সোমবার ১৮ নভেম্বর, ২০১৯ ইং , ৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২০ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

বুধবার পর্যন্ত সময় দিলেন ছাত্রদল নেতারা

জুন ২৫, ২০১৯ | ১:৩১ অপরাহ্ণ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: ঘোষিত কাউন্সসিল বাতিলসহ বিভিন্ন দাবি আদায়ে চলমান আন্দোলন একদিনের জন্য স্থগিত করেছেন ছাত্রদলের বিক্ষুদ্ধ নেতাকর্মীরা। আগামীকাল বুধবারের (২৬ জুন) মধ্যে দাবি আদায় না হলে পরদিন থেকেই ফের আন্দোলনে নামার ঘোষণা দিয়েছেন তারা।

বিজ্ঞাপন

ছাত্রদল নেতাদের দাবি, ১৫ জুলাইয়ের কাউন্সিল বাতিল ঘোষণা করে পুনঃতফসিল দিতে হবে। পাশাপাশি ছাত্রদলের কমিটিতে স্থান পাওয়ার যোগ্যতা হিসেবে বয়সসীমা তুলে দিতে হবে।

মঙ্গলবার (২৫ জুন) দুপুর ১টার দিকে সদ্য বহিষ্কৃত ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের সহসভাপতি ইখতিয়ার মাহমুদ কবির নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এসব ঘোষণা দেন।

আরও পড়ুন- আজও অবরুদ্ধ বিএনপির কার্যালয়, ভাঙচুর

বিজ্ঞাপন

ইখতিয়ার মাহমুদ বলেন, আমরা আমাদের যৌক্তিক দাবি আদায়ে বিক্ষোভ করছি। সিনিয়র নেতাকর্মীদের পক্ষ থেকে প্রস্তাব এসেছে আমরা যেন শান্তিপূর্ণ থাকি। তাদের প্রতি সম্মান জানিয়ে আমরা আগামীকাল বুধবার বিক্ষোভ স্থগিত রাখব। যদি আগামীকালের মধ্যে আমাদের দাবি মেনে নেওয়া না হয়, তাহলে ফের রাস্তায় নামব আমরা।

ছাত্রদলের কাউন্সিল ঘিরে উদ্ভূত পরিস্থিতির জন্য একটি ‘সিন্ডিকেট’কে দায়ী করেন ছাত্রদলের এই বহিষ্কৃত নেতা। তারা শান্তিপূর্ণ থাকার পরও দাবি মেনে না হলে কোনো ধরনের ‘অনাকাঙ্ক্ষিত’ ঘটলে এর জন্য ওই ‘সিন্ডিকেট’ দায়ী থাকবে বলেও জানান তিনি।

আরও পড়ুন- ছাত্রদলের কাউন্সিল ১৫ জুলাই

ইখতিয়ার মাহমুদ কবির বলেন, আমাদের ১২ নেতাকর্মীকে বহিষ্কার করা হয়েছে। বলা হচ্ছে, দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের (তারেক রহমান) নির্দেশে তাদের বহিষ্কার করা হয়েছে। কিন্তু আমরা বিশ্বাস করি, ওই সিন্ডিকেটই নেতাকে ভুল বুঝিয়েছে। যে কারণে নেতার সই ছাড়াই বহিষ্কারের আদেশ দেওয়া হয়েছে। তাই আমাদের দাবি, ঘোষিত কাউন্সিল বাতিল করে পুনঃতফসিল দিতে হবে। সেই সঙ্গে ছাত্রদলের বয়সসীমা বাতিল করতে হবে।

এদিকে, আন্দোলন স্থগিতের ঘোষণা দিয়ে ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা চলে যাওয়ার সময় বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনের সড়কে দু’টি ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। কে বা কারা এই ককটেল বিস্ফোণ ঘটিয়েছে, তা জানা যায়নি।

এর আগে, সোমবারও (২৪ জুন) নয়াপল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ফের অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করে ছাত্রদলের একাংশ। পরে ছাত্রদলেরই আরেক অংশের সঙ্গে তাদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। একপর্যায়ে সোমবারও নয়াপল্টন কার্যালয়ে একাধিক ককটেলের বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

গত ২২ জুন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সই করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ছাত্রদলের ১২ নেতাকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়। পরদিনই ছাত্রদলের কাউন্সিলের তারিখ ঘোষণা করে বিএনপি। ঘোষণা অনুযায়ী, আগামী ১৫ জুলাই নতুন নেতৃত্ব বেছে নেবে বিএনপির এই অঙ্গসংগঠন।

কাউন্সিলের তফসিলে বলা হয়েছে, নতুন কমিটিতে নেতা হতে হলে ২০০০ সাল বা এর পরের যেকোনো বছরে এসএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে। এ সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের ফটকে তালা ঝুলিয়ে বিক্ষোভ করে ছাত্রদলের বিলুপ্ত কমিটির একাংশ। তারা নতুন কমিটিতে প্রার্থী হতে নির্ধারিত বয়সসীমা তুলে দেওয়ার দাবি জানান।

আরও পড়ুন-

বয়সসীমা বেঁধে দেওয়ায় কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ছাত্রদলের তালা

রিজভীর মধ্যরাতের বিজ্ঞপ্তি ও শিক্ষাবর্ষে আপত্তি ছাত্রদলের

সারাবাংলা/এসএইচ/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন