মঙ্গলবার ১৫ অক্টোবর, ২০১৯ ইং , ৩০ আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৫ সফর, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

‘বিএসএমএমইউতে প্রথমবারের মতো করা হয়েছে লিভার ট্রান্সপ্লান্ট’

জুন ২৫, ২০১৯ | ২:৩৪ অপরাহ্ণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) প্রথমবারের মতো লিভার ট্রান্সপ্লান্ট (প্রতিস্থাপন) করা হয়েছে। ২০ বছরের যুবকের লিভার (যকৃত) প্রতিস্থাপন করেছেন সার্জনরা।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (২৫ জুন) দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া এ কথা জানান।

তবে দেশের ইতিহাসে এটি পঞ্চম লিভার প্রতিস্থাপন। এর আগে বেসরকারি হাসপাতাল ল্যাবএইড ও বারডেম হাসপাতালে দুটি করে মোট চারটি লিভার প্রতিস্থাপন করেছিলেন চিকিৎসকরা।

বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সোমবার (২৪ জুন) ভোর ৬টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত লিভার প্রতিস্থাপনের কার্যক্রম চলে। এই কার্যক্রমে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের চিকিৎসক, নার্স, ওয়ার্ডবয়সহ প্রায় ৬০ জনের একটি টিম কাজ করে।

বিজ্ঞাপন

বিষয়ে কনক কান্তি বড়ুয়া জানান, এই কার্যক্রম শুরু হলো। আগামী মাসে আরও দুটি লিভার প্রতিস্থাপনের কাজ তারা করবেন।

লিভার সিরোসিসে আক্রান্ত রোগীর একমাত্র চিকিৎসা লিভার ট্রান্সপ্লান্ট উল্লেখ করে কনক কান্তি বড়ুয়া বলেন, ‘এই চিকিৎসা বাংলাদেশ করতে কমপক্ষে ৫০ লাখ টাকা ব্যয় হয়, তারচেয়েও বড় কথা দেশে লিভার ট্রান্সপ্লান্টে চিকিৎসা ব্যবস্থা নেই বললেই চলে। আবার লিভার ট্রান্সপ্লান্ট করাতে প্রায় পাঁচ শতাধিক রোগী প্রতিবছর দেশের বাইরে যায়। যেখানে সিঙ্গাপুরে ২ কোটি আর ভারতে প্রায় ১ কোটি টাকা দরকার হয়। সেখানে বিএসএমএমইউতে এই লিভার প্রতিস্থাপন করা হয়েছে বিনামূল্যে। আর এর মধ্যে দিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় আধুনিক, উন্নত চিকিৎসাবিজ্ঞানে আরও একধাপ এগিয়ে গেল।’

লিভার ট্রান্সপ্লান্টকারী দলের নেতৃত্বে ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের হেপাটোবিলিয়ারি ও প্যানক্রিয়েটিক ও লিভার ট্রান্সপ্লান্ট বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. মো. জুলফিকার রহমান খান।

তিনি বলেন, ‘২০ বছরের ছেলেকে লিভার ডোনেট করেছেন তার ৪৯ বছর বয়সী মা। তারা দুজনই এখন পর্যন্ত সুস্থ আছেন, তাদের জ্ঞান ফিরেছে, কথাও বলছেন।’

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক ও স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব মো. আসাদুল ইসলামসহ অনেকে।

সারাবাংলা/জেএ/এমও/এমআই

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন