সোমবার ১৮ নভেম্বর, ২০১৯ ইং , ৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২০ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

প্রশ্নপত্রে সেফাতুল্লাহর নাম ব্যবহার দুর্ঘটনা: রাজউক অধ্যক্ষ

জুলাই ৯, ২০১৯ | ১২:৪৮ অপরাহ্ণ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের বিতর্কিত নাম সেফাতুল্লাহ ওরফে সেফুদা। এবার তার নাম ব্যবহার করা হয়েছে রাজধানীর একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ইসলাম শিক্ষা বিষয়ের প্রশ্নপত্রে। বিষয়টি নিয়ে জোর সমালোচনা শুরু হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

অন্তর্জালে ছড়িয়ে পড়া এক ছবিতে দেখা গেছে রাজউক উত্তরা মডেল কলেজের দশম শ্রেণির প্রাক-নির্বাচনি পরীক্ষায় সৃজনশীল ধাঁচে করা ওই প্রশ্নের উদ্দীপক অংশে সেফাতুল্লাহর নাম ব্যবহার করা হয়েছে। তবে এ ঘটনাকে নিছক দুর্ঘটনা বলে মন্তব্য করেছে কলেজটির কর্তৃপক্ষ।

প্রশ্নটির উদ্দীপক অংশে লেখা হয়েছে, “অদ্ভুত এক ধরণের মানুষ, সেফাতুল্লাহ সেফুদা। সোশ্যাল মিডিয়ায় সে বিভিন্ন কুরূচিপূর্ণ মন্তব্য করে। তরুণদের উদ্দেশ্যে সে বলে, ‘মদ খাবি, মানুষ হবি, আমি আরো এক গ্লাস খাইলাম’। তার কথার প্রতিবাদ করে একজন বিজ্ঞ আলেম বললেন, ‘তার মধ্যে যদি ইমানের সর্ব প্রথম এবং সর্বপ্রধান বিষয়ের প্রভাব পরিলক্ষিত হত, তাহলে সে হয়ে উঠত একজন আত্মসচেতন এবং আত্নমর্যাদাবান ব্যক্তি’।”

নিয়ম অনুযায়ী উদ্দীপকের আলোকে জ্ঞান, অনুধাবন, প্রয়োগ ও উচ্চতর দক্ষতামূলক চারটি প্রশ্ন করতে হয়। সেখানে লেখা প্রশ্নগুলো হলো- আকাইদ কী?, ইসলামের নাম ইসলাম রাখা হয়েছে কেন?, বিজ্ঞ আলেমের বক্তব্যে যে বিষয়টি ফুটে উঠেছে, তা আমাদের জীবনে কী প্রভাব ফেলতে পারে তা ব্যাখ্যা করো এবং তরুণদের উদ্দেশে দেওয়া সেফুদার বক্তব্যটি কিসের শামিল? এর ফলাফল বিশ্লেষণ করো।

বিজ্ঞাপন

তবে প্রশ্নপত্রে সেফাতুল্লাহর নাম ব্যবহার করাকে অনাকাঙ্খিত ঘটনা বলে মন্তব্য করেছেন রাজউক উত্তরা মডেল কলেজের অধ্যক্ষ ব্রিগেডিয়ার জেনারেল কাজী শওকত আলম। তিনি বলেন, এটি একটি দুর্ঘটনা। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, সেফাতুল্লাহ অস্ট্রিয়া প্রবাসী বাংলাদেশি। তার পুরো নাম সিফাত উল্লাহ মজুমদার।

সারাবাংলা/টিএস/এসএমএন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন