মঙ্গলবার ২৩ জুলাই, ২০১৯ ইং , ৮ শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৯ জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

ইয়াবা বিক্রেতা নুরুল হক ভুট্টোর আবেদন হাই কোর্টে খারিজ

জুন ২৫, ২০১৯ | ৮:১৯ অপরাহ্ণ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: জব্দ সম্পদ ফিরে পেতে কক্সবাজারের ইয়াবা বিক্রেতা নুরুল হক ভুট্টোর করা আবেদন (ফৌজদারি বিবিধ) খারিজ করে দিয়েছেন হাই কোর্ট।

মঙ্গলবার (২৫ জুন) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কেএম হাফিজুল আলমের হাই কোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে নুরুল হক ভুট্টোর পক্ষে আইনজীবী ছিলেন প্রবীর রঞ্জন হালদার। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক।

মামলার নথি থেকে জানা যায়, কক্সবাজারের ইয়াবা বিক্রেতা নুরুল হক ভুট্টো এবং তার পরিবারের সদস্যরা মাদক বিক্রির মাধ্যমে কোটি কোটি টাকার সম্পদ করেছেন। মানি লন্ডারিং আইনে নারায়ণগঞ্জের একটি মামলার তদন্ত ‍শুরু করে নুরুল হক ভুট্টোর বিরুদ্ধে ইয়াবা বিক্রি করে অবৈধ সম্পদ অর্জনের তথ্য পায় আইন-শৃংখলা বাহিনী। পর্যায়ক্রমে ভুট্টোর বিরুদ্ধে মাদক বিক্রি ও সম্পদের পাহাড় গড়ার তথ্য বেড়িয়ে আসতে শুরু করে।

বিজ্ঞাপন

এরপর পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) অর্গানাইজড ক্রাইমের (ইকোনমিক ক্রাইম স্কোয়াড) সহকারী পুলিশ সুপার মো. ইকবাল হোসেন ২০১৭ সালের ২৯ আগস্ট টেকনাফ থানায় নুরুল হক ভুট্টো, তার পিতা, স্ত্রী, ভাইসহ ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় পুলিশের আবেদনে গত ৫ মার্চ কক্সবাজারের জেলা ও দায়রা জজ আদালত এক আদেশে ভুট্টোর পরিবারের সম্পদ জব্দ করার নির্দেশ দেন। পুলিশ নুরুল হক ভুট্টোর দু’টি বিলাস বহুল বাড়ি এবং প্রায় ছয় কোটি টাকার সম্পদ জব্দ করে।

জব্দ সম্পদ ফিরে পেতে ভুট্টো হাই কোর্টে আবেদন করেন। ওই আবেদনে কক্সবাজার আদালতের আদেশ স্থগিত চাওয়া হয়।

নুরুল হক ভুট্টোকে ২০১৭ সালের ২৯ আগস্ট গ্রেফতার করে পুলিশ। পরের বছর ২০১৮ সালের ২৮ মার্চ হাই কোর্ট থেকে জামিন পান ভুট্টো। কারামুক্ত হওয়ার পর দীর্ঘদিন নিম্ন আদালতে স্বশরীরে হাজির হননি তিনি, আইনজীবীর মাধ্যমে হাজিরা দিয়েছেন। এই মামলার আরেক আসামি ভুট্টোর ভাই নূর মোহাম্মদকে গত ২১ মার্চ গ্রেফতার করে পুলিশ। পরদিন ক্রসফায়ারে তিনি নিহত হন।

সারাবাংলা/এজেডকে/এটি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন