে ইতোমধ্যেই রেকর্ড তিনটি ম্যাচ বৃষ্টিতে পণ্ড হয়ে গেছে। এরমধ্যে দুটি ম্যাচে টসও করা সম্ভব হয়নি। এই আসরে এ পর্যন্ত ১৬টি ম্যাচের তিনটি ম্যাচ ভেসে গেছে বৃষ্টিতে। এর আগে সবচেয়ে বেশি ১৯৯২ ও ২০০৩ বিশ্বকাপে দুটি করে ম্যাচ বাতিল হয়েছে।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জিততে পারলে সেমিফাইনাল খেলার সুযোগটা আরও চওড়া হতো টাইগারদের। আর তাই তো সমর্থক থেকে শুরু করে টাইগার ক্রিকেটাররাও ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়ার বেশ ক্ষুদ্ধ।

টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা বলেন, ‘মাঠে এসে খেলতে না পারলে খারাপ তো লাগবেই। তার উপর বিশ্বকাপের মতো প্রতিযোগিতা। যার জন্য চার বছর ধরে দল গড়ার প্রক্রিয়া চলে। যাই হোক আগামী ম্যাচ উইন্ডিজদের বিপক্ষে। আশা করি তার মধ্যে চোট সারিয়ে উঠবে সাকিব।’

এ বিষয়ে কথা বলেছেন শ্রীলঙ্কার অধিনায়কও। লঙ্কান অধিনায়ক দিমুথ করুণারত্নের বলেন, ‘আমাদের দু’টি ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেস্তে গেল। দলের উপর চাপ অনেক বাড়ছে। আগামী প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া। দেখা যাক সে ম্যাচটা মাঠে গড়ায় কিনা।’

আর বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে নেই কোনো রিজার্ভ ডে। তাই তো এই ব্যাপারটি নিয়ে বেশ চটেছেন টাইগারদের প্রধান কোচ স্টিভ রোডস। তিনি তো বলেই ফেলেছেন, ‘আমরা চাঁদে মানুষ পাঠাতে পারলে বিশ্বকাপে রিজার্ভ ডে কেন রাখতে পারি না?’

বাংলাদেশ আগামী ১৭ জুন নটিংহ্যামের ট্রেন্ট ব্রিজে উইন্ডিজের বিপক্ষে নিজেদের পঞ্চম ম্যাচ খেলতে মাঠে নামবে।

বাংলাদেশের দর্শকরা বিশ্বকাপের সব ম্যাচ অনলাইনে কোনো ধরনের সাবস্ক্রিপশন ফি বা চার্জ ছাড়াই দেখতে পারবেন র‍্যাবিটহোলের ওয়েবসাইট www.rabbitholebd.com-এ। এছাড়া র‍্যাবিটহোলের অ্যাপেও দেখা যাবে প্রতিটি ম্যাচ। অ্যাপটি অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীরা ডাউনলোড করতে পারবেন https://goo.gl/UNCWS2 (শুধুমাত্র বাংলাদেশ) এই লিংকে ক্লিক করে। তাছাড়া আইওএস ব্যবহারকারীরা ডাউনলোড করতে পারবেন https://goo.gl/vJjyyL (শুধুমাত্র বাংলাদেশ) এই লিংকে ক্লিক করে।

আরও পড়ুন: বিষণ্ণ বিকেলে বাকের ভাইয়ের মুগ্ধতা

সারাবাংলা/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন