শুক্রবার ২২ নভেম্বর, ২০১৯ ইং , ৮ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২৪ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

নুসরাত-নিখিলের দুষ্টু-মিষ্টি রিসেপশন

জুলাই ৫, ২০১৯ | ৩:২৬ অপরাহ্ণ

এন্টারটেইনমেন্ট ডেস্ক

‘সারা জীবন একই লোকের সঙ্গে কাটাতে হবে, বুঝতে পারছেন চাপটা!’ রিসেপশনে বললেন নুসরাত।
আর নুসরাতের দিকে তাকিয়ে নিখিল বললেন ‘ওর দায়িত্ব আমার। ওকে ভাল রাখব সবসময়।’

বিজ্ঞাপন

এভাবেই দুষ্টু-মিষ্টি ভালোবাসায় কাটল কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেত্রী নুসরাত জাহান ও নিখিল জৈনের রিসেপশন পার্টি।

কলকাতার ইস্টার্ন মেট্রোপলিটন বাইপাস সংলগ্ন একটি সাত তারকা হোটেলে বসেছিল বিয়ে পরবর্তী এই আয়োজন। বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) সন্ধ্যায় স্ত্রী নুসরাত জাহানকে পাশে নিয়ে নিখিল জৈন উদযাপন করলেন তাদের রিসেপশন পার্টি।

এর আগে তুরস্কের বোদরুমে বসেছিল এই টলিউড তারকা ও লোকসভা সাংসদের বিয়ের আসর। টলিউড থেকে নুসরাতের ‘বেস্ট বাডি’ অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী ছাড়া আর কারও আমন্ত্রণ ছিল না সেখানে। কথা ছিল দেশে ফিরে শপথগ্রহণের পর কলকাতার সবাইকে নিয়ে হবে গ্র্যান্ড রিসেপশন।

বিজ্ঞাপন

পশ্চিমবাংলার বসিরহাট কেন্দ্র থেকে নির্বাচিত সাংসদ নুসরাতের রিসেপশনে যে টলিপাড়ার পাশাপাশি রাজনৈতিক সতীর্থরাও থাকবেন সে বিষয়টি আগে থেকেই আঁচ করা যাচ্ছিল।

টলিউড আর রাজনৈতিক মহলের এমন মিশেলও বিরল। হাজির ছিলেন পশ্চিমবাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ও।

সিনেমা পাড়া থেকে দেখা গিয়েছে রাইমা সেন ও আবির চট্টোপাধ্যায়কে। নুসরতের বিয়েতে আর কেউ না থাকুক, মিমি যে নুসরাতের সর্বক্ষণের সঙ্গী সে প্রমাণ আগেও পেয়েছেন নেটিজেনরা। বেস্ট ফ্রেন্ডের বিয়ে নিয়ে তার উচ্ছ্বসিত বক্তব্য, ‘দিদির বিয়েতেও এত সাজিনি।’

অনুষ্ঠানে খাওয়াদাওয়ার আয়োজনও ছিল প্রচুর। ইতালিয়ান কুইজিনের পাশাপাশি ছিল বাঙালি খাবার। আমিষ পদের মধ্যে ছিল ইলিশ, চিংড়ি, ভেটকি ছিল মাংসের আইটেমও। নুসরতের পছন্দ বসিরহাটের কাঁচাগোল্লাও  জায়গা করে নিয়েছিল খাবার তালিকায়।

বিদেশি পত্রিকা অবলম্বনে

সারাবাংলা/পিএ/পিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন