মঙ্গলবার ২৩ জুলাই, ২০১৯ ইং , ৮ শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৯ জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

শুরু হলো বেসিস ন্যাশনাল আইসিটি অ্যাওয়ার্ডস ২০১৯

জুলাই ৯, ২০১৯ | ৩:৫৪ অপরাহ্ণ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: দেশের তথ্য প্রযুক্তি খাতের শীর্ষ সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) এর উদ্যোগে ৩য় বারের মতো অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ন্যাশনাল আইসিটি অ্যাওয়ার্ডস। এই আয়োজনের বিজয়ীদের অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডসে বাংলাদেশের প্রতিযোগী হিসেবে মনোনীত করা হবে। এ বছর অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডস আগামী ১৮ থেকে ২৩ নভেম্বর ভিয়েতনামের হা লং বে-তে অনুষ্ঠিত হবে।

মঙ্গলবার (৯ জুলাই) রাজধানীর কারওয়ানবাজারের বেসিস কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে আয়োজনের বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর, জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ফারহানা এ রহমান, সহ-সভাপতি (প্রশাসন) শোয়েব আহমেদ মাসুদ, সহ-সভাপতি (অর্থ) মুশফিকুর রহমান, বেসিস পরিচালক এবং বেসিস আইসিটি অ্যাওয়ার্ডস ২০১৯ এর আহ্বায়ক দিদারুল আলম।

বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর বলেন, বেসিস ন্যাশনাল আইসিটি অ্যাওয়ার্ডসের মাধ্যমে আমরা সারাদেশের উদ্ভাবনী এবং সম্ভাবনাময় তথ্যপ্রযুক্তি প্রকল্পগুলোকে বাছাই করি এবং উৎসাহ দিতে পুরষ্কার দেই। বিভিন্ন ক্যাটাগরির প্রকল্পগুলো আমাদের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের বিস্তৃত সম্ভাবনাগুলোই তুলে ধরছে। মনোনীত প্রকল্পগুলো অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডে বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সক্ষমতাও তুলে ধরছে।

বেসিস আইসিটি অ্যাওয়ার্ড সম্পর্কে আহ্বায়ক দিদারুল আলম বলেন, বেসিস ন্যাশনাল আইসিটি অ্যাওয়ার্ডের লক্ষ্য হলো ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে ব্যক্তি, ছাত্র, উদ্যোক্তা, এসএমই এবং বাংলাদেশে পরিচালিত তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানসমূহের অসাধারণ কৃতিত্বের স্বীকৃতি। এ লক্ষ্যে বাংলাদেশ থেকে প্রকল্প জমা নেওয়া হচ্ছে, প্রাথমিক প্রকল্প জমা দেওয়া যাবে ১৮ জুলাই ২০১৯ পর্যন্ত।

বিজ্ঞাপন

আয়োজকরা জানান, এ বছর ৩৫টি ক্যাটাগরিতে ১০৫টি পুরষ্কার দেওয়া হবে। শিক্ষার্থীদের প্রকল্প জমা নেওয়ার জন্য রয়েছে বিশেষ ক্যাটাগরি। বিজয়ীদের অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডসের জন্য মনোনয়ন দেয়া হবে। ১৮ জুলাই পর্যন্ত প্রকল্প জমা দেওয়া যাবে। প্রকল্প জমা দিতে ভিজিট করতে হবে নিচের ঠিকানায়: https://bnia.basis.org.bd/apply-now.

সারাবাংলা/ইএইচটি/জেএএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন