সোমবার ১৪ অক্টোবর, ২০১৯ ইং , ২৯ আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৪ সফর, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

গুরুর জন্মদিনে জয় উপহার টাইগারদের

জুন ১৭, ২০১৯ | ১১:২৫ অপরাহ্ণ

বিশ্বকাপ ডেস্ক

গুরুর জন্মদিনে শিষ্যদের তরফ থেকে এর চেয়ে দারুণ উপহার আর কী হতে পারে! হয়তো গুরু নিজেও এর চেয়ে বেশি কিছু চাইতেন না। প্রিয় কোচকে ম্যাচ জয় দিয়েই জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানালো শিষ্যরা।

বিজ্ঞাপন

আজ সোমবারেই (১৭ জুন) ৫৬-তে পা রাখলেন স্টিভ রোডস। ১৯৬৪ সালের এই দিনে যুক্তরাজ্যের ব্রাডফোর্ডের ইয়োর্কশায়ারে এক ক্রিকেট পরিবারে জন্মেছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের এই প্রধান কোচ। বাবা উইলিয়াম রোডসও ছিলেন ক্রিকেটার। কাউন্টিতে নটিংহ্যাম্পশায়ারের হয়ে খেলেছিলেন ৩০ বছর। ছেলে জর্জ রোডসও খেলছেন ক্রিকেট।

খেলোয়াড়ি জীবনে স্টিভ রোডস ছিলেন উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান। যদিও ইংলিশদের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খুব বেশি ম্যাচ খেলেননি। ২২ টেস্ট ও ৯টি ওয়ানডেতেই সীমাবদ্ধ ছিল তার ক্যারিয়ার। তবে প্রথম শ্রেণির ক্যারিয়ারে ছিল বেশ লম্বা ও সমৃদ্ধ। ইংল্যান্ডে প্রথম শ্রেণির লম্বা ক্যারিয়ার মানেই ক্রিকেটের বেসিক সম্পর্কে দারুণ জ্ঞান থাকা চাই। আর সে জ্ঞানই হয়তো তাকে বানিয়েছে সফল কোচও।

কাউন্টিতে খেলেছেন ১৯৮১ থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত। উস্টারশায়ার ও ইয়র্কশায়ারের হয়ে খেলা হয়েছে ৪৪০টি ফার্স্টক্লাস ম্যাচ। এর পর শুরু হয় কাউন্টিতে কোচিং ক্যারিয়ার। সেই ক্যারিয়ার তার আরও সমৃদ্ধ। যদিও বাংলাদেশের কোচ হওয়ার আগে কোনো জাতীয় দলকে কোচিং করাননি। তবে ২০০৬ সাল থেকে শুরু করা কাউন্টি কোচিং ক্যারিয়ারে উস্টারশায়ারকে বহু সাফল্য এনে দিয়েছিলেন।

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ দলের কোচ হওয়ার গল্পটা অনেকটাই অবাক করার মতো ছিল। কোনো দেশকে কোচিং না করালেও বিসিবি রতন চিনতে ভুল করেনি। ২০১৮ সালের জুনে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে কোচিং করানোর অভিজ্ঞতাহীন রোডসকে দুই বছরের দায়িত্ব দেয় বিসিবি। এরপর বেশকিছু সাফল্য ধরা দেয় তার হাত ধরে। সর্বশেষ আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজে প্রথম কোনো ট্রফি জয় করে বাংলাদেশ, যা স্টিভ রোডসের কোচিং ক্যারিয়ারেরও অন্যতম এক সাফল্য। এরপর বিশ্বকাপেও উপহার দিয়ে যাচ্ছেন চমক।

স্টিভ রোডসের জন্মদিনের এই দিনটিতে বিশ্বকাপে নিজেদের পঞ্চম ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৫১ বল হাতে রেখে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে টাইগাররা। এই জয়ে বিশ্বকাপে ৫ পয়েন্ট নিয়ে তালিকায় পঞ্চম স্থানে উঠে এলো বাংলাদেশ। কোচের জন্মদিনে শিষ্যদের তরফ থেকে এর চেয়ে বড় উপহার আর কীই বা হতে পারত?

ওয়ানডে বিশ্বকাপই শেষ নয়, ২০২০ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত বাংলাদেশ দলের দায়িত্বে থাকছেন এই ইংলিশ। সে পর্যন্ত তার হাত ধরে আরও সাফল্যের পালক যুক্ত হবে টাইগারদের, তার নিজের ক্যারিয়ারেও— এটাই নিশ্চয় টাইগার ভক্তদের প্রত্যাশা। শুভ জন্মদিন স্টিভ রোডস।

বাংলাদেশের দর্শকরা বিশ্বকাপের সব ম্যাচ অনলাইনে কোনো ধরনের সাবস্ক্রিপশন ফি বা চার্জ ছাড়াই দেখতে পারবেন র‍্যাবিটহোলের ওয়েবসাইট www.rabbitholebd.com-এ। এছাড়া র‍্যাবিটহোলের অ্যাপেও দেখা যাবে প্রতিটি ম্যাচ। অ্যাপটি অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীরা ডাউনলোড করতে পারবেন https://goo.gl/UNCWS2 (শুধুমাত্র বাংলাদেশ) এই লিংকে ক্লিক করে। তাছাড়া আইওএস ব্যবহারকারীরা ডাউনলোড করতে পারবেন https://goo.gl/vJjyyL (শুধুমাত্র বাংলাদেশ) এই লিংকে ক্লিক করে।

সারাবাংলা/ আইই

বিজ্ঞাপন
যথাযথভাবে দায়িত্ব পালনে সরকারি কর্মকর্তাদের আহ্বান রাষ্ট্রপতিরভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি হচ্ছেন গাঙ্গুলি!নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা থেকে নব্য জেএমবির দুই সদস্য আটকরাবি ভিসি-প্রো ভিসি’র পদত্যাগের দাবিতে আচার্যকে খোলা চিঠিবঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী: উদ্বোধনী অনুষ্ঠান নিয়ে বৈঠক‘বিভাজন ভুলে দেশের জন্য এক হয়ে কাজ করার শপথ নিন’বিশ্বব্যাংকের বিকল্প নির্বাহী পরিচালক হলেন শফিউল আলমচট্টগ্রামে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবলীগ নেতার মৃত্যু১৬ নভেম্বর স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ২৩ নভেম্বর যুবলীগের সম্মেলনস্ত্রীকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় মারধর-মামলা, জামিন পেলেন রহিম সব খবর...
বিজ্ঞাপন