বুধবার ১৭ জুলাই, ২০১৯ ইং , ২ শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৩ জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

তুষ্ট, তৃপ্ত, আপ্লুত রেকর্ড বয় সাকিব

জুন ২৫, ২০১৯ | ১:৩৪ পূর্বাহ্ণ

বিশ্বসেরা পারফর্মার হলে বোধ হয় এমনই হয়! বিশ্বকাপের এক ম্যাচে এত এত রেকর্ড করলেন, সেই রেকর্ডের দিনে দলও জিতল। কিন্তু তাকে দেখে বোঝার উপায় ছিল না! বুঝতে পাছেন নিশ্চয়ই কার কথা বলছি? হ্যাঁ, তিনি সাকিব আল হাসান।

বিশ্বকাপে সেমি ফাইনালের পথে নক আউট পর্বে পরিণত হওয়া ম্যাচে আফগানদের বিপক্ষে ৬২ রানের জয়ের পর লাল সবুজের এই নাম্বার ওয়ান অলরাউন্ডার সংবাদ সম্মেলনে এলেন নিরুত্তাপ বদনে। যেন কিছুই হয়নি! অন্য আট-দশটি জয়ের মতোই এই জয়টি ছিল! কিন্তু প্রশ্ন ছুঁড়েতেই বেরিয়ে এলো ভেতরের রূপ। তুষ্ট, তৃপ্ত ও আপ্লুত।

কেনই বা হবে না? ক্রিকেট দুনিয়ার দ্বিতীয় ক্রিকেটার হিসেবে বিশ্বকাপে একই ম্যাচে অর্শতক ও পাঁচ উইকেট নিলেন ওয়ানডে র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষ এই অলরাউন্ডার। যা এতদিন এককভাবে দখলে রেখেছিলেন ভারতের যুবরাজ সিং। ২০১১ বিশ্বকাপে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ফিফটি ও পাঁচ উইকেটের কীর্তি গড়েছিলেন এই ভারতীয় অলরাউন্ডার। এবার যুবরাজের পাশে নাম লেখালেন সাকিব।

বিজ্ঞাপন

সাকিবই দেশের প্রথম ক্রিকেটার যিনি এই ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপে এক হাজার রান ও ৩০ উইকেটের কীর্তি গড়লেন। আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ শেষে বিশ্বকাপে তার রান ১ হাজার ১৬ আর উইকেট ৩৩টি। এদিন ব্যাট হাতে ৫১ রান করার পর করেছেন ক্যারিয়ার সেরা বোলিং; ২৯ রানে ৫ উইকেট। বিশ্বকাপে এটাই বাংলাদেশের সেরা বোলিং। তার আগে ২০১১ বিশ্বকাপে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ২১ রানে ৪ উইকেট নিয়ে শীর্ষে ছিলেন শফিউল ইসলাম।

এখানেই শেষ নয়। বিশ্বের তৃতীয় ক্রিকেটার হিসেবে একই বিশ্বকাপে সেঞ্চুরি ও পাঁচ উইকেট নিয়েছেন এই বাঁহাতি। ১৯৮৩ সালে এই কীর্তি গড়েছিলেন ভারতের কপিল দেব। ২০১১ তে তার পাশে নাম লেখান যুবরাজ। এত এত রেকর্ড যার তিনি আপ্লুত না হয়ে পারেনই না।

সাকিবকেও তার ব্যতিক্রম দেখা গেল না, ‘ভীষণ সন্তুষ্ট। দলের এবং আমার প্রেক্ষাপটে পারফরম্যান্স যেমন প্রয়োজন ছিল তেমনি ছিল গুরুত্বপূর্ণ। সৌভাগ্যবশত আমি এটা করতে পেরেছি। সেজন্য খুবই খুশি। যেভাবে টুর্নামেন্ট যাচ্ছে, দারুণ। এই ম্যাচটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিল। সামনের ম্যাচ দুটোও গুরুত্বপূর্ণ। প্রথমটি ভারতের বিপক্ষে। ওরা টপ সাইড। জয় সহজ হবে না। কিন্তু এটা ঠিক আমরা আমাদের সেরাটা দেব।’

এই দিয়ে আপনি চারটি বিশ্বকাপ খেলছেন। বাকি তিনটির সঙ্গে এটাকে তুলনা করলে কত নাম্বারে রাখবেন? বিদেশি এক সাংবাদিকের করা এমন প্রশ্নে সাকিবের নির্লিপ্ত উত্তর, ‘আমি কখনোই আমার পারফরম্যান্সের র‌্যাংকিং করি না। ব্যাটে-বলে অবদান রাখছি এটা অবশ্যই সন্তুষ্টির। এক বিভাগে অবদান না রেখে এই বিশ্বকাপে দুটি বিভাগেই অবদান রাখছি, এটা ভীষণ আনন্দের।’

বাংলাদেশের দর্শকরা বিশ্বকাপের সব ম্যাচ অনলাইনে কোনো ধরনের সাবস্ক্রিপশন ফি বা চার্জ ছাড়াই দেখতে পারবেন র‍্যাবিটহোলের ওয়েবসাইট www.rabbitholebd.com-এ। এছাড়া র‍্যাবিটহোলের অ্যাপেও দেখা যাবে প্রতিটি ম্যাচ। অ্যাপটি অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীরা ডাউনলোড করতে পারবেন https://goo.gl/UNCWS2 (শুধুমাত্র বাংলাদেশ) এই লিংকে ক্লিক করে। তাছাড়া আইওএস ব্যবহারকারীরা ডাউনলোড করতে পারবেন https://goo.gl/vJjyyL (শুধুমাত্র বাংলাদেশ) এই লিংকে ক্লিক করে।

সারাবাংলা/এমআরএফ/এমআরপি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন