বৃহস্পতিবার ১৭ অক্টোবর, ২০১৯ ইং , ২ কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৭ সফর, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

বিজয়ের সেঞ্চুরির পর এগিয়ে স্বাগতিকরা

জুলাই ৬, ২০১৯ | ৬:৪২ অপরাহ্ণ

স্পোর্টস ডেস্ক

সফরকারী আফগানিস্তান ‘এ’ দলের বিপক্ষে চারদিনের আন-অফিসিয়াল টেস্ট ম্যাচের দ্বিতীয় দিন শেষে বাংলাদেশ ‘এ’ দল ১১৮ রানে এগিয়ে। স্বাগতিকদের প্রথম ইনিংসে ২৫৩ রানের জবাবে ব্যাট করতে নামা আফগানরা দ্বিতীয় দিন শেষে ৫ উইকেট হারিয়ে তুলেছে ১৩৫ রান। স্বাগতিকদের হয়ে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে অপরাজিত থাকেন এনামুল হক বিজয়।

বিজ্ঞাপন

খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে টসে জিতে প্রথমে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নেয় আফগানিস্তান। প্রথম দিন শেষে বাংলাদেশ ‘এ’ দলের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৪ উইকেট হারিয়ে ১১৯ রান। বৃষ্টির কারণে খেলা হয় মাত্র ৩৫ ওভার। ফিফটি হাঁকিয়ে অপরাজিত ছিলেন এনামুল হক বিজয়। দ্বিতীয় দিন ব্যাট হাতে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে অপরাজিতই থাকেন তিনি। উইকেটরক্ষক এই ব্যাটসম্যান ২০৫ বলে ১৪টি চার আর দুটি ছক্কায় করেন অপরাজিত ১২১ রান।

এর আগে ওপেনার এবং দলপতি ইমরুল কায়েস ০ রানে বিদায় নেন। আরেক ওপেনার মোহাম্মদ নাঈম ৯৪ বলে আটটি বাউন্ডারিতে করেন ৪৯ রান। বিজয়কে সঙ্গ দেওয়া আফিফ হোসেন ধ্রুব ৯৯ বলে আটটি বাউন্ডারিতে ৫০ রান করে বিদায় নেন। আর কেউ দুই অঙ্ক ছুঁতে পারেননি। জাকির হাসান, রকিবুল হাসান, তানবীর হায়দার, সানজামুল ইসলাম, কামরুল ইসলাম রাব্বি, সুমন খান, সালাউদ্দিন শাকিলরা নিজেদের ইনিংসকে টানতে পারেননি। ৭৮.৩ ওভারে ইমরুলের দল অলআউট হওয়ার আগে তোলে ২৫৩ রান।

আফগানদের হয়ে ইয়ামিন আহমাদজাই তিনটি, কায়েস আহমেদ তিনটি, নাভিন উল হক দুটি আর শরাফুদ্দিন আশরাফ একটি করে উইকেট তুলে নেন।

বিজ্ঞাপন

নিজেদের প্রতম ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে আফগানদের দুই ওপেনার উসমান গনি এবং ইব্রাহিম জাদরান তুলে নেন ৬৪ রান। কামরুল ইসলাম রাব্বির বলে বোল্ড হওয়ার আগে উসমান গনি ৫২ বলে করেন ৩৯ রান। আরেক ওপেনার ইব্রাহিম জাদরান ৬৭ বলে করেন ৩৭ রান। তিন নম্বরে নামা বাহির শাহ করেন ১৪ রান। দলপতি নাসির জামাল ০ রানে সাজঘরে ফেরেন।

দিন শেষে সাহিদুল্লাহ ২২ রানে অপরাজিত থাকেন। দারউইস রাসুল ১৩ রান করে সাজঘরে ফেরেন। ৯ রানে অপরাজিত আছেন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান আফসার জাজাই।

স্বাগতিকদের হয়ে স্পিনার সানজামুল ইসলাম ১৫ ওভারে ৪৮ রান খরচায় তুলে নেন তিনটি উইকেট। একটি করে উইকেট পান সালাউদ্দিন শাকিল এবং কামরুল ইসলাম রাব্বি। উইকেটের দেখা পাননি সুমন খান, আফিফ হোনে এবং তানবীর হায়দার।

১২ জুলাই চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে হবে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ চার দিনের ম্যাচ। বন্দরনগরীর এই মাঠেই ১৯, ২১ ও ২৪ জুলাই হবে প্রথম তিন ওয়ানডে। আর সাভারের বিকেএসপিতে ২৭ ও ২৯ জুলাই হবে সিরিজের শেষ দুই ওয়ানডে।

সারাবাংলা/এমআরপি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন